সিলেটের তিন মন্ত্রীই কোটিপতি

প্রকাশিত: ৫:৪৫ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ৭, ২০১৮

সিলেটের তিন মন্ত্রীই কোটিপতি

স্টাফ রিপোর্টার :: বৃহত্তর সিলেট অঞ্চল থেকে মন্ত্রিপরিষদে আছেন তিন মন্ত্রী। তন্মধ্যে দুজন পূর্ণ মন্ত্রী, একজন প্রতিমন্ত্রী। এই তিন মন্ত্রীই সম্পদের দিক দিয়ে কোটিপতি। সিলেট-১ আসনের সাংসদ আবুল মাল আব্দুল মুহিত পালন করছেন অর্থমন্ত্রীর দায়িত্ব, সিলেট-৬ আসনে সাংসদ নুরুল ইসলাম নাহিদ আছেন শিক্ষামন্ত্রীর দায়িত্বে এবং সুনামগঞ্জ-৩ আসনের সাংসদ এম এ মান্নান অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করছেন। আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নাহিদ ও মান্নান ফের প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন। তবে ছোট ভাই ড. এ কে আব্দুল মোমেনকে সিলেট-১ আসন ছেড়ে দিয়ে নিজে নির্বাচনি রাজনীতি থেকে অবসর নিচ্ছেন মুহিত। নির্বাচনে অংশগ্রহণের জন্য নাহিদ ও মান্নান এবার নির্বাচন কমিশনে (ইসি) যে হলফনামা দাখিল করেছেন, তাতে দেখা গেছে, তাঁরা উভয়ই কোটিপতি। অন্যদিকে মুহিত নির্বাচন না করায় হলফনামা দাখিল করার প্রয়োজন পড়েনি। তবে তাঁর দাখিলকৃত ট্যাক্স রিটার্নে তিনি কোটিপতি বলে তথ্য পাওয়া গেছে। অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত গত ২৬ নভেম্বর ঢাকায় সচিবালয়ে অনলাইনে ট্যাক্স রিটার্ন জমা দেন। তাতে দেখা যায়, বর্তমানে তাঁর সম্পদের পরিমাণ ২ কোটি ২৮ লাখ ১৫ হাজার ৪৯৭ টাকা। ২০০৮ সালে দেশে নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচন হয়। তখন মুহিতের সম্পদের পরিমাণ ছিল এক কোটি ১৪ লাখ ৮৩ হাজার ৩৬ টাকা। গেল দশ বছরে তাঁর সম্পদ বেড়েছে এক কোটি ১৩ লাখ ৩২ হাজার ৪৬১ টাকা। শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ এবার ইসিতে দাখিলকৃত হলফনামায় অস্থাবর সম্পদের পরিমাণ দেখিয়েছেন এক কোটি ৫৮ লাখ ১৬ হাজার ৯ টাকার। ২০১৪ সালে অনুষ্ঠিত দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পরিসংখ্যান অনুসারে, তখন নাহিদের অস্থাবর সম্পদ ছিল ৯৮ লাখ ৩০ হাজার ৫৫০ টাকার। এ হিসেবে গেল পাঁচ বছরে তাঁর অস্থাবর সম্পদ ৫৯ লাখ ৮৫ হাজার ৪৫৯ টাকা। স্থাবর সম্পদও বেড়েছে নাহিদের। ২০০৮ সালে নবম জাতীয় নির্বাচনে নাহিদ তাঁর স্থাবর সম্পদের তালিকায় যৌথ মালিকানায় থাকা ৫ একর জমি ও ২ একরের বাড়ি দেখিয়েছিলেন। তখন তাঁর নামে পাঁচ লাখ টাকা মূল্যের অকৃষি জমি ছিল। এরপর ২০১৪ সালে দশম জাতীয় নির্বাচনে নাহিদ স্থাবর সম্পদের পরিমাণ দেখান ৬৯ লাখ ১৮ হাজার টাকা। এবার একাদশ জাতীয় নির্বাচনে স্থাবর সম্পদ ৭২ লাখ ৭৮ হাজার ৪৩৮ টাকার দেখিয়েছেন নাহিদ। এ হিসেবে গত পাঁচ বছরে তাঁর স্থাবর সম্পদ বেড়েছে ৩ লাখ ৬০ হাজার ৪৩৮ টাকা। অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নানের অস্থাবর সম্পদ বর্তমানে এক কোটি ৮৪ লাখ ৭২ হাজার ১৪৮ টাকার। গেল দশ বছরে তাঁর অস্থাবর সম্পদ বেড়েছে এক কোটি ২০ লাখ টাকা। ২০০৮ সালে অনুষ্ঠিত নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের হলফনামা অনুসারে, তখন মান্নানের অস্থাবর সম্পদ ছিল ৬৪ লাখ ২০ হাজার টাকার। এরপর ২০১৪ সালে অনুষ্ঠিত দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মান্নান তাঁর অস্থাবর সম্পদের পরিমাণ দেখান এক কোটি ৩৯ লাখ ৩৩ হাজার ২৭৬ টাকার।এ হিসেবে গেল দশ বছরের ব্যবধানে এম এ মান্নানের অস্থাবর সম্পদ বেড়েছে এক কোটি ২০ লাখ ৫২ হাজার ১৪৮ টাকা। আর পাঁচ বছরের ব্যবধানে এই সম্পদ বেড়েছে ৪৫ লাখ ৩৮ হাজার ৮৭২ টাকা। এছাড়া তাঁর স্থাবর সম্পদ এবার দেখিয়েছেন ৩৯ লাখ ২ হাজার টাকার।

Sharing is caring!

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

সর্বশেষ খবর

………………………..