প্রচ্ছদ

ঝড়-বৃষ্টি-বন্যায় বিপর্যস্ত মৃত ৮৫

০৫ মার্চ ২০১৯, ২০:১২

crimesylhet.com

Sharing is caring!

ক্রাইম সিলেট ডেস্ক : ভারি বৃষ্টিতে বিপর্যস্ত বিশ্বের বেশ কয়েকটি দেশের জনজীবন। এর মধ্যে, আফগানিস্তানে আকস্মিক বন্যায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৫৯ জনে দাঁড়িয়েছে।

বৃষ্টি অব্যাহত থাকায় পাকিস্তানের খাইবার পাখতুনখোয়া প্রদেশের বন্যা পরিস্থিতি আরও ভয়াবহ রূপ ধারণ করেছে। মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২৬-এ দাঁড়িয়েছে।

এখনও বন্যার পানিতে ডুবে আছে যুক্তরাজ্যের ওয়েলস। এ অবস্থায় জরুরি সতর্কতা জারি করা হয়েছে। এদিকে, ঝড় থেমে গেলেও যুক্তরাষ্ট্রের আলাবামা ও জর্জিয়া অঙ্গরাজ্যের পরিস্থিতি এখনও স্বাভাবিক হয়নি।

গত রবিবার একের পর এক টর্নেডোর আঘাতে জর্জরিত যুক্তরাষ্ট্রের আলাবামা ও জর্জিয়ায় ঝড়ের তাণ্ডব থামলেও থামেনি স্বজন হারাদের হাহাকার। ঝড়ে প্রাণ হারিয়েছেন বেশ কয়েকজন। নিখোঁজ আছেন অনেকেই। তাদের সন্ধানে এখনও উদ্ধারকর্মীরা অভিযান পরিচালনা করছেন। এ পরিস্থিতিতে দুর্যোগে স্বজন হারানো পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

যুক্তরাজ্যের ওয়েলসে বন্যা পরিস্থিতির আরও অবনতি হয়েছে। এখনও অব্যাহত রয়েছে তীব্র বৃষ্টিপাত। এমন পরিস্থিতিতে প্রাণহানির আশঙ্কা প্রকাশ করে দেশটিতে জরুরি সতর্কতা জারি করেছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। এর আগে, সেখানকার সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেয়া হয়। এছাড়া সরকারি, বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোর কার্যক্রমও সাময়িক বন্ধ রাখার নির্দেশ দেন রাজ্য গভর্নর।

বন্যার পানিতে তলিয়ে গেছে পাকিস্তানের খাইবার পাখতুনখোয়া প্রদেশের রাস্তাঘাট। সোমবার ওই অঞ্চলে ২২ মিলিমিটার পর্যন্ত বৃষ্টিপাত হয়। এখন পর্যন্ত প্রাণ হারিয়েছেন ২৫ জনের বেশি। এদের মধ্যে রয়েছে শিশুও। শুক্রবার পর্যন্ত বৃষ্টিপাত অব্যাহত থাকবে বলে পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া দপ্তর।

এদিকে বন্যার পানিতে এখনও ডুবে আছে আফগানিস্তানের দক্ষিণাঞ্চলে কান্দাহার প্রদেশ। নতুন করে আরও কয়েকজনের মৃতদেহ উদ্ধার হয়েছে। নিখোঁজ রয়েছে অনেকে। স্থানীয় কর্তৃপক্ষ জানায়, পানিতে তলিয়ে গেছে বেশিরভাগ রাস্তাঘাট। এতে ব্যাহত হচ্ছে যান চলাচল। ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে প্রায় দুই হাজার ঘরবাড়ি।

সোমবার কান্দাহার প্রদেশের গভর্নরের কার্যালয় থেকে এ বন্যাকে সাম্প্রতিক সময়ে আঘাত হানা সবচেয়ে ভয়াবহ দুর্যোগ বলে উল্লেখ করে এক বিবৃতি দেয়া হয়।

  •  
  •  
  •  

আর্কাইভ

shares