জৈন্তাপুরে পাল্টাপাল্টি মামলা নিয়ে উত্তেজনা

প্রকাশিত: ৩:০৩ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ১২, ২০১৭

Sharing is caring!

গোয়াইনঘাট প্রতিনিধি : সিলেটের শ্রীপুর পাথর কোয়ারির বিরোধপূর্ণ কয়েক কোটি টাকার জায়গা দখলকে কেন্দ্র করে পুরো উপজেলায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে, এই ঘটনায় উভয় পক্ষের পাল্টাপাল্টি মামলা দায়েরের ঘটনায় উত্তাল হয়ে উঠেছে জৈন্তাপুর উপজেলার রাজনৈতিক অঙ্গন। জৈন্তাপুর উপজেলার সীমান্তবর্তী শ্রীপুর পাথর কোয়ারির একটি অংশের ব্যক্তি মালিকানাধীন জায়গার বিরোধকে কেন্দ্র করে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এম লিয়াকত আলী এবং সহ-সভাপতি কামাল আহমদ, জৈন্তাপুর ইউপি চেয়ারম্যান এখলাছুর রহমান গ্রুপের মধ্যে বিগত কয়েক মাস থেকে দ্বন্দ্ব ও উত্তেজনা চলে আসছে। এ নিয়ে গত ৩রা ডিসেম্বর শ্রীপুর কোয়ারিতে ব্যক্তি মালিকানাধীন দাবি করে কোয়ারির কয়েক কোটি টাকার জায়গা দখল নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় নিহত হন দরবস্ত ইউনিয়নের মহাইল গ্রামের মর্তুজ আলীর পুত্র প্রবাসী হোসেন আহমদ (৩৫)। এই ঘটনায় ৭৭ জন আসামির নাম উল্লেখ করে থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। এতে নিহতের ভাই আমিন আহমদ মামলার বাদী হয়েছেন। পুলিশ এ পর্যন্ত ১৫ জনকে আটক করে, তার মধ্যে ৭ জন এ মামলার এজাহার ভুক্ত আসামি রয়েছেন। শ্রীপুর কোয়ারির ঘটনায় গত ৬ই ডিসেম্বর চতুল বাজার এলাকায় মামলার এজাহার ভুক্ত ৩৮নং আসামি দরবস্ত ইউনিয়নের ছাত্তারখাই গ্রামের সফর আলীর পুত্র আজির উদ্দিন কালাই (৪০) কে প্রতি পক্ষের লোকজন মারদর করে গুরুতর আহত করেন। তিনি ওসমানী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এই ঘটনায় গত ১০ই ডিসেম্বর আরেকটি মামলা দায়ের করা হয়। এতে উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি কামাল আহমদ, জৈন্তাপুর ইউপি চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগ নেতা এখলাছুর রহমান, উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক আনোয়ার হোসেন, যুগ্ম আহ্বায়ক মো. কুতুব উদ্দিন, অধ্যাপক শাহেদ আহমদ, জাকারিয়া মাহমুদকে অভিযুক্ত করে আরো ১৪ জনের নাম উল্লেখ করে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়েছে। অপরদিকে শ্রীপুর পাথর কোয়ারির সংঘর্ষের ঘটনায় বাউরভাগ গ্রামের ইদ্রিছ আলী সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত, আমলি আদালত (নং-৬ জৈন্তাপুর), গত ১০ই ডিসেম্বর পাল্টা অভিযোগপত্র দাখিল করেন। জৈন্তাপুর সি.আর এতে এতে উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি কামাল আহমদ, জৈন্তাপুর  ইউপি চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগ নেতা এখলাছুর রহমান, উপজেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি ফারুক আহমদ, সাধারণ সম্পাদক শওকত আলী, আওয়ামী লীগ নেতা হাজী আলা উদ্দিন, অধ্যাপক শাহেদ আহমদ, শ্রীপুর পাথর ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি আব্দুল আহাদ, উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক আনোয়ার হোসেন, যুগ্ম আহ্বায়ক মো. কুতুব উদ্দিন, জাকারিয়া মাহমুদ, আমিন আহমদ, শাহীন আহমদ, আবদুল কাদিরকে অভিযুক্ত করে আরোসহ ৪৬ জনের নাম উল্লেখ করা হয়েছে। অন্যদিকে শ্রীপুর কোয়ারিতে নিহত হোসেন আহমদ হত্যা ঘটনায় জৈন্তাপুর থানায় দায়েরকৃত মামলায় উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এম লিয়াকত আলী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সহকারী অধ্যাপক ফয়েজ আহমদ বাবর, দরবস্ত ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নুর উদ্দিন মড়া, সাংগঠনিক সম্পাদক সাইফুল আলম, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ সাধারণ সম্পাদক ইমাম উদ্দিন, জাফলং ইউপি’র আওয়ামী লীগ নেতা ব্যবসায়ী আবদুল মালিকসহ ৭৭ জনের নাম উল্লেখ রয়েছে। এসব পাল্টা মামলার ঘটনায় জৈন্তাপুর উপজেলার রাজনৈতিক অঙ্গন অনেকটা উত্তাল হয়ে উঠেছে। পুরো উপজেলা আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। পাল্টাপাল্টি মামলা দায়ের ঘটনায় উভয় গ্রুপের নেতাকর্মীরা অনেকটা আত্মগোপনে চলে গেছেন। মূলত শ্রীপুর কোয়ারির মূল দ্বন্দ্বের কারণ সরকারি ইজারাকৃত ভূমি সংলগ্ন ব্যক্তি মালিকানাধীন, নোম্যাস ল্যান্ড সরকারি খাস জায়গা থেকে অবৈধভাবে কোটি টাকার পাথর উত্তোলন নিয়ে আওয়ামী লীগরে দু’পক্ষের মধ্যে মূল দ্বন্দ্ব সৃষ্টি হয়। উভয় পক্ষ দাবি করেন তাদের মালিকানাধীন ভূমি রয়েছে। এ নিয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এম লিয়াকত আলী গ্রুপ এবং সহ-সভাপতি কামাল আহমদ, এখলাছুর রহমান চেয়ারম্যান গ্রুপের মধ্যে দ্বন্দ্ব দেখা দেয়।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

December 2017
S S M T W T F
 1
2345678
9101112131415
16171819202122
23242526272829
3031  

সর্বশেষ খবর

………………………..

shares