কোম্পানীগঞ্জের শীর্ষ চাঁদাবাজ জিহাদ আলী বাহিনীর কান্ড: অতিষ্ট মানুষজন

প্রকাশিত: 9:35 PM, January 12, 2020

কোম্পানীগঞ্জের শীর্ষ চাঁদাবাজ জিহাদ আলী বাহিনীর কান্ড: অতিষ্ট মানুষজন

Sharing is caring!

স্টাফ রিপোর্টার :: সিলেটের কোম্পানীগঞ্জে শাহ আরফিন টিলায় চলছে পাথার খেকোদের ধ্বংস লীলা। পাথর খেকোদের রয়েছে বিশাল একটি চক্র। এই চক্রটি দিনের আলোয় ও রাতের অন্ধকারে স্থানীয় প্রশাসনকে ম্যানেজ করে অবৈধ ভাবে পাথর উত্তোলন করছে।

জানা গেছে, শাহ আরেফিন টিলায় বড় বড় গর্ত করে অবৈধ বোমা মেশিন, এক্সেভেটর ও ফেলুটার ব্যবহার করে চালিয়ে যাচ্ছে তাদের ধ্বংস লীলা। তাদের এই সকল কর্মকান্ডে মনে হয় শাহ আরেফিন টিলা আর বেশিন টিকে থাকবে না।

আর এই অবৈধ পাথর থেকে অধিক হারে রয়্যালিটির নামে ভূয়া একটি কাগজ দেখিয়ে লাখ লাখ টাকা চাঁদা আদায় করছেন কাঠল বাড়ি গ্রামের শীর্ষ চাঁদাবাজ জিহাদ আলী। কোয়ারীতে জিহাদ আলীর একটি লাটিয়াল বাহিনী রয়েছেন। এই বাহিনী দ্বারা প্রতিদিন চাঁদার টাকা আদায় করা হয়। পাথ বোঝাই গাড়ি থেকে হাজার হাজার টাকা আদায় করেন তার বাহিনী।

এই বাহিনীতে আছেন রয়েছেন চিকাডহরের আঞ্জু, বাবুল, আনোয়ার, কুদ্দুস, রোশন, ছবর আলী, পুরান ঝালিয়ার পারের আব্দুর রশিদ, কনাই, করিম, চানমিয়া। এই বাহিনী প্রতিদিন কোয়ারী এলাকায় মহড়া দিয়ে থাকে। যদি কোন লোক চাঁদা দিতে অপারগতা প্রকাশ করে তাহলে সাথে সাথে এই বাহিনী শুরু করেন নির্যাতন। তাদের নির্যাতনের ভয়ে বিরবে চাঁদা দিতে হয় শ্রমিকদের।

এই শীর্ষ চাঁদাবাজ জিহাদ আলী বাহিনীর নির্যানের শিকার দূর দূরান্ত থেকে আগত পাথর ব্যবসায়ীরা। তাদের ব্যবসার চেয়ে অধিক চাঁদা দিতে হয় এই বাহিনীর লোকদের। কিন্তু কি করবেন চাঁদা না দিয়ে পাথর নিয়ে কোম্পানীগঞ্জ এলাকা থেকে বাহির হতে পারবেন না।

ব্যবসায়ীদের সাথে আলাপ কালে জানা যায়, বৃদ্ধ জিহাদ আলীর এই বাহিনীকে চাঁদা না দিলে, আমাদের গাড়ি আটক করে। এমনকি সাথে সাথে তার লোকজন আমাদের প্ররিবহন শ্রমিকদের মারধর করে।

কোম্পানীগঞ্জের আলোচিত শীর্ষ চাঁদাবাজ জিহাদ আলীর লাটিয়াল বাহিনীর কবল থেকে রক্ষা পেতে উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের নিকট আশু হস্থক্ষেপ কামনা করছেন ব্যবসায়ীরা।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

January 2020
S S M T W T F
« Dec    
 123
45678910
11121314151617
18192021222324
25262728293031

সর্বশেষ খবর

………………………..

shares