আ’লীগ নেত্রী ইসমু ষড়যন্ত্রকারীদের অপ-প্রচারের স্বীকার

প্রকাশিত: ৬:৪৮ অপরাহ্ণ, মার্চ ৭, ২০২০

আ’লীগ নেত্রী ইসমু ষড়যন্ত্রকারীদের অপ-প্রচারের স্বীকার

Sharing is caring!

ক্রাইম সিলেট ডেস্ক : একজন মুক্তিযোদ্ধার সন্তানের বিরুদ্ধে অপপ্রচারে নেমেছে একটি স্বাধীনতা বিরোধী চক্র, যাঁদের রক্তের বিনিময়ে স্বাধীনতা অর্জন হয়েছে, তাঁদের উত্তরসূরিরা কখনো স্বাধীনতা বিরোধী ও দেশের মান সম্মান ক্ষুন্ন করার মতো কখনো কোনো কাজ করবে না।

প্রকৌশলী ইসমত আরা বেগম ইসমু’র রাজনৈতিক জনপ্রিয়তা কে নষ্ট করার জন্য কিছু স্বার্থর লোভী নেতা/নেত্রীরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অপ-প্রচারে লিপ্ত হয়েছে, এবং তাঁকে হ্যায় প্রতিপন্ন করার চেষ্টা করতেছে, এবং যাঁরা এই অপ-প্রচারে লিপ্ত তাঁদের-কে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন প্রকৌশলী ইসমত আরা বেগম ইসমু।

মহেশখালী উপজেলার অন্তর্গত ধলঘাটা হাইস্কুল,পরিবর্তে কলেজ ছাত্রলীগের রাজনীতি থেকে উনার রাজনীতি শুরু আজ পর্যন্ত বঙ্গবন্ধুর আদর্শের বলিয়ান হয়ে জননেত্রী শেখ হাসিনার কর্মী হিসেবে এখনও সক্রিয় ভাবে কাজ করে যাচ্ছেন, উনার বাবা বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুল হক ১৯৭১ সালের মুক্তিযোদ্ধার আগে উত্তর মহেশখালীর একমাত্র উচ্চ বিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের ব্যানারে ভি পি নির্বাচন করে বিজয় লাভ করেন, এর পরে জাতীর জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ডাকে স্বাধীনতা সংগ্রামরের বিভিন্ন কর্মসূচিতে আন্দোলন সংগ্রামের নেতৃত্ব দিতে গিয়ে তৎকালীন পাকিস্তান সরকারের মহেশখালী থানার ওসি,ভূমি অফিস,বন বিভাগ ,খাদ্য অফিস ,তথাকথিত রাষ্ট্রদ্রোহী হিসেবে উনার বাবার বিরুদ্ধে চার টা মামলা করেন, প্রয়োজনে ক্রসফায়ার দিয়ে মেরে হাজির করার জন্য আদেশ প্রদান করেন, তখন উনার বাবা কে না পেয়ে উনার সকল আত্নীয় স্বজন কে অমানুষিক নির্যাতন করেন পাকহানাদার বাহিনী, যাহা বর্তমান সরকার কর্তৃক সংগৃহীত ও সংরক্ষিত মানবতা বিরোধী অপরাধ তদন্ত রিপোর্টে উল্লেখ আছে।

সেই ১৯৭১ সাল থেকে অধ্যবধি উনার বাবা ও উনার তিন ভাই বোন সহ পরিবারের সদস্যরা বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সকল আন্দোলন সংগ্রামর সাথে নিজেদের নিয়োজিত রেখেছেন।

এমতবস্থায় জননেত্রী শেখ হাসিনার হাত কে আরো শক্তিশালী করতে বি এন পি- জামাত খ্যাত এলাকা একাদশ তম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মহেশখালী – কুতুবদিয়া থেকে নমিনেশন প্রার্থী ছিলেন প্রকৌশলী ইসমত আরা বেগম ইসমু।
উনার এলাকার কিছু স্বাধীনতা বিরোধী পরাজিত শক্তি একটা প্রতিপক্ষ উনার এলাকার সম্মানিত গুরু-শ্রদ্ধেয় মানুষদের কে বিভ্রান্ত করতে ও প্রকৌশলী ইসমত আরা বেগম ইসমু’র রাজনৈতিক জনপ্রিয়তা কে নষ্ট করতে উনার বিরুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অপ-প্রচার চালাচ্ছে যাহা সম্পুর্ণ মিথ্যা ও উদ্দেশ্য প্রনোধীত।

আমরা স্বাধীনতা ও দেশের পক্ষের শক্তি, এই ভাবে স্বার্থন্নেসী নেতা/নেত্রীদের স্বার্থের জন্য জাতির পিতা ও এই স্বাধীনতা বিরোধী অপশক্তির অপপ্রচারের বিরুদ্ধে জোর প্রতিবাদ ও তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি।

“ব্যক্তিগত আক্রোশ মেটাতে প্রশ্নবিদ্ধ করেছে প্রকৌশলী ইসমত আরা বেগম ইসমু-কে” প্রিয় জন্মভূমি মহেশখালীর কিছু সংখ্যক মানুষ উনাকে রাজনৈতিক ভাবে কোনঠাসা করতে অপপ্রচার চালাচ্ছে এতেই বিভ্রান্তিকর পরিস্থিতিতে পড়ছে জনসাধারণ, আর এরকম ঘৃণ্যতম কাজের জন্য তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন প্রকৌশলী ইসমত আরা বেগম ইসমু।
তা ছাড়া যে অনলাইন পোর্টালে নিউজটি ছড়ানো হয়েছে সেই পোর্টালটি ভূয়া এবং বিনা তদন্তে অপপ্রচার ও মান ক্ষুন্ন করতে এমনটি করা হয়েছে, এই ব্যাপারে বিভ্রান্ত না হওয়ার জন্য সকলকে অনুরোধ করছি।

মহেশখালী তথা কক্সবাজারের ১৯৭১ এর স্বাধীনতা সংগ্রামের নির্যাতীত আওয়ামী লীগ পরিবারের সদস্যদের বিবেকের কাছে প্রকৌশলী ইসমত আরা বেগম ইসমু বিচার চাইলেন।
আমার বাবা ও আমার তিন ভাই সহ আমি কোন অফিস আদালতে তদবির কিংবা ব্যক্তিগত ভাবে অনৈতিক কিছু করেছি এমন কোন কিছু দেখাতে পারলে আমরা রাজনীতি ছেড়ে দেবো।

বঙ্গবন্ধু কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার দেশপ্রেম থেকে এখন যে শুধদ অভিযান চলমান রেখে দলের ভিতরে লুকিয়ে থাকা অনুপ্রবেশকারী ,দখলবাজ , চাঁদাবাজ ,ও সন্ত্রাসীরা নিপাত যাবে, ১৯৭১ এর বঙ্গবন্ধুর আদর্শের বলিয়ান শক্তি আমরাই জয়ী হব ইন শা আল্লাহ্, কোন অপতৎরতা ও অপশক্তি আমাকে দাবিয়ে রাখতে পারবে না, স্বাধীনতা বিরোধী এই অপশক্তির বিরুদ্ধে আমার আন্দোলন চলমান থাকবে, এই মূহুর্তে আমার মামতাময়ী মা জননেত্রী শেখ হাসিনা ও আমার সকল শ্রদ্ধেয় সম্মানিত দলীয় নেতৃবন্দসহ বাংলাদেশ সরকার প্রশাসনের সম্মানিত কর্মকর্তা ও সকল বীর মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের কাছে আমার বিরুদ্ধে এই অপপ্রচাকারীদের বিরুদ্ধে যথাযত ব্যবস্হা নেওয়ার জন্য সবিনয় সহীত বিনীত অনুরোধ জানিয়েছেন প্রকৌশলী ইসমত আরা বেগম ইসমু।

যদি এই ভাবে স্বাধীনতা ও দেশ বিরোধীরা মিথ্যা ভাবে নেতা/নেত্রীদের বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করে, তবে কি ভাবে বর্তমান অদৃশ্য রাজাকারের মোকাবেলা জাতি করতে পারবে, কারণ দৃশ্যমান রাজাকারের চেয়ে অদৃশ্য রাজাকারেরা খুবি ভয়াবহ্, যদি এই সব ষড়যন্ত্রকারীরা মিথ্যা ভাবে অপ-প্রচার চালিয়ে প্রকৃত নেতা/নেত্রীদের গ্রাস করতে পারে, তবে দেশ-দল ও জাতি কখনো সমন্বয়ে এগুতে পারবে না।

তাই সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষ সহ সকল’কে অপপ্রচারে বিভ্রান্ত না হওয়ার জন্য অনুরোধ জানাচ্ছি, এবং এই অপ-প্রচারকারীদের কে প্রতিহত করুন দল ও দেশের স্বার্থে, স্বাধীনতার রক্তের উত্তরসূরিরা কখনো দেশের বিরুদ্ধে কাজ করে না, তাই ষড়যন্ত্রকারীরা সাবধান।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

সর্বশেষ খবর

………………………..

shares