নগরীতে বৃষ্টিপাতের ফলে গাড়ি সংকট : সাধারণ মানুষের ব্যাপক দুর্ভোগ

প্রকাশিত: ২:০৯ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ১০, ২০১৭

Sharing is caring!

ক্রাইম ডেস্ক : পাত অব্যাহত থাকায় গাড়ি সংকটে পড়েছেন সাধারণ মানুষ। সৃষ্টি হয়েছে ব্যাপক দুর্ভোগ। সাগরে নিন্মচাপ থাকায় দেশজুড়ে বৃষ্টিপাত অব্যাহত রয়েছে। তবে সোমবার (১১ ডিসেম্বর) আকাশ পরিষ্কার হবে বলে জানা গেছে। সপ্তাহের শেষ ভাগেই জেঁকে বসতে শুরু করবে শীত।
সিলেট আবহাওয়া অফিসের আবহাওয়া পূর্বাভাসে জানা গেছে, সকাল ছয়টা পর্যন্ত বৃষ্টিপাত হয়েছে সিলেটে ৩৮ দশামিক ৪ মিলিমিটার। বৃষ্টিপাতের এ ধারা রোববারই কমে আসবে। তবে আকাশ পরিষ্কার হবে সোমবার দুপুরে দিকে। আর আকাশ পররিষ্কার হলে শৈত্যপ্রবাহ শুরু হতে পারে। বাড়তে পারে শীত।
এদিকে বৃষ্টিপাতের এ প্রবণতায় নগরবাসী সকাল থেকে ভিজে নাকাল। সপ্তাহের প্রথম কর্মদিবসে সকাল বেলা কাকভেজা হতে হয়েছে অনেককে। কেউ কেউ আবার ভিজে একাকার হয়েছেন ভারী বৃষ্টিতে।
আবহাওয়ার গতি-প্রকৃতি বিশ্লেষণ করে আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, আগামী ছয়দিন ক্রমান্বয়ে রাতের তাপমাত্রা কমবে।
এদিকে নগরীতে বৃষ্টিপাতের ফলে গাড়ি সংকটে পড়েছেন সাধারণ মানুষ। সৃষ্টি হয়েছে ব্যাপক দুর্ভোগ। বৃষ্টির অযুহাতে রিকশাচালক, সিএনজি (রুপান্তরিত প্রাকৃতিক গ্যাস) চালিত অটোরিকশা চালকরা ভাড়া বাড়িয়েছে দেড় গুণ।
টিলাগড় হতে জিন্দবাজার যাওয়ার জন্য সকাল ৮টা পর্যন্ত দাঁড়িয়ে থেকেও কোনো গাড়িতে উঠতে পারেননি বেসরকারি ব্যাংক কর্মকর্তা হুমায়ুন কবির। তিনি বলেন, বালুচর থেকে টিলাগড় পর্যন্ত ১৫ টাকার ভাড়া দিয়েছি ৪০ টাকা। আর টিলাগড় বাসন্ট্যান্ডে দুই ঘণ্টা দাঁড়িয়েও গাড়ি পাইনি। লেগুনা গুলোতে লোকে ঠাসা থাকায় ওঠা যাচ্ছে না। সিএনজি চালকরা যেতে চাচ্ছে না জিন্দবাজারে দিকে। যে যেতে চাচ্ছে, ভাড়া হাঁকাচ্ছে ১শ’ থেকে দেড় ১শ’টাকা।
একই অবস্থার মুখোমুখি হয়েছেন আখালিয়াগামী জাকির হোসাইনও। একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের এ কর্মকর্তা জানান, সকাল থেকে কয়েকবার ভিজে অবস্থা খুব বাজে। রাস্তায় কোনো শেল্টার নেওয়ারও উপায় নেই। দোকানের শ্যাডোর নিচেই অনেক মানুষ চাপাচাপি করে দাঁড়িয়ে আছেন।

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

December 2017
S S M T W T F
 1
2345678
9101112131415
16171819202122
23242526272829
3031  

সর্বশেষ খবর

………………………..

shares