ডিবি পুলিশের হেফাজতে ডিসি অফিস কর্মচারীর মৃত্যু

প্রকাশিত: 11:16 PM, January 13, 2018

ক্রাইম ডেস্ক : জামালপুরে ডিবি পুলিশের হেফাজতে টাঙ্গাইল ডিসি অফিসের কর্মচারী নাজিম উদ্দিনের (৫৯) মৃত্যুর অভিযোগ পাওয়া গেছে। পরিবারের অভিযোগ, পুলিশি নির্যাতনে নাজিম উদ্দিন মারা গেছেন।
শনিবার (১৩ জানুয়ারি) ভোর ৪টা ৪৫ মিনিটে জামালপুর জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন। পুলিশের দাবি, জুয়াড়ি হিসেবে গ্রেপ্তারকৃত নাজিম উদ্দিন হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মারা গেছেন।
নিহত নাজিম উদ্দিনের বাড়ি টাঙ্গাইলের সদর উপজেলার রসুলপুর ইউনিয়নের সালনা গ্রামে।
জামালপুর ডিবি পুলিশের ওসি সালেমুজ্জামান জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ডিবি পুলিশের এসআই খায়রুল ইসলামের নেতৃত্বে ডিবি পুলিশের দল জেলার সরিষাবাড়ী উপজেলার বয়রা বাজার এলাকায় অভিযান চালায়। অভিযান টের পেয়ে জুয়াড়িরা পালানোর চেষ্টা করলে নাজিম উদ্দিনসহ ১০ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়।
ওসি জানান, গ্রেপ্তারকৃতদের পিকআপযোগে নিয়ে আসার পথে নাজিম উদ্দিন হৃদরোগে আক্রান্ত হন। পরে ভোরে জামালপুর জেনারেল হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
হাসপাতালের জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত ডাক্তার হাসানুল বারী শিশির বলেন, ডিবি পুলিশের এসআই আব্দুল জলিল ভোর ৪টা ৪৫ মিনিটে এক ব্যক্তিকে নিয়ে আসেন। প্রাথমিক পরীক্ষা নিরীক্ষায় দেখা গেছে, অনেক আগেই মারা গেছেন নাজিম উদ্দিন। আমরা লাশ গ্রহণ করেছি।
নিহতের ভাই আব্দুল কাদের (৫০) দাবি করেন, আমার ভাই সরকারি জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে প্রসেস সার্ভার। তাকে আমি কখনও বিড়ি-সিগারেট এমনকি তাস পর্যন্ত খেলতে দেখিনি।
আব্দুল কাদের বলেন, আমার ভাই গত শুক্রবার সন্ধ্যায় বাড়িতেই ছিল। বেড়ানোর কথা বলে বাসা থেকে বের হয়ে আসে। সকালে খবর পাই, আমার ভাইকে জামালপুরের ডিবি পুলিশে ধরে নিয়েগেছে। ডিবি পুলিশে ফোন দিলে তারা জানায় নাজিম উদ্দিন নামে কাউকে গ্রেপ্তার করা হয়নি।
তিনি বলেন, আমি জামালপুরে এসে খবর পাই জামালপুর জেনারেল হাসপাতালে অজ্ঞাত এক ব্যক্তির মৃতদেহ পড়ে রয়েছে। হাসপাতালে গিয়ে আমার ভাইকে শনাক্ত করি। আমার ভাই হৃদরোগে আক্রান্ত হয়নি। ডিবি পুলিশের নির্যাতনে আমার ভাই মারা গেছে।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

সর্বশেষ খবর

………………………..