সিটি হার্ট মার্কেট নিয়ে অপপ্রচারের তীব্র নিন্দা, বিভ্রান্ত না হওয়ার আহবান

১৩ জুলাই ২০১৯, ২০:২৪

স্টাফ রিপোর্টার ::

সিলেট নগরীর বন্দরবাজার সিটি হার্ট মার্কেটের প্রকৃত ব্যবসায়ীদের রক্ষার দাবি জানিয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছেন মার্কেটের একাংশের মালিক উস্তার মিয়া। সেই সঙ্গে বিশেষ কর্তৃক অপ্রচারে বিভ্রান্ত না হওয়ার আহবান জানিয়ে সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার দাবি করেছেন।

শনিবার বিকেলে সিলেট জেলা প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে এ দাবি জানান তিনি। মার্কেটের একাংশের মালিক নগরীর শিবগঞ্জ লামাপাড়া মোহিনী ৭৩ নং বাসার মরহুম জরুর উদ্দিনের ছেলে উস্তার মিয়াসহ ৩জন সিটি হার্ট মার্কেটের মালিক। ২০০৩ সালে মার্কেটটি করতে আতাউর রহমান গংদের ডেভেলপারের দায়িত্ব দেওয়া হয়।

সংবাদ সম্মেলনে উস্তার মিয়া বলেন, ডেভেলপার কোম্পানীর সঙ্গে আন্ডারগ্রাউন্ড পার্কিং ব্যবস্থা ও বিল্ডিং কোড মেনে পাইলিং করে ভবন তৈরীর চুক্তি ছিল। কিন্তু আতাউর রহমান গং পাইলিং না করেই ভবনের কাজ সম্পন্ন করেন এবং মার্কেটের নীচে আন্ডারগ্রাউন্ডে সিটি হার্ট রেস্টুরেন্ট করেন। নির্মাণজনিত ত্রুটির কারছে ২০১৭ সালে মার্কেটটি হেলে পড়ে। যা বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশিত হয়।

উস্তার আলীর দাবি, ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় মার্কেটে ব্যবসা চলার কারণে তিনি সিটি করপোরেশন, ডিসি ট্রাফিক ও দমকল বাহিনীসহ প্রশাসনের বিভিন্ন দফতরে চিঠি দেন। কিন্তু আতাউর রহমান, তার ছেলে লিটন ও বাবু মিলে ম্যানেজ করে আবার মার্কেট চালু করে। সেই থেকে তার সঙ্গে শত্রুতা করে আসছে তারা। তারা মার্কেটের তৃতীয় তলায় মানবাধিকার সংস্থার অফিস চুরি করিয়েছে। এ ঘটনায় তিনি মামলা দায়ের করলে ৩ জনকে আটক ও মালামাল উদ্ধার করেছে পুলিশ। আটকের পর আসামিরা আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দিও দিয়েছে।

মার্কেটের সামনে যাতে ভাসমান ব্যবসায়ীরা বসতে না পারে, এ জন্য তিনি এসএস পাইপ দিয়ে মার্কেটের সামন ব্যরিকেড দিয়েছেন, যেনো পথচারিরা নির্বিগ্নে চলাচল করতে পারেন। অথচ আতাউর রহমান গংরা টাকার লালসায় মার্কেটের সামনে ফুটপাতে ভাসমান দোকান বসিয়ে যানজট সৃষ্টি করিয়ে উল্টো তাকে দোষারুপ করছেন। মার্কেটের পরিচ্ছন্ন কর্মীদের নাকি বেতন আটকিয়েছি, এসব অপপ্রলাপ নিয়ে তারা ১২ জুলাই এজাজ নামে তাদের পোষ্য এক সন্ত্রাসীকে দিয়ে মার্কেট কমিটির নামে সংবাদ সম্মেলন করিয়েছে। যেখানে মার্কেটের কোনো কমিটিই নেই। আর ব্যবসায়ী পরিচয় দেওয়া এজাজকেও চেনেন না তিনি।

নিজে মানবাধিকার সংগঠনের সঙ্গে জড়িত থাকার করে তিনি অপপ্রচারের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বলেন, প্রকৃত ব্যবসায়ীদের রক্ষায় মার্কেটে ত্রাস সৃষ্টিকারী সন্ত্রাসীদের গ্রেফতারের দাবি জানান।