কমিটি গঠনের আশায় বুড়ো বয়সে সিলেট ছাত্রলীগের নেতাকর্মী!

প্রকাশিত: 12:32 AM, August 30, 2021

কমিটি গঠনের আশায় বুড়ো বয়সে সিলেট ছাত্রলীগের নেতাকর্মী!

নিজস্ব প্রতিবেদক :: কমিটি গঠনের দীর্ঘসূত্রতায় বিলুপ্তির পথে সিলেট ছাত্রলীগ। বছরের বছর কমিটি না থাকায় ছাত্রত্ব চলে গেছে অনেক নেতাকর্মীর। বিয়ের পিড়িতে বসে সন্তানে আব্বাও হয়েছেন কেউ কেউ। তবুও আলোর মুখ দেখছে না সিলেট জেলা ও মহানগর ছাত্রলীগের কমিটি। সাংগঠনিক এ দৈন্যতায় অন্ত:সারশূন্য ছাত্রলীগের নাম ভাঙ্গিয়ে বলয় গ্রুপিংসহ চলছে নানা অপরাধ অপকর্ম। ফলে এর দায়ভার নিতে হচ্ছে সরকার দলের। ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হচ্ছে সরকারের।
কমিটি গঠনের লক্ষ্যে গত ১৩ মার্চ সিলেটে কর্মীসভা করে ছাত্রলীগ। এতে ছাত্রলীগ সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক উপস্থিত ছিলেন। এ কর্মীসভা নিয়ে ছাত্রলীগ নেতা-কর্মীদের মধ্যে ছিল ব্যাপক উৎসাহ। তবে সভার ৫ মাস পরও নতুন কমিটি হয়নি।
নাম প্রকাশ না করার শর্তে সিলেট জেলা ছাত্রলীগের রাজনীতির সাথে যুক্ত এক নেতা জানান- বিগত জেলা কমিটিতে সদস্য পদে ছিলেন তিনি। নতুন কমিটিতে আরও ভালো পদ পেতে লবিংও চালিয়ে যাচ্ছিলেন। তবে চার বছরেও নতুন কমিটি ঘোষণা না হওয়ায় পদ পাওয়ার নির্ধারিত বয়স পেরিয়ে গেছে তার। ছাত্রত্বও শেষ হয়ে গেছে। হতাশ হয়ে সম্প্রতি বিয়ের পিঁড়িতে বসেন ওই ছাত্রনেতা।
আরেক তরুণ বলেন, ‘কলেজজীবন থেকে ছাত্রলীগের রাজনীতি করছি। ভালো পদ-পদবি পাব সেই আশা ছিল। এমন আশায় সুযোগ পেয়েও চাকরিতে যোগ দেইনি; বিয়ে করিনি। জীবনটাকে নষ্ট করে দিয়েছি। অথচ কমিটি হবে-হচ্ছে করে আমাদের বুড়ো করে দিল ছাত্রলীগ।’
জেলা ছাত্রলীগের সবশেষ কমিটি গঠন করা হয়েছিল ২০১৪ সালে। নানা বিতর্ক ও অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে ২০১৭ সালের অক্টোবরে এ কমিটি বিলুপ্ত করে কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব। তখনই নতুন কমিটির পদপ্রত্যাশীদের কাছ থেকে জীবনবৃত্তান্ত চাওয়া হয়। এরপর চার বছর পেরিয়ে গেলেও নতুন কমিটি আর হয়নি।
কমিটি বিহীন অবস্থায়ও পড়ে আছে সিলেট মহানগর ছাত্রলীগ। গত ২০১৫ সালে সবশেষ সংগঠনটির কমিটি গঠন করা হয়েছিল। জেলা কমিটির মতোই নানা অভিযোগে ২০১৮ সালের অক্টোবরে মহানগর কমিটিও বিলুপ্ত করা হয়। এরপর তিন বছরে একাধিকবার উদ্যোগ নিয়েও গঠিত হয়নি নতুন কমিটি।
দল ক্ষমতায় থাকলেও দীর্ঘদিন ধরে কমিটি না থাকায় সিলেটে প্রায় নিষ্ক্রিয় হয়ে পড়েছে ছাত্রলীগ। নেতৃত্বহীনতার কারণে ছোট ছোট বলয়ে বিভক্ত হয়ে পড়ছে সংগঠনটি। কমিটি না থাকার সুযোগে ছাত্রলীগ নেতা পরিচয়ে অপরাধ প্রবণতাও বাড়ছে। এদিকে পদপ্রত্যাশী নেতাদের মধ্যেও বাড়ছে হতাশা।
তবে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য গত ১৩ মার্চ সিলেটে এসে কর্মীসভা করেন। সেখানে দ্রুত কমিটি গঠনের আশ্বাসও দেন তারা। এরপর সিলেট জেলা ও মহানগর ছাত্রলীগের কমিটি গঠনের তৎপরতাও শুরু হয়। পদপ্রত্যাশী নেতাদের তালিকা নেয়া হয়। পরবর্তী সময়ে অজ্ঞাত কারণে আটকে যায় সে উদ্যোগ।
নেতারা বলছেন, করোনার সংক্রমণ বেড়ে যাওয়া, লকডাউনসহ নানা বিধিনিষেধে সব কর্মকাণ্ড স্থবির হয়ে পড়ায় ছাত্রলীগের কমিটি গঠন হয়নি। চলমান শোকের মাসেও কমিটি দেয়া হবে না। সেপ্টেম্বরে সিলেট জেলা ও মহানগর ছাত্রলীগের নতুন কমিটি আসতে পারে।

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

সর্বশেষ খবর

………………………..