চাকরিতে প্রবেশের বয়স ৩৫ করার দাবিতে সিলেটে বিক্ষোভ

প্রকাশিত: 2:33 PM, January 27, 2018

সিলেট :: সরকারি চাকরিতে প্রবেশের বয়স ন্যুনতম ৩৫ করার দাবিতে সারা দেশের ন্যায় সিলেট কেন্দ্রীয় শহিদমিনারেও বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র পরিষদ সিলেট জেলা শাখার উদ্যোগে শনিবার সকাল ১১টায় মানববন্ধন ও বিক্ষোভ কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়।
বিক্ষোভ কর্মসূচি শেষে ছাত্রছাত্রীরা জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করেন। মানববন্ধন ও বিক্ষোভ কর্মসূচিতে সিলেটের বিভিন্ন কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যায়নরত ও চাকরিপ্রার্থীরা উন্নত বিশ্বের বিভিন্ন দেশের চাকরিতে প্রবেশের বয়স উদাহরণ টেনে বলেন, গড় আয়ূ যখন ৪৫ ছিল তখন চাকরিতে প্রবেশের বয়স ছিল ২৭। এখন গড় আয়ূ ৭১.৭১ কিন্তু প্রবেশের বয়স ৩০ ই রয়েছে গেছে। যেখানে সেশনজট নামক বিষগিট্টুতে আটকা পড়ে কর্মহীন এক অসহায় জীবন লিড করছে লক্ষ লক্ষ বেকারদের। সাম্প্রতিককালে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়েল গ্র্যাজুয়েটদের আত্মহত্যার সংবাদও এদেশে প্রকাশিত হয়েছে। সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রী, এমপি থেকে শুরু করে বিরোধী দলীয় নেতা পর্যন্ত এই দাবির স্বপক্ষে যুক্তি উত্থাপন করে মহান জাতীয় সংসদে বক্তব্য রাখলেও সরকার বাহাদুর প্রবেশের বয়স বৃদ্ধি না করে বরং অবসরের বয়স বার বার বৃদ্ধি করছেন। যা ছাত্রছাত্রীর জন্য চরম হতাশাজনক। মাদার অব হিউম্যানিটি খ্যাত জাতির জনকের কন্যা শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশ গঠনে এই তরুণ জনগোষ্ঠী অবদান রাখতে চায় বলে বক্তারা উল্লেখ করেন। জাতীয় যুবনীতি ৩৫ হওয়া স্বত্ত্বেও চাকরিতে প্রবেশের বয়স ৩০ কেন? এই প্রশ্ন রেখে বক্তারা উল্লেখ করেন, বেকারের মিছিল দীর্ঘ করে কখনই মধ্যম আয়ের দেশে উন্নীত হওয়া সম্ভব নয়। আজ থেকে জাতীয় প্রেসক্লাবে অবস্থান কর্মসূচি পরবর্তীতে অনশন কর্মসূচিতে রূপান্তরিত হবে বলে তারা উল্লেখ করেন।
বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র পরিষদ সিলেট বিভাগের সভাপতি মিজান খান এর সভাপতিত্বে ও সিলেট জেলা শাখার সিনিয়র সহ সভাপতি নিরূপম কান্ত দাস অলকের সঞ্চালনায় মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন সিলেট বিভাগীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক এস.এম মিজানুর রহমান, সিনিয়র সহ সভাপতি নিলয় গোস্বামী, জেলা শাখার সভাপতি পুলক দাস, সাধারণ সম্পাদক অতি রঞ্জন দাস, অর্থ সম্পাদক রাহুল দাস, জলি আক্তার, বিমান দাস, সামাদুল ইসলাম, আফজাল হোসাইন, শুয়েব আহমদ, আলী আহমদ চৌধুরী, সাজ্জাদ খান প্রমুখ।

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

সর্বশেষ খবর

………………………..