বিশ্বনাথের বৈরাগী বাজারে অবাধে বিক্রি হচ্ছে নিষিদ্ধ কারেন্ট জাল

প্রকাশিত: ৩:৫২ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২৬, ২০১৮

বিশ্বনাথের বৈরাগী বাজারে অবাধে বিক্রি হচ্ছে নিষিদ্ধ কারেন্ট জাল

Sharing is caring!

বিশ্বনাথ প্রতিনিধি :: বিশ্বনাথ উপজেলার বৈরাগী বাজারে অবাধে বিক্রি হচ্ছে নিষিদ্ধ কারেন্ট জাল। সপ্তাহের প্রতি রবি ও বৃহস্পতিবার প্রকাশ্যে কারেন্ট জাল বিক্রি হলেও মৎস্য অধিদপ্তর ও স্থানীয় বাজার পরিচালনা কমিটি রয়েছে নিশ্চুপ।
বৃহস্পতিবার (২৫অক্টোবর) সরেজমিনে উপজেলার বৈরাগী বাজারে গিয়ে দেখা যায়, নিষিদ্ধ কারেন্ট জাল বিক্রির মহোৎসব চলছে। কয়েক জন অসাধু ব্যবসায়ী রাজার হালে বলে নির্বিগ্নে বিক্রি করছেন নিষিদ্ধ কারেন্ট জাল। বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) অমিতাভ পরাগ তালুকদার’কে অবহিত করা হলে তিনি বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় তাৎক্ষণিকভাবে বৈরাগী বাজারে ছুটে যান। তবে ইউএনও’র সেখানে পৌছার আগেই অসাধু ব্যবসায়ীরা পালিয়ে যায়। এসময় বাজারে পরিত্যাক্ত অবস্থায় ৮০০ গ্রাম নিষিদ্ধ কারেন্ট জাল জব্দ করে আগুণে পুড়িয়ে ফেলা হয়।
সরকার ফাঁস জাল (কারেন্ট জাল) নিষিদ্ধ ঘোষণা করলেও তা কোনো কাজে আসছে না। নিয়ম অনুযায়ী এ আইন অমান্যকারীকে ৫০০ টাকা জরিমানা বা ৬ মাসের জেল অথবা উভয় দন্ডে দন্ডিত করার ঘোষণা রয়েছে। কিন্তু এসব আইনকে বৃদ্ধাঙুলি দেখিয়ে একশ্রেণির অসাধু মৎস্য শিকারীরা অবাধে কারেন্ট জাল ব্যবহার করে শিকার করছে পোনা মাছ। এই ধারা অব্যাহত থাকলে বিলুপ্ত হয়ে যাবে এলাকার বিভিন্ন হাওর, খাল-বিলের মাছ।
এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) অমিতাভ পরাগ তালুকদার বলেন, নিষিদ্ধ কারেন্ট জাল বিক্রি হচ্ছে শুনে আমি তাৎক্ষণিক অভিযানে যাই। কিন্ত সেখানে জাল বিক্রিয়কারী কাউকে পাওয়া যায়নি। তবে পরিত্যাক্ত অবস্থায় ৮০০গ্রাম কারেন্ট জাল জব্দ করে তা পুড়িয়ে ফেলা হয়। আমরা বাজারের ব্যবসায়ীদেরকে সতর্ক করেছি যাতে কেউ নিষিদ্ধ জাল বিক্রি করতে না পারে। উপজেলার কোথাও এই নিষিদ্ধ কারেন্ট জাল ক্রয়-বিক্রয় করতে দেখা গেলে দোষীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

October 2018
S S M T W T F
 12345
6789101112
13141516171819
20212223242526
2728293031  

সর্বশেষ খবর

………………………..

shares