সিলেটে প্রধানমন্ত্রী উদ্বোধন করলেন আফতাবের সেই স্বপ্নের সড়ক

প্রকাশিত: 9:00 PM, January 30, 2018

সিলেট :: সিসিক’র ৭নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও সিলেট মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগ এর সভাপতি আফতাব হোসেন খানের স্বপ্নের জালালাবাদ রাস্তার সম্প্রসারণ ও এসফল্ট দ্বারা উন্নয়ন কাজের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ৩০ জানুয়ারি সিলেটে আলিয়া মাদ্রাসা মাঠের বিশাল জনসভায় ৩৮টি প্রকল্পের মধ্যে এ কাজেরও উদ্বোধন তিনি।

এ রাস্তাটি ছিল আফতাব হোসেন খানের স্বপ্নের সড়ক। তৎকালীন সময়ে নগরীর পশ্চিম পীর মহল্লায় কট্টরপন্থি মৌলবাদের সাম্রাজ্যে জয়বাংলা স্লোগান দেওয়াই ছিল যখন দু:ষ্কর, তখন থেকে ছাত্রলীগের রাজনীতি করে আসছেন আফতাব খান। শত বাধা জেল জুলুম নির্যাতন সহ্য করে টিকে আছেন রাজনীতিতে। কিশোর বয়স থেকে তিনি স্বপ্ন দেখতেন একদিন জনপ্রতিনিধি হবেন। একসময়ের জনবিচ্ছিন্ন নিজ এলাকাকে তিনি প্রথম সারির এলাকা হিসেবে গড়ে তুলবেন। একটি মডেল ওয়ার্ড হিসেবে গড়ে তোলার স্বপ্ন নিয়েই আফতাব ৭নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদে তরুণ বয়সে পর পর ৩ বার প্রতিদ্বন্ধিতা করেন। অবশেষে ২০১৫ সালের উপ নির্বাচনে তিনি ৭নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর নির্বাচিত হন। নির্বাচিত হওয়ার পুর্ব থেকেই পশ্চিম পীর মহল্লা থেকে মাত্র ৬ ফুটের সেই জালালাবাদ রাস্তা দিয়ে চলাচল করতে হতো ঐ এলাকার মানুষদের। তিনি ঐ রাস্তা প্রশস্তকরণের উদ্যোগ নিলে নানা প্রতিকূলতা সৃষ্টি হয়। তবুও থেমে যাননি তিনি। জনগণের স্বার্থে ও ওয়ার্ডকে মডেলরুপে রূপান্তরিত করতে এগিয়ে যান নিজ গন্তব্য স্থলে। কাজ করেন ওয়ার্ডবাসীর স্বার্থে। সর্বশেষ আজ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সিলেট আগমণে ৩৮ টি প্রকল্পের মধ্যে স্থান করে নেয় সেই জালালাবাদ সড়কটি। রাস্তার সম্প্রসারণ ও এসফল্ট দ্বারা উন্নয়ন কাজের উদ্বোধন করে গেলেন প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা। যা ইতোমধ্যে কয়েক কি.মি সম্পন্নও হয়েছে।

এ ব্যাপারে কাউন্সিলর আফতাব হোসেন খানের সাথে কথা বললে, তিনি আবেগাপ্লুত কন্ঠে বলেন, আমার দীর্ঘদিনের স্বপ্ন ছিলো এ রাস্তা প্রশস্তকরণ। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দীর্ঘ ২৮ ফুট করে প্রস্থ করে এ সড়কের কাজের উদ্বোধন করলেন। যার ফলে জালালাবাদ, পশ্চিম পীর মহল্লা, নুরানী লাল সবুজ, উত্তর পীর মহল্লা, বনকলাপাড়া এলাকার সাধারণ মানুষ উপকৃত হবে। এ রাস্তা সিলেট আন্তর্জাতিক স্টেডিয়াম হয়ে ইউ সিস্টেমে ও সুনামগঞ্জ মেইন রোডে সংযুক্ত হবে। ৭নং ওয়ার্ডবাসীর পক্ষ থেকে বঙ্গবন্ধুকন্যা মমতাময়ী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দীর্ঘায়ূ ও সফলতা কামনা করি এক বঞ্চিত এলাকাকে উন্নত এলাকায় রূপান্তরিত করার সুযোগ করে দেয়ায়। আমি মাত্র ২ বছর সময় পেয়েছি। এই অল্প সময়ে আমার দলীয় সরকারের কাছ থেকে সড়ক প্রশস্তকরণ ছাড়াও অনেকগুলো অবকাঠামোগত উন্নয়ন করেছি। আগামী নির্বাচনে আবারো বিজয়ী হলে ৭নং ওয়ার্ড উন্নয়নের দিকে আরো এগিয়ে যাবে। আমাদের নেত্রী শেখ হাসিনা উন্নয়নেই বিশ্বাসী।

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

সর্বশেষ খবর

………………………..