প্রচ্ছদ

সকল চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা ও বিএনপি পূনর্গঠনের কাজ সিলেট থেকে শুরু

২০ মে ২০১৯, ২০:২৯

সিলেট :

Sharing is caring!

কারান্তরীণ বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি, আওয়ামী সরকারের পতন ও গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের দাবীতে আগামীর সকল চ্যালেঞ্জ মোকাবেলার জন্য দেশব্যাপী বিএনপি পূনর্গঠনের কাজ শুরু হয়েছে বলে জানিয়েছেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. এ. জেড. এম জাহিদ হোসেন। একইসাথে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের নির্দেশে সিলেট দিয়েই বিএনপির পুনর্গঠনের কাজের সুচনা হয়েছে বলেও তিনি উল্লেখ করেন।

সোমবার (২০ মে) সিলেট জেলা বিএনপির কার্যনির্বাহী পরিষদের জরুরী সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি উপরোক্ত কথা বলেন।

ডা. এ. জেড. এম জাহিদ হোসেন বলেন, বিএনপি হচ্ছে গণমানুষের দল। তাই বিএনপির একমাত্র লক্ষ্যই হচ্ছে মানুষ, সমাজ ও দেশের কল্যাণে কাজ করা। গণতন্ত্র, ভোটাধিকার ও আইনের শাসন প্রতিষ্ঠার জন্যই বিএনপি শক্তিশালী ও জনপ্রিয় দলে পরিণত হয়েছে। জনপ্রিয়তায় ঈর্ষান্বিত হয়ে এবং আদর্শিক মোকাবেলায় ব্যর্থ হয়ে আওয়ামী সরকার জিয়া পরিবার, বিএনপির শীর্ষ নেতৃত্ব এবং তৃনমূল বিএনপির উপর নির্যাতনের স্টিম রোলার চালিয়ে যাচ্ছে। সরকারের সীমাহীন জুলুম-নিপীড়ন উপেক্ষা করে বিএনপি ঘুরে দাঁড়িয়েছে।

তিনি বলেন, দেশের রাজনীতিতে সিলেট একটি গুরুত্বপূর্ণ অঞ্চল। সকল আন্দোলন সংগ্রামের অন্যতম সূতিকাগার হচ্ছে সিলেট। এছাড়াও বিগত দিনে কাউন্সিলের মাধ্যমে জেলা ও মহানগর বিএনপি গঠনের মাধ্যমে সিলেট দেশের রাজনীতিতে একটি নব দিগন্তের সুচনা করে। আগামীতেও কাউন্সিলের মাধ্যমে সিলেট জেলা বিএনপি পূণর্গঠন করা হবে। আহ্বায়ক কমিটি ঘোষনা না হওয়া পর্যন্ত বর্তমান কমিটিই সাংগঠনিক সকল দায়িত্ব পালন করবে। কাউন্সিলের মাধ্যমে ওয়ার্ড, ইউনিয়ন, উপজেলা এবং পর্যায়ক্রমে জেলা বিএনপি পূনর্গঠন করা হবে। পাশাপাশি জেলা বিএনপির পরামর্শক্রমে সকল অঙ্গ ও সহযোগি সংগঠনের কমিটি গঠন করা হবে। একইভাবে স্বল্প সময়ের ভিতরে কেন্দ্রীয় বিএনপিকেও পূনর্গঠন করা হবে। পাশাপাশি অঙ্গ ও সহযোগি সংগঠনও পূনর্গঠন করা হবে।

বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও সিলেট জেলা সভাপতি আবুল কাহের চৌধুরী শামীমের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক আলী আহমদের পরিচালনায় নগরীর সোবহানীঘাটস্থ একটি কমিউনিটি সেন্টারে অনুষ্ঠিত সভায় জেলা বিএনপির কার্যনির্বাহী পরিষদের দুই-তৃতীয়াংশ সদস্য, জেলার অন্তর্গত বিভিন্ন উপজেলা ও পৌর কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক বৃন্দ এবং জেলার আওতাধীন সকল অঙ্গ ও সহযোগি সংগঠনের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকগণ উপস্থিত ছিলেন।

সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, বিএনপির কেন্দ্রীয় সিলেট বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ডা. সাখাওয়াত হাসান জীবন, বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও সিলেট সিটি মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী, কেন্দ্রীয় সহ-ক্ষুদ্র ঋণ সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রাজ্জাক, বিএনপির কেন্দ্রীয় সিলেট বিভাগীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক সাবেক এমপি কলিম উদ্দিন মিলন, বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ডা. শাহরিয়ার হোসেন চৌধুরী, জেলা বিএনপির সাবেক আহ্বায়ক এডভোকেট নুরুল হক, জেলা বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি আব্দুল কাহির চৌধুরী। অনুষ্ঠানের শুরুতে কুরআন তেলাওয়াত করেন জেলা ওলামা দলের সভাপতি মাওলানা সাদিকুর রহমান।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ডা. সাখাওয়াত হাসান জীবন বলেন, সিলেট জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটি থেকে শুরু করে কাউন্সিলের মাধ্যমে জেলার কমিটি এবং সকল উপজেলা-পৌর ও ইউনিয়ন এমনকি ওয়ার্ড পর্যায়ে সংগঠনকে শক্তিশালী করতে বর্তমান নেতৃবৃন্দ সকল ক্ষেত্রে সফল। আগামীতেও তারেক রহমানের নির্দেশে সিলেটের সকল ক্ষেত্রে দলীয় কার্যক্রমকে সুসংগঠিত করা হবে।

সভাপতির বক্তব্যে আবুল কাহের চৌধুরী শামীম বলেন, ‘যে প্রত্যাশা নিয়ে তৃনমূল বিএনপি আমাদেরকে ভোটের মাধ্যমে নির্বাচিত করেছিল আমরা সর্ব শক্তি দিয়ে সেই প্রত্যাশা পূরণে কাজ করেছি। সিলেট জেলার সকল উপজেলা, পৌরসভা, ইউনিয়ন এবং ওয়ার্ড পর্যায়ে দলকে সুসংগঠিত করতে দিনরাত পরিশ্রম করেছি। সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্ঠায় হামলা-মামলা, সীমাহিন জুলুম নিপীড়ন উপেক্ষা করে সিলেটে বিএনপি শক্তিশালী ভূমিকা পালন করেছে। নেতৃত্ব পরিবর্তনশীল কিন্তু আদর্শের সংগ্রাম কখনো পরিবর্তিত হয় না। দলের যে পর্যায়ে আমরা থাকবো সেখানে থেকেই দায়িত্ব পালন করে যাবো।’

তিনি তারেক রহমানের নির্দেশনার আলোকে দলকে শক্তিশালী করতে সকল পর্যায়ের নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ থাকার আহবান জানান।

  •  
  •  
  •  

আর্কাইভ

shares