সুনামগঞ্জে ধর্মপাশায় কুকুরের কামড়ে শিশুসহ আহত ২৯

প্রকাশিত: 8:00 PM, April 21, 2018

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি :: সুনামগঞ্জের ধর্মপাশায় কুকুরের কামড়ে শিশুসহ অন্তত ২৯ জন নারী-পুুরুষ আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। আহতরা উপজেলার মধ্যনগর ও চামরদানি ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামের বাসিন্দা। গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা থেকে শুক্রবার বেলা ১২টা পর্যন্ত একটি পাগলা কুকুরের কামড়ে আহত হয় তারা। স্থানীয় লোকজন কুকুরটিকে হত্যা করেছে।

স্থানীয়রা জানায়, গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় চামরদানি ইউনিয়নের দুগনই গ্রামের শিশুসহ কয়েকজন ব্যক্তিকে কামড়ায় ওই কুকুরটি। শুক্রবার সকাল থেকে চামরদানি ইউনিয়নের বদলপুর, মধ্যনগর ইউনিয়নের তেলিপাড়া, মাছিমপুর, পিপড়াকান্দা, ইটাউড়ি, গলইখালি, কান্দাপাড়া, ইনাতনগর, বনগাঁও গ্রামের লোকজনকে কামড়াতে থাকে। পরে ওইদিন বেলা সাড়ে ১২টার দিকে বনগাঁও গ্রামের লোকজন ও পার্শ্ববর্তী হাওরে ধান কাটার শ্রমিকেরা সম্মিলিতভাবে কুকুরটিকে হত্যা করে। এদিকে আহতদের মধ্যে দুগনই গ্রামের রাকিব, আফসান, মোস্তফা, প্রশান্ত দাস, আফতাব, তেলিপাড়া গ্রামের শামসুল হক, সোহাগ মিয়া, পিপড়াকান্দা গ্রামের মাসুদ মিয়া, রাজিয়া আক্তার, আবু দাস, ইটাউড়ি গ্রামের অলক, গলইখালি গ্রামের অমৃতসহ ১৭/১৮ জন শিশু ও নারী পুরুষ মধ্যনগর বাজারে স্থানীয় চিকিৎসকদের কাছ থেকে প্রতিষেধক বা প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন। মধ্যনগর বাজারে প্রতিষেধক সংকট থাকায় আক্রান্ত ব্যক্তিদের কেউ কেউ ধর্মপাশা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও কলমাকান্দা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন। তবে প্রাথমিক চিকিৎসার পর পরবর্তী প্রতিষেধক নেওয়ার মতো সামর্থ নেই এদের অনেকের। তাই তারা সরকারি সহায়তা কামনা করেছে।

মধ্যনগর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান জানান, কুকুরের কামড়ে ২৯ জন ব্যক্তি আহত হয়েছে। স্থানীয় চিকিৎসকদের কাছে প্রতিষেধক সংকট রয়েছে। আক্রান্ত ব্যক্তিদের সুচিকিৎসা নিশ্চিত করতে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে অথবা সরকারিভাবে প্রতিষেধক সরবরাহ করা প্রয়োজন।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মামুন খন্দকার জানান, কুকুরের কামড়ে আক্রান্ত অসহায় ব্যক্তিদের চিকিৎসা সংক্রান্ত ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

সর্বশেষ খবর

………………………..