জকিগঞ্জে প্রেমে বিয়ে গর্ভপাতের চেষ্টা করায় স্বামীর বিরুদ্ধে স্ত্রীর মামলা

প্রকাশিত: ১১:২৪ অপরাহ্ণ, মার্চ ২১, ২০১৯

জকিগঞ্জে প্রেমে বিয়ে গর্ভপাতের চেষ্টা করায় স্বামীর বিরুদ্ধে স্ত্রীর মামলা

জকিগঞ্জ প্রতিনিধি :: সিলেটের জকিগঞ্জে দেড়মাসের মাথায় জোর করে গর্ভপাত ঘটানোর চেষ্টার অভিযোগ এনে স্বামীর বিরুদ্ধে আদালতে মামলা দায়ের করেছেন এক অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী। বৃহস্পতিবার জকিগঞ্জ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে এ মামলা দায়ের করেন কাজলসার ইউনিয়নের ডেমারগ্রামের গৃহবধু মারজানা বেগম (২২)। মামলায় তিনি স্বামী মস্তকিম আলী (২৫) ও শ্বশুর মঈন উদ্দিন (৬৫)কে আসামী হিসেবে উল্লেখ করেছেন।

মামলার আইনজীবি কাওসার রশিদ বাহার মামলার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, ঘটনাটি খুবই অমানিবক এবং নিন্দনীয়। বৃহস্পতিবার বিচারক না থাকায় মামলাটি আদালতে ফাইলিং করে রাখা হয়েছে।

মামলায় বাদী মারজানা উল্লেখ করেন, একই গ্রামের মঈন উদ্দিনের ছেলে মস্তকিম আলীর সাথে তার দীর্ঘদিনের প্রেমের সম্পর্ক ছিলো। এর মধ্যে ঘটে যায় অনেক কিছু। বিয়ে করে ঘরে তুলতে মারজানা মস্তকিমকে চাপাচাপি শুরু করে। তাতে মস্তকিম অস্বীকৃতি জানায়। এ নিয়ে গত বছরের ৪ জানুয়ারী মারজানা বাদী হয়ে মস্তকিমের বিরুদ্ধে জকিগঞ্জ থানায় অভিযোগ দায়ের করলে পুলিশ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা রুজু করে। মামলা নং (জিআর-০১/২০১৮)। পরে মামলা থেকে বাঁচতে স্থানীয়দের মধ্যস্থতায় মারজানাকে বিয়ে করেন মুস্তকিম। বিয়ের পর তাদের ঔরসে একটি মেয়ে সন্তান জন্ম নেয়। সম্প্রতি মারজানা আবারো অন্তঃসত্ত্বা হন।

গত মঙ্গলবার তাদের মেয়ে অসুস্থ হয়ে পড়লে মস্তকিম মেয়ের চিকিৎসা করাতে স্ত্রীসহ জকিগঞ্জ সরকারি হাসপাতালে নিয়ে আসেন। হাসপাতালে আসার পর একজন নার্সের সহযোগিতায় কৌশলে দেড় মাসের অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী মারজানা বেগমের গর্ভপাতের চেষ্টা চালান। এতে মারজানা রাজি না হওয়ায় হাসপাতালেই মারপিট শুরু করেন। তখন আনসার বাহিনীর সদস্য পিসি আব্দুর রাজ্জাক ও আরেকজন ঘটনাটি দেখে মস্তকিমকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করার উদ্যোগ নেন।

পরে মস্তকিম পুলিশের হাত থেকে রেহাই পেতে মারধর ও গর্ভপাতের চেষ্টা থেকে বিরত থাকবেন মর্মে একটি মুচলেকা দিয়ে স্ত্রী ও মেয়েকে নিয়ে বাড়ী চলে যান। কিন্তু বাড়িতে নিয়ে স্ত্রী-সন্তানকে স্বামী মস্তকিম আলী ও তার বাবা মঈন উদ্দিন নির্যাতন করে তাড়িয়ে দেন।

পরে আজ (বৃহস্পতিবার) জকিগঞ্জ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে এ মামলা দায়ের করেন মারজানা।

Sharing is caring!

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

সর্বশেষ খবর

………………………..