সিলেটে মাদকের ছোবল থেকে বাঁচাতে পুলিশের বিশেষ উদ্যোগ

প্রকাশিত: ৩:১৫ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ১৭, ২০১৭

Sharing is caring!

ক্রাইম সিলেট ডেস্ক : সিলেটের তরুণ প্রজন্মের বড় একটি অংশ সময়ে সময়ে মাদকের ছোবলে নিঃশেষ হয়ে যাচ্ছে। মাদক যেমন দেশের চলমান উন্নয়নকে বাধাগ্রস্ত করছে তেমনি তরুণ প্রজন্মকে ঠেলে দিচ্ছে ধ্বংসের পথে। ফলে দেশে কর্মক্ষম জনশক্তি ধীরে ধীরে কমে আসছে। এ অবস্থা থেকে উত্তরণে এবং তরুণ প্রজম্মকে সুস্থভাবে সমাজ গঠনে নিয়োজিত রাখতে এবার বিশেষ উদ্যোগ গ্রহণ করেছে সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশ (এসএমপি)।

এসএমপির অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (মিডিয়া) মুহম্মদ আবদুল ওয়াহাব জানান, মাদকাসক্তি নিরাময়ের এ উদ্যোগকে সফলভাবে বাস্তবায়নের লক্ষ্যে এসএমপি সিলেটে ‘মাদকাসক্তি নিরাময় চিকিৎসা সহায়তা তহবিল’ গঠন করেছে। এর পাশাপাশি সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের উদ্যোগে একটি কাউন্সিলিং সেন্টারও গঠন করা হয়েছে।

গঠিত কাউন্সিলিং সেন্টারে পূর্ব নির্ধারিত সময়ে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক, মনোবিজ্ঞানী, পুলিশ কর্মকর্তাগণ, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের কর্মকর্তাগণসহ বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ বিভিন্ন সেশনে অংশ নিয়ে মাদকাসক্তদের বিনামূল্যে কাউন্সিলিং সেবা প্রদান করবেন। অভিভাবকবৃন্দও উক্ত সেন্টারে সেবা গ্রহণ করতে পারবেন বলে জানান এই পুলিশ কর্মকর্তা।

আবদুল ওয়াহাব আরো জানান, সেবা গ্রহণে ইচ্ছুক যে কেউ মোবাইল নং-০১৭১৩-৩৭৪৫০৮ এ যোগাযোগ করে কাউন্সিলিং সেবা গ্রহণ করতে পারবেন।

পুলিশ কর্মকর্তা আবদুল ওয়াহাব বলেন, ‘আপাতত কাউন্সিলিংয়ের উপরই জোর দিচ্ছেন উদ্যোক্তারা। জনগণের আগ্রহ এবং প্রয়োজনের কথা বিবেচনা করে পরবর্তী চিকিৎসার পদক্ষেপ নেয়া হবে।’ তিনি পুলিশের এ সেবা গ্রহণে মানুষকে জানানোর উপর গুরুত্বারোপ করেন।

তহবিল গঠন সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘মূলত এ কার্যক্রমের উদ্যোক্তা এসএমপি এবং এসএমপি নিজেদের অর্থায়নে এর তহবিল গঠন করবে।’

এর আগে গত ৩ নভেম্বর এসএমপির সম্মেলন কক্ষে পুলিশ কমিশনার গোলাম কিবরিয়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এক সভায় ‘মাদকাসক্তি নিরাময় চিকিৎসা সহায়তা তহবিল’ গঠনের সিদ্ধান্ত নেয় সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশ।   ওই সভায় বক্তব্য রাখেন- সিলেট মেট্রোপলিটন চেম্বার অব কমার্সে সভাপতি হাসিন আহমেদ, এসএমপির উপ-পুলিশ কমিশনার (দক্ষিণ) বাসুদেব বণিক, সিলেট, উপ-পুলিশ কমিশনার (উত্তর) ফয়সল মাহমুদ, উপ-পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক) মো. তোফায়েল আহমেদ, মেট্রোপলিটন কমিউনিটি পুলিশিং কমিটির সভাপতি অধ্যাপক (অব.) বিজিত কুমার দে, বিভাগীয় পুলিশ হাসপাতালের তত্ত¡াবধায়ক ডা. মো. রফিকুল ইসলাম, অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (সিটিএসবি) সুজ্ঞান চাকমা।

এ সময় আলোচকবৃন্দ মাদকাসক্তদের মাদকাসক্তি থেকে ফিরিয়ে আনার লক্ষ্যে ‘মাদকাসক্তি নিরাময় চিকিৎসা সহায়তা তহবিল’ গঠনের জন্য কর্মকৌশল উপস্থাপন করেন। এ ব্যতিক্রমধর্মী উদ্যোগে মাদকাসক্তদের প্রতি মায়া-মমতা, ভালবাসা, পারিবারিক বন্ধন সুদৃঢ়করণ ও সু-চিকিৎসার মাধ্যমে সমাজের মূল স্রোতে ফিরিয়ে আনার উপর গুরুত্বারোপ করেন বক্তারা।

এ ব্যাপারে এসএমপির উপ-পুলিশ কমিশনার রেজাউল করিম বলেন, মাদকাসক্তি নিরাময়ে প্রাথমিক পর্যায়ে কাউন্সিলিংয়ের বিষয়টি মাথায় রেখেছেন তারা। সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকেই তাদের এ উদ্যোগ। তাদের কার্যক্রমের ফলে কোনো মানুষ যদি মাদকের আসক্তি ভুলে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসে তাতেই পুলিশের স্বার্থকতা।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

December 2017
S S M T W T F
 1
2345678
9101112131415
16171819202122
23242526272829
3031  

সর্বশেষ খবর

………………………..

shares