জৈন্তাপুরে লিয়াকতের বিরুদ্ধে আন্দোলন কমিটি গঠন

প্রকাশিত: ৩:৩২ পূর্বাহ্ণ, ডিসেম্বর ১৪, ২০১৭

Sharing is caring!

জৈন্তাপুর প্রতিনিধি : পাথর সাম্রাজ্যের ‘শাসক’ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক লিয়াকতের বিরুদ্ধে একাট্টা জৈন্তাপুরবাসী। নাগরিক কমিটি গঠন করে তারা লিয়াকতের বিরুদ্ধে টানা আন্দোলনে নেমেছেন। গতকাল জৈন্তাপুরের সমাবেশ থেকে লিয়াকতকে আওয়ামী লীগ থেকে বহিষ্কারের দাবি জানিয়েছেন ওই কমিটির নেতারা। এ সময় তারা হুমকি দিয়ে বলেন, লিয়াকতকে দল থেকে বহিষ্কার না করলে হরতাল, অবরোধ কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে। জৈন্তাপুর আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক দৌলা খুনের ঘটনার পর লিয়াকত আলীকে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত করা হয়েছিল। কমিটির নেতারা জানান, লিয়াকত সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হওয়ার পর জৈন্তাপুর ও গোয়াইনঘাটের পাথর রাজ্যের শাসকে পরিণত হন। তার কাছে শুধু দলীয় কর্মীরাই নয়- অসহায় ছিল প্রশাসনও। তার ভয়ে কেউ মুখ খোলার সাহস পেতো না। সর্বশেষ লিয়াকত বাহিনীর লোকজন জৈন্তাপুরের শ্রীপুর পাথর কোয়ারি অবৈধভাবে দখলে রেখে প্রবাসী হোসেন আহমদকে নির্মমভাবে খুন করেছে। বক্তারা নিহত হোসেন আহমদ হত্যার খুনি লিয়াকত আলী সহ তার বাহিনীকে দ্রুত আইনের আওতায় এনে কঠোর শাস্তি নিশ্চিত করার দাবি জানান। অপরদিকে জৈন্তাপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের দলীয় পদ থেকে বিতর্কিত, কুখ্যাত ভূমিখেকো, পাথরখেকো দখলবাজ লিয়াকত আলীকে দল থেকে বহিষ্কারের দাবি জানানো হয়। অন্যথায় গণস্বাক্ষর কর্মসূচি, সড়ক অবরোধ সহ লাগাতার হরতালের মতো কর্মসূচি পালন করা হবে বলে জানানো হয়। বুধবার বিকালে জৈন্তাপুর ঐতিহাসিক বটতলায় জৈন্তাপুর সচেতন নাগরিক সমাজের ডাকে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. আব্দুল্লাহ’র সভাপতিত্বে ও উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক কুতুব উদ্দিনের পরিচালনায় প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন জেলা যুবলীগের নেতা খাদিমপাড়া ইউপির চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট আফছর আহমদ, জৈন্তাপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি কামাল আহমদ, যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী নেতা সামসুল আলম, জৈন্তাপুর উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি ও নিজপাট ইউপি চেয়ারম্যান মঞ্জুর এলাহী সম্রাট, সাবেক উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও ইউপি চেয়ারম্যান এখলাছুর রহমান, আওয়ামী লীগ নেতা মুহিবুর রহমান মেম, সাবেক উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম, উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক আনোয়ার হোসেন, সাবেক জেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম সম্পাদক জাকারিয়া মাহমুদ, শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক শওকত আলী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাসান মোহাম্মদ বদরুল, নিহতের ভাই ডিগ্রি কলেজ ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি আমিন আহমদ, ফতেহপুর ইউপি আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি আলাউদ্দিন, মাওলানা সাদ উদ্দিন রব্বানী, স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা দুলাল আহমদ, খরিল পরগনার বিশিষ্ট মুরব্বি আতাউর রহমান, নিহতের ভাই শামীম আহমদ, মিজ্জান আহমদ রুবেল, মো. এরশাদুল আলম, ছাত্রলীগ নেতা মাহবুবুর রহমান সবুজ যুবলীগ, শাহীন আহমদ। এছাড়া আরো উপস্থিত ছিলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রশিদ, সিদ্দিকুর রহমান, মাস্টার আলতাফুর রহমান, আব্দুস সহিদ, আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুল হক, সাব্বির আহমদ, মাসুক আহমদ, পাথর শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়নের অন্যতম সদস্য মোস্তফা মিয়া, বাজার রিকশাচালক সমবায় সমিতির সভাপতি খলিলুর রহমান, ব্যবসায়ী তাজুল ইসলাম, রিয়াসত আলী, নাছির উদ্দিন, ইউপি সদস্য জালাল উদ্দিন, যুবলীগের যুগ্ম সম্পাদক শাহীনুর রহমান, যুবলীগ নেতা এবাদুর রহমান, মাসুদ আহমদ, নির্মল দেবনাথ, ছাত্রলীগ নেতা বদরউদ্দিন, রিয়াজুল ইসলাম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

December 2017
S S M T W T F
 1
2345678
9101112131415
16171819202122
23242526272829
3031  

সর্বশেষ খবর

………………………..

shares