সিলেট জেলা পরিষদ নির্বাচনে নাসিরের ‘পথের কাঁটা’ এনামুল সর্দার.!

প্রকাশিত: ৯:২৫ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৪, ২০২২

সিলেট জেলা পরিষদ নির্বাচনে নাসিরের ‘পথের কাঁটা’ এনামুল সর্দার.!

ক্রাইম সিলেট ডেস্ক: সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট নাসির উদ্দিন খান অনুষ্ঠিতব্য জেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান নিজ দলের সমর্থন পেয়েছেন। এ পদে অংশ নিতে প্রস্তুত ছিলেন দলের একাধিক নেতা। তবে নাসির উদ্দিন খান দলীয় সমর্থন পাওয়ায় দলীয় নেতারা নিজেদের অবস্থান থেকে সরে এসেছেন। দলের প্রার্থীর পক্ষে কাজ করার ঘোষণা দিয়েছেন।

তবে গতবারের ন্যায় এবারও চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হয়ে নাসির উদ্দিনের ‘পথের কাঁটা’ হচ্ছেন অধ্যক্ষ এনামুল হক সর্দার। শিক্ষানুরাগী সর্দার প্রার্থী না হলে বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হতেন সাবেক ছাত্রনেতা নাসির।

আগামী ১৭ অক্টোবর সিলেট জেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এ নির্বাচনে ক্ষমতাসীন দল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ছাড়া অন্য কোনো রাজনৈতিক সংগঠন প্রার্থী দিচ্ছে না। ক্ষমতাসীন দলের প্রার্থী হিসেবে দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মো. নাসির উদ্দিন খান। এ পদে দলীয় মনোনয়নপ্রত্যাশী হয়ে মনোনয়ন কেনেন ৫ নেতা। মনোনয়নপ্রাপ্ত সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট নাসির উদ্দিন খান ছাড়াও মনোনয়ন ক্রয় করেন- বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ও সিলেট জজকোর্টের পিপি মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ, জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা সাদ উদ্দিন আহমদ, সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি বিজিত চৌধুরী ও বর্তমান প্রশাসক কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি জয়নাল আবেদীন। তবে মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ ছাড়া অন্য ৪ নেতা দলীয় মনোনয়ন জমা দেন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত নাসির উদ্দিন খানকে বেঁচে নেন আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

তবে বর্তমান জেলা পরিষদ প্রশাসক ও কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি জয়নাল আবেদীন নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন এমন খবর বাতাসে উড়ছিল। কিন্তু তিনি নিজের অবস্থান সুস্পষ্ট করেন। তিনি এবারের নির্বাচনে অংশ নেবেন না জানিয়ে বলেন- ‘আমি শেখ হাসিনার কর্মী। নেত্রীর সিদ্ধান্তের বাহিরে যাওয়ার অবকাশ নাই। আমি দলীয় সমর্থিত প্রার্থীর পক্ষে কাজ করবো। তাকে বিজয়ী করতে সর্ব্বোচ চেষ্টা করবো।’ এমন সিদ্ধান্তের পর নাসির উদ্দিন খানের পথ আরও সুপ্রসন্ন হয়।

সোমবার (১২ সেপ্টেম্বর) বিকেল পর্যন্ত জেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে নাসির উদ্দিন খান ছাড়া আর কোনো প্রার্থী মনোনয়ন কিনেননি বলে সিলেট জেলার সিনিয়র নির্বাচন কর্মকর্তা মোহাম্মদ শুকুর মাহমুদ মিঞা জানান। তবে মঙ্গলবার (১৩ সেপ্টেম্বর) দুপুরে শিক্ষানুরাগী ড. এনামুল হক সরদারের পক্ষে মনোনয়নপত্র ক্রয় করা হয়।

যদিও সোমবার (১২ সেপ্টেম্বর) নিজের অবস্থান জানিয়েছেন ড. এনামুল হক সরদার। তিনি বলেছিলেন- ‘নির্বাচন করার একান্ত ইচ্ছা ছিলো না আমরা। কিন্তু গতবার নির্বাচন করায় অনেক জনপ্রতিনিধি আমার সঙ্গে যোগাযোগ করে যাচ্ছেন। তাঁদের অনুরোধে আমি প্রাথমিকভাবে নির্বাচন করার সিদ্ধান্ত নিলেও এখনো চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেইনি। আগামীকাল (মঙ্গলবার) চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানাতে পারবো।’

তবে গতকাল মঙ্গলবার ও আজ বুধবার পর্যন্ত তার আনুষ্ঠানিক কোনো ঘোষণা পাওয়া যায়নি। বুধবার (১৪ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় তার সিদ্ধান্ত জানতে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে তাঁর মুঠোফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

অনেকেই মনে করছেন- এনামুল সর্দার প্রয়াত জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট লুৎফুর রহমানের মতো এবার নাসির উদ্দিন খানেরও ‘পথের কাঁটা’ হয়ে দাঁড়িয়েছেন। তিনি শেষ পর্যন্ত নির্বাচনের মাঠে থাকলে চেয়ারম্যান পদে ভোট অনুষ্ঠিত হবে। আর না থাকলে নাসির উদ্দিন খান বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় সিলেট জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হবেন।

সিলেট জেলার সিনিয়র নির্বাচন কর্মকর্তা মোহাম্মদ শুকুর মাহমুদ মিঞা বলেন- সিলেট জেলার ১৩ উপজেলার ১ হাজার ৪৬৫ জন ভোটার রয়েছেন। এরমধ্যে ১ হাজার ১২২ জন পুরুষ ও ৩৪৩ জন মহিলা ভোটার রয়েছেন।

তফসিল অনুযায়ী- আগামী ১৫ সেপ্টেম্বর মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ সময়। মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই ১৮ সেপ্টেম্বর। আপিল ১৯ থেকে ২১ সেপ্টেম্বর, আপিল নিষ্পত্তি ২২ থেকে ২৪ সেপ্টেম্বর। প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ সময় ২৫ সেপ্টেম্বর ও প্রতীক বরাদ্দ হবে ২৬ সেপ্টেম্বর।

সুত্র- সিলেটভিউ

ক্রাইম সিলেট /রায়হান

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

September 2022
S S M T W T F
 12
3456789
10111213141516
17181920212223
24252627282930

সর্বশেষ খবর

………………………..