অর্থমন্ত্রী ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রীকে হালিমা খানমের ফুলেল শুভেচ্ছা

প্রকাশিত: 5:54 PM, January 1, 2018

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি : হালিমা খানম এর বর্তমান বয়স প্রায় ৭২ বছর। এরমধ্যে তিনি দীর্ঘ তিন যুগ ধরে নিঃস্বার্থভাবে তৃণমূল মানুষের কল্যাণে কাজ করে আসছেন। নারী হলেও অন্যায়ের কাছে কোনদিন হার মানেননি।

জেলার শায়েস্তাগঞ্জ পৌরসভার মহলুলসুনাম গ্রামের বাসিন্দা হালিমা খানম অবশেষে ২০০৮ সালে চলার সাথী স্বেচ্ছাসেবী সমাজ কল্যাণ সংস্থা গঠন করেন। গতিশীল সেবামূলক কার্যক্রমের ফলে এ সংস্থাটি রেজিস্ট্রেশনভূক্ত হয়। এ সংস্থার মাধ্যমে হালিমা খানম তৃণমূল মানুষের সেবায় নিজেকে নিয়োজিত রেখেছেন এ পর্যন্ত।

লোকজনের কাছে তিনি একজন সংগ্রামী নারী হিসেবে পরিচিত। ইতিমধ্যে সমাজসেবা কাজের স্বীকৃতিস্বরুপ তিনি মাদার তেরেসা, স্যার সলিমুল্লাহ, মহাত্মা গান্ধীসহ একাধিক সম্মাননা পদক লাভ করেছেন।

এদিকে ২২ ডিসেম্বর ছিল বাংলাদেশ এনজিও ফাউন্ডেশন (বিএনএফ) এর বিভাগীয় ত্রৈমাসিক সভা। আমন্ত্রণ পেয়ে হালিমা থানম এ সভায় যোগদান করেন। সিলেট জেলা পরিষদ হলরুমে অনুষ্ঠিত এ সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত। উপস্থিত ছিলেন, অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এমএ মান্নান, বাংলাদেশ এনজিও ফাউন্ডেশন চেয়ারম্যান এএফএম ইয়াহিয়া চৌধুরীসহ সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিবর্গ।

এ সভায় হালিমা খানম ফুলেল শুভেচ্ছা জানান অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত ও অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এমএ মান্নানকে। তারা এ শুভেচ্ছা সাধরে গ্রহণ করে আরো এগিয়ে যাওয়ার জন্য উৎসাহিত করেছেন এ সংগ্রামী নারীকে।

বাংলাদেশ এনজিও ফাউন্ডেশন চেয়ারম্যান এএফএম ইয়াহিয়া চৌধুরী বলেন, হালিমা খানম সংগ্রামী নারী। সে নিঃস্বার্থভাবে তৃণমূল মানুষের কল্যাণে কাজ করছে। আমি তার শুভ কামনা করছি।

সমাজসেবক হামিদুল হক বুলবুল ও মাসুক রানা বলেন, হালিমা খানম নিজের স্বার্থ ত্যাগ করে মানুষের পাশে থেকে কল্যাণমূলক কাজ করছেন। আমরা তার এ কাজকে স্বাগত জানাই।

হালিমা খানম বলেন, লোভ লালসা ত্যাগ করে জনকল্যাণে কাজ করছি। মানুষের জন্য কাজ করতে পেরে নিজেকে ধন্য মনে করি। তিনি বলেন, বাংলাদেশ এনজিও ফাউন্ডেশন চেয়ারম্যান এএফএম ইয়াহিয়া চৌধুরীর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। সেই সাথে জনকল্যাণে কাজ করার ক্ষেত্রে তিনি আমাকে সার্বিক সহায়তা করছেন।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

সর্বশেষ খবর

………………………..