প্রচ্ছদ

ঘরের মাটিতে চ্যাম্পিয়ন রংপুরকে সহজেই হারাল সিলেট

১৬ জানুয়ারি ২০১৯, ২২:৪১

crimesylhet.com

Sharing is caring!

ক্রীড়া প্রতিবেদক :: আসরের দ্বিতীয় ও নিজেদের ঘরের মাটিতে প্রথম জয় তুলে নিল সিলেট। বুধবার সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বিপিএল সিলেট পর্বের চতুর্থ ম্যাচে সিলেট সিক্সার্স .. রানে হারায় বর্তমান চ্যাম্পিয়ন রংপুর রাইডার্সকে।

এর আগে ম্যাচের শুরুতে টসে জিতে সিলেটকে ব্যাটিংয়ের আমন্ত্রন জানান রংপুর দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা।

টসে হেরে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই লিটন দাস ও সাব্বির আহমেদের ঝড়ো ব্যাটিংয়ে ৬ ওভারে সংগ্রহ করে ৬১ রান। পরে এ বানের মিছিলে যোগ দেয় সিলেট সিক্সার্সের অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নার।

এ তালিকা থেকে বাদ যাননি নিকোলাস পুরানও। তাঁদের ব্যাটে ভর করে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে সিলেট সিক্সার্স সংগ্রহ করেন ১৮৭ রান। এবারের বিপিএলে এটাই সিলেটের সর্বোচ্চ সংগ্রহ। সব মিলে তৃতীয় সর্বোচ্চ।

এবারের বিপিএলে ব্যাট হাতে একদমই খারাপ যাচ্ছিল লিটন দাসের। আগের ৪ ম্যাচে খেলেছেন ১, ০, ৯ ও ৬ রানের ইনিংস! টপ অর্ডারের একজন ব্যাটসম্যান হিসেবে এই স্কোরের দিকে তাকিয়ে লিটন নিজেই হয়তো লজ্জা পাচ্ছিলেন! অধিনায়ক ওয়ার্নারেরও খুব ভালো কাটেনি। তিনি খেলেছেন ১৪, ৫৯, ৭ ও ০ রানের ইনিংস।

এই হতাশাকে পেছনে ফেলে দুজনেই আজ জ্বললেন। ওপেনিংয়ে নামা লিটন রানআউটের খড়্গে কাটা পড়ার আগে খেলেছেন ৪৩ বলে ৭০ রানের ইনিংস। ইনিংসটি তিনি সাজিয়েছেন ১ ছক্কা ও ৯ চারে। অধিনায়ক ওয়ার্নারের ব্যাটেও ঝড় বয়েছে একই রকম। তিনি ৩৬ বলে খেলেছেন অপরাজিত ৬১ রানের ইনিংস। ২টি ছক্কা ও ৬টি চার মেরেছেন তিনি।

টস জিতে রংপুর রাইডার্সের অধিনায়ক এমপি মাশরাফি টুর্নামেন্টের নিয়ম মেনেই ফিল্ডিং নেন প্রথমে। কিন্তু তার সিদ্ধান্তকে বুমেরাং প্রমাণ করে সিলেট উদ্বোধনী জুটিতেই তুলে ফেলে ৭৩ রান। ২০ বলে ২০ রান করা সাব্বির রহমানকে ফিরিয়ে সিলেটের উদ্বোধনী জুটি ভাঙেন বেনি হাওয়েল। এরপর লিটন ও ওয়ার্নার মিলে দ্বিতীয় উইকেটে গড়েন ৫৬ রানের জুটি, মাত্র ৩৬ বলে।

দলকে ১২৯ রানে রেখে লিটন ফিরে যাওয়ার পর ওয়ার্নার জুটি বাঁধেন নিকোলাস পুরানের সঙ্গে। ক্যারিবীয় ব্যাটসম্যান উইকেটে এসেই ঝড় তুলেছিলেন। কিন্তু তার ঝড় বেশিক্ষণ বইতে দেননি শফিউল ইসলাম। দুর্দান্ত এক ডেলিভারিতে পুরানের স্টাম্প উপড়ে ফেলেন তিনি। তবে আউট হওয়ার পুরান খেলেছেন ১৫ বলে ২৬ রানের ইনিংস। শেষ দিকে নেমে আফিফ হোসেন ১ চারে ৩ বলে ৬, জাকির হোসেন ০। অলক কাপালিও রানের খাতা খুলতে পারেননি।

শেষ ওভারে চমক দেখিয়ে দুই উইকেট তুলে নিয়েছেন শফিউল। সব মিলে তিনি উইকেট নিয়েছেন ৩টি। এছাড়া একটি উইকেট নিয়েছেন হাওয়েল। অন্য উইকেটটি রানআউট।

সিলেটের দেয়া ১৮৮ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নামা রংপুর নির্ধারিত ২০ ওভারে ৬ ইউকেট হারিয়ে সংগ্রহ করে ১৬০ রান। রংপুর ম্যাচ হারে ২৭ রানে।

  •  
  •  
  •  

সর্বশেষ ২৪ খবর

আর্কাইভ

shares