শফিক চৌধুরীকে প্রতিমন্ত্রী করায় বিশ্বনাথে আনন্দ মিছিল

প্রকাশিত: ১২:১৬ পূর্বাহ্ণ, জানুয়ারি ১২, ২০২৪

শফিক চৌধুরীকে প্রতিমন্ত্রী করায় বিশ্বনাথে আনন্দ মিছিল

বিশ্বনাথ প্রতিনিধি : সিলেট-২ বিশ্বনাথ ও ওসমানীনগর আসনের নব-নির্বাচিত এমপি ও জেলা আ.লীগের সভাপতি আলহাজ্ব শফিকুর রহমান চৌধুরীকে প্রতিমন্ত্রী করায় সিলেটের বিশ্বনাথে আনন্দ মিছিল করেছে উপজেলা ও পৌর আ.লীগ অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠন।

এছাড়াও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞাতা ও অভিনন্দন জানান নেতাকর্মীরা। বৃহস্পতিবার বিকেলে মিছিলটি পৌর শহরের বায়তুল আমান জামে মসজিদ থেকে বের হয়ে পৌর শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে বাসিয়া সেতুর উপরে গিয়ে শেষ হয়। এর পূর্বে আসরের নামাজ শেষে বায়তুল আমান জামে মসজিদে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।

এসময় উপজেলা আ.লীগের সভাপতি শাহ আসাদুজ্জামান আসাদ, সাধারণ সম্পাদক ফারুক আহমদ, পৌরসভা আ.লীগের আহবায়ক আব্দুল জলিল জালাল ও যুগ্ম আহবায়ক আলতাব হোসেনসহ অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মরিা উপস্থিত ছিলেন।

জানাযায়, বিশ্বনাথবাসী প্রায় ৪৪ বছর পর শফিকুর রহমান চৌধুরীকে আবারও বাংলাদেশ সরকারের একজন প্রতিমন্ত্রী হিসেবে পান। বুধবার সন্ধ্যায় সর্বত্র এমন খবর ছড়িয়ে পড়লে বিশ্বনাথে সর্বস্থরের জনসাধারণের মধ্যে দেখা দেয় আনন্দের বন্যা। এমন খবরে পৌর শহরে মিষ্টি বিতরণও করেন উপজেলা ও পৌরসভা আ.লীগ অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা। দীর্ঘদিন পর বিশ্বনাথবাসী শফিকুর রহমান চৌধুরীকে প্রতিমন্ত্রী পেয়ে উন্নয়ন নিয়ে নতুন করে আশার আলো দেখতে পাচ্ছেন।

অনেকেই বলেন এই আসনে অতীতের ১০ বছর পিছিয়ে পড়া উন্নয়ন এবার পুষিয়ে নেয়ার একটি বিশাল সুযোগ হয়েছে। প্রায় ৪৪বছর পূর্বে ১৯৭৯ সালে একবার বিশ্বনাথবাসী একজন যোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী পেয়ে ছিলেন। তিনি হলেন মরমী কবি দেওয়ান হাসন রাজার পরিবারের সদস্য দেওয়ান তৈমুর রাজা চৌধুরী। তার পর প্রায় ৪৪টি বছর আর বিশ্বনাথবাসী একজন প্রতিমন্ত্রীর দেখা পাননি। শফিকুর রহমান চৌধুরী প্রতিমন্ত্রী হওয়ায় আরেকটি ইতিহাস গড়েছেন।

শফিকুর রহমান চৌধুরী ১৯৫৭ সালের ২৯ডিসেম্বর বিশ্বনাথ উপজেলার দশঘর ইউনিয়নের চান্দভরাং গ্রামের মৃত আব্দুল মুতলিব চৌধুরী ও লতিফুন নেছা চৌধুরী দম্পতির চতুর্থ ছেলে। তিনি ২০০৮ সালের ২৯ ডিসেম্বর জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশগ্রহন করে প্রথমবারে সংসদ সদস্য নির্বাচীত হন। এসময় তার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ছিলেন বর্তমান নিখোঁজ বিএনপি নেতা এম ইলিয়াস আলী। বিগত দুটি সংসদ নির্বাচনে আ.লীগ থেকে মনোনয়ন না পাওয়ায় তিনি সংসদ নির্বাচন থেকে সরে যান। অবশেষে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তিনি আ.লীগ মনোনীত প্রার্থী হয়ে নৌকা প্রতীক নিয়ে নির্বাচীত হন।

Sharing is caring!

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

January 2024
S S M T W T F
 12345
6789101112
13141516171819
20212223242526
2728293031  

সর্বশেষ খবর

………………………..