বিশ্বনাথে গরু চোর আতঙ্ক, টাকা দিলেই মিলছে গরু!

প্রকাশিত: ৩:৫৫ অপরাহ্ণ, মে ২৫, ২০১৮

বিশ্বনাথে গরু চোর আতঙ্ক, টাকা দিলেই মিলছে গরু!

Sharing is caring!

বিশ্বনাথ প্রতিনিধি
সিলেটের বিশ্বনাথে ফের বেড়েছে গরু চুরি। গত কয়েকদিনে বেশ কয়েকজন গৃহস্থের গরু চুরি করে নিয়ে গেছে চোর চক্র।
এসব চুরি যাওয়া গরু উদ্ধার কিংবা চুরির সাথে জড়িতদের গ্রেফতার করতে পারছে না পুলিশ। ফলে গরু মালিকদের মধ্যে চুরি আতঙ্ক বিরাজ করছে। এদিকে চোরদের নিজস্ব লোকদের সাথে যোগাযোগ করে টাকার বিনিময়ে নিজের চুরি যাওয়া গরু ফিরে পেয়েছেন কেউ কেউ।
জানা গেছে, গত বুধবার দিবাগত রাতে উপজেলার দেওকলস ইউনিয়নের ধোপাখলা গ্রামের মকদ্দুছ আলীর তিনদিন বয়সী বাছুরসহ একটি গাভী নিয়ে যায় চোর চক্র। এর পূর্বের রাতে পাশ্ববর্তী গন্ধারকাপন গ্রামের আবু সালেহ’র একটি গরু চুরি যায়। শুধু তাই নয়, গত ৬মাসে গন্ধারকাপনসহ আশপাশের গ্রাম থেকে ১৫/২০টির মত গরু চুরি হলেও একটিরও হদিস মেলেনি। একই চিত্র পুরো উপজেলারও। উপজেলার বিভিন্ন গ্রাম থেকে প্রায়শই চুরি যাচ্ছে গরু। ২৭ মার্চ দিবাগত রাতে উপজেলার রামধানা গ্রাম থেকে হেলাল মিয়ার দুটি গরু চুরি যায়।
তার ভাই বাদী হয়ে বিশ্বনাথ থানায় মামলা দিলেও গরু উদ্ধার বা এর সাথে জড়িতদের গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। গত ২১ এপ্রিল দিবাগত রাতে উপজেলার তেলিকোনা গ্রামের মৌরশ আলীরও তিনটি গরু নিয়ে যায় চোরের দল। তিনি থানা পুলিশের দ্বারস্থ না হয়ে বড় অংকের টাকার বিনিময়ে ‘চ্যানেল’ ধরে তার তিনটি গরু চোরের কাছ থেকে ফিরে পান।
অনেকেই মনে করছেন, রমজান মাসে মানুষজনের সেহরি খেয়ে ঘুমিয়ে পড়া, তার উপরে মাঝেমধ্যে টানা বৃষ্টির ফলে ইদানীং গরু চুরি বেড়েছে। এই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে গৃহস্থের গরু নিয়ে যাচ্ছে চোরেরা। তবে, পুলিশ যদি গরু চুরি রোধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়, তাহলে ধীরে ধীরে কমে আসবে এর সংখ্যা।
এ ব্যাপারে থানার ওসি শামসুদ্দোহা পিপিএম বলেন, গত কয়েকদিনে গরু চুরি যাওয়ার বিষয়ে কেউ অভিযোগ দেয়নি। অভিযোগ পেলে যথাযথ আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। রামধানা গ্রাম থেকে গরু চুরি যাওয়ার মামলার প্রেক্ষিতে ব্যবস্থা নিতে তৎপর রয়েছে পুলিশ।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

May 2018
S S M T W T F
 1234
567891011
12131415161718
19202122232425
262728293031  

সর্বশেষ খবর

………………………..

shares