সিলেটের বাণিজ্য মেলায় নজর কাড়ছে ওয়াটার বল

প্রকাশিত: ৮:৩৪ অপরাহ্ণ, মার্চ ১৫, ২০১৯

সিলেটের বাণিজ্য মেলায় নজর কাড়ছে ওয়াটার বল

Sharing is caring!

সিলেট :: সিলেটে ৫ম আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা। শুক্রবার (১৫ মার্চ) ছিল ছুটির দিন। তাই অন্য দিনের চেয়ে দর্শণার্থি ও ক্রেতাদের ভীড় একটু বেশি। অথচ মেলাটি পূর্ণাঙ্গভাবে চালু হবে উপজেলা নির্বাচনের পরে। গত শনিবার (৯মার্চ) মেলার উদ্বোধন হলেও ১৪ মার্চ পর্যন্ত মেলার মাঠ দর্শণার্থি ও ক্রেতাদের জন্য ছিল উম্মুক্ত। শুক্রবার থেকে টিকেট ক্রয় করে দর্শনার্থিরা মেলায় প্রবেশ করতে দেখা গেছে।
নগরীর শাহী ঈদগাহস্থ শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়ামে মাসব্যাপী মেলা আয়োজন করেছে সিলেট মেট্রোপলিটন চেম্বার অব কর্মাস এন্ড ইন্ডাস্ট্রি। এবারের মেলায় রয়েছে দেশ-বিদেশের ৩৫ টি প্যাভিলিয়ন ও ১২০ টি স্টল। আর মেলাটি আর্ন্তজাতিকভাবেই পরিচালিত হবে। ফলে মেলায় থাইল্যান্ড, ইরান, তুরস্ক, নেপাল, চীন, ভারত, পাকিস্তান সহ বেশ কয়েকটি দেশের প্যাভিলিয়নও থাকছে বলে জানিয়েছেন আয়োজকরা।
শুক্রবার মেলার মাঠ ঘুরে দেখা যায়, জুম্মার নামাজের পর থেকে মেলায় আসতে শুরু করেন নারী, শিশু সহ সব বয়সের মানুষজন। তারা সকলই মেলার কাউন্টার থেকে টিকেট ক্রয় করে মাঠে প্রবেশ করছেন। আর ক্রয় করছেন তাদের পছন্দের আসবাবপত্র। তবে সবচেয়ে বেশি ভীড় ছিল শিশুদের ওয়াটার বল ও ওয়াটার ড্যান্সিংএ। ওয়াটার বল খেলতে শিশুরা দীর্ঘক্ষণ লাইনে দাড়িয়েও থাকতে দেখা গেছে।
বালুচর থেকে ৭ বছরের শিশু সিয়ামকে সাথে নিয়ে আসা তার মা খালেদা বেগম জানান, সিলেটে এই প্রথম তিনি দেখেছেন ওয়াটার বল। যা সবার নজর কেড়েছে। তার ছেলে প্রায় আধঘন্টা যাবৎ সেই বলে খেলেছে।
এদিকে, ৫ম আর্ন্তজাতিক বাণিজ্য মেলা এখনও পুরোপুরিভাবে চালু হয়নি। বর্তমানে বেশ কয়েকটি প্যাভিলিয়ন ও স্টল মালিকরা তাদের দোকান সাজাতে ব্যস্ত রয়েছেন। তবে ব্যবসায়িরা জানিয়েছেন, ২২ মার্চের মধ্যে তাদের পুরো কাজ সম্পন্ন হবে।
মেট্রোপলিটন চেম্বারের সদস্য ও বাণিজ্য মেলার প্রধান সমন্বয়ক এম এ মঈন খান বাবলু জানান, মেলায় শিশুদের জন্য রয়েছে অত্যাধুনিক মানের শিশুপার্ক। বিনোদনের জন্য রয়েছে যাদুর প্যান্ডেল, গেইম অব ডেঞ্জার, থ্রি-ডি, ওয়াটার বল, ওয়াটার বুথ, জাম্পিং সহ নানা ধরণের আইটেম। তাছাড়া মেলায় আগত মুসল­¬ীদের জন্য রাখা হয়েছে মসজিদ। নিরাপত্তার স্বার্থে মেলায় থাকবে সিসি ক্যামেরা দ্বারা নিয়ন্ত্রিত ও নিজস্ব সিকিউরিটি গার্ড। আগতদের সুবিধার্থে রাখা হয়েছে বিশাল পার্কিং ও গণশৌচাগার।
মেট্রোপলিটন চেম্বারের সচিব জাহাঙ্গীর হোসেন জানান, প্রতিদিন সকাল ১০টা শুরু হয়ে চলবে রাত ১০টা পর্যন্ত। মেলার প্রবেশ মূল্য ২০ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। আর টিকেটের উপর রয়েছে র‌্যাফেল ড্র। তাছাড়া প্রতিবন্ধিদের জন্য ফ্রি প্রবেশ টিকেট দেয়া হবে এবং শিশু প্রতিবন্ধিদের জন্য মেলার সকল রাইড থাকবে উম্মুক্ত। মেলায় প্যাভিলিয়ন, মিনি-প্যাভিলিয়ন, রেস্তোরাঁ ও বিভিন্ন পণ্যের জন্য রাখা হয়েছে ১২০টি স্টল।
উলে­খ্য, গত ৯ মার্চ শনিবার বিকেলে মেলার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন বাংলাদেশ সরকারের বাণিজ্য মন্ত্রী টিপু মুনশি এমপিসহ প্রশাসনের কর্মকর্তা ও রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দরা।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

সর্বশেষ খবর

………………………..

shares