প্রচ্ছদ

মৌলভীবাজারে আইনী ও মানবিক সহায়তার নামে প্রতারণা ও হয়রানী

০৯ মার্চ ২০১৯, ১৯:১০

crimesylhet.com

Sharing is caring!

ক্রাইম সিলেট ডেস্ক : মৌলভীবাজারে সাংবাদিক শ.ই. সরকার জবলু‘র বিরুদ্ধে মানবাধিকার অফিসে আইনী ও মানবিক সহায়তার নামে প্রতারণা ও হয়রানীর অভিযোগ উঠেছে। গত ৭ মার্চ মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসক বরাবর দায়েরী লিখিত অভিযোগ সুত্রে জানা গেছে- কমলগঞ্জ উপজেলার ছয়কুট গ্রামের ভুক্তভোগী শাহেনা আক্তার প্রায় এক বছর পূর্বে হিউম্যান রাইটস রিভিউ সোসাইটি মৌলভীবাজার জেলা শাখা বরাবরে আইনী ও মানবিক সহায়তা চেয়ে তার স্বামী কুলাউড়া উপজেলার ভুইগাঁও গ্রামের চেরাগ আলীর পুত্র নাজমুল হোসেন (অপু) এর বিরোদ্ধে লিখিত আবেদন করেন। এর প্রেক্ষিতে উক্ত সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক শ.ই সরকার জবলু তাকে সর্বাত্মক আইনী সহায়তার আশ্বাস প্রদান করে সার্বিক সহযোগিতা করবেন বলে প্রতিশ্রæতি দেন। এবং মোবাইল ফোনে যোগাযোগ অব্যাহত রাখেন। এবং পুণরায় তাঁর অফিসে ডেকে নিয়ে কু-প্রস্তাব দেন। শাহেনা এর তীব্র প্রতিবাদ করে বলেন- “আপনি আমার চাচা-বাবা’র মতো”। আপনাকে সব সময় “চাচা” সম্বোধন করে কথা বলি। তাছাড়া চাচা আপনাদের অফিসে মানুষ নির্যাতনের শিকার হয়ে আসে আবার আপনি আমাকে পুনরায় নির্যাতন করতে চান। আপনার একজন মেয়ে-ভাতিজি মনে করে আমাকে যথাযথ আইনী ও মানবিক সহায়তা করুন। অপরদিকে, তার স্বামী অপু‘র সাথে অনৈতিকভাবে একাধিকবার যোগাযোগীমূলে যোগাযোগ অব্যাহত রাখেন। এভাবে প্রায় এক বছর চলে যায়। উল্লেখ্য-ভুক্তভোগী ১নং রহিমপুর ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টারের উদ্যোক্তা হিসাবে কর্মরত আছেন। এবং তার একমাত্র ছেলেকে নিয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছেন। স্বামী নাজমুল হোসেন (অপু) দীর্ঘদিন যাবত স্ত্রী সন্তানদের ভরন-পোষন না দেওয়ায় উক্ত সংগঠনে প্রতিকার প্রার্থনা করে আবেদন করেন। উক্ত সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক শ.ই সরকার জবলু তার কাছ থেকে ভিন্ন ভিন্ন তারিখ ও সময়ে প্রায় দশ হাজার টাকা সহায়তার নামে আদায় করেন বলে অভিযোগ করেন। সর্বশেষ, গত ৭ মার্চ জেলা প্রশাসক বরাবর, পুলিশ সুপার, মৌলভীবাজার প্রেসক্লাব সভাপতি-সম্পাদক, মানবাধিকারের নামে হয়রানী ও দায়ী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আইনী ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য লিখিত অনুলিপি প্রদান করেছে।

  •  
  •  
  •  

আর্কাইভ

shares