খাদ্যবান্ধব কর্মসূচিতে বৈষম্যের শিকার গোয়াইনঘাট

প্রকাশিত: ৬:০৪ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ২২, ২০১৮

Sharing is caring!

গোয়াইনঘাট প্রতিনিধি : সিলেটের গোয়াইনঘাটে সরকারের খাদ্যবান্ধব কর্মসূচিতে গোয়াইনঘাটে বৈষম্য দেখা গেছে। ৩ লক্ষাধিক জনগোষ্ঠী অধ্যুষিত এই উপজেলায় দরিদ্রতা এবং নিম্ন মধ্যবিত্ত পরিবারের লোকজনের অভাব নেই। অথচ এখানকার ৯ ইউনিয়নে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির আওতায় সুবিধাভোগী রয়েছেন মাত্র ১০২০ জন, যা একেবারেই নগণ্য। সরকার প্রতি কেজি চাল ১০ টাকা ডিলারের মাধ্যমে বিক্রি করছে।

অনুসন্ধানে জানা যায় যে, সিলেট সদর, দক্ষিণ সুরমা সহ প্রবাসী অধ্যুষিত অন্যান্য প্রতিটি উপজেলায় সাত হাজারের বেশি কার্ড প্রদান করা হলেও গোয়াইনঘাটের মত দরিদ্র এবং নিম্ন মধ্যবিত্ত জনসংখ্যা সমেত একটি বৃহৎ উপজেলায় কর্তৃপক্ষ কর্তৃক মাত্র ১ হাজার ২০টি কার্ড সুবিধাভোগীদের মধ্যে প্রদানের ঘটনাটি নিছকই বৈষম্য বলে মনে করছেন সচেতন মহল।

গোয়াইনঘাটে সপ্তাহে মঙ্গলবার ও বুধবার দুই দিন সংশ্লিষ্ট ডিলারের দোকান থেকে ১০ টাকা কেজি মূল্যে ৩০ কেজি চাল দেয়া হচ্ছে। উপজেলার ৯টি ইউনিয়নের মধ্যে ৮টি ইউনিয়নে ডিলারের মাধ্যমে এ চাল প্রদান করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন ওসি এলএসডি সিবু বাবু।

বুধবার গোয়াইনঘাট সদরের ডিলার নজরুল ইসলামের দোকানে কথা হয় এক সুবিধাভোগীর সাথে। তিনি জানান, খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির আওতায় আমি একজন উপকারভোগী। তবে এখানকার দরিদ্র জনগোষ্ঠীর বিপরীতে সুবিধাভোগীর সংখ্যা একেবারে নগণ্য। বিষয়টি বিবেচনা করতে এ ব্যাপারে ব্যবস্থা নিতে আমি কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।

এ ব্যাপারে কথা হলে গোয়াইনঘাটের উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিশ্বজিৎ কুমার পাল জানান, বিষয়টি সম্পর্কে আমি অবহিত হয়েছি, আগামী সভায় গোয়াইনঘাটের দরিদ্র জনগোষ্ঠীর পরিসংখ্যান অনুসারে সুবিধাভোগীদের সংখ্যা বাড়ানোর জন্য আমি প্রস্তাব করব।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

সর্বশেষ খবর

………………………..

shares