বন্যায় ওসমানী হাসপাতালসহ স্বাস্থ্যখাতে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি

প্রকাশিত: 9:55 PM, June 25, 2022

বন্যায় ওসমানী হাসপাতালসহ স্বাস্থ্যখাতে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি

Sharing is caring!

ক্রাইম সিলেট ডেস্ক : সিলেটে চলমান সর্বগ্রাসী বন্যা ক্ষতি করেছে স্বাস্থ্যখাতেও। সিলেট বিভাগের সাধারণ মানুষের সর্ববৃহৎ স্বাস্থ্যসেবা দানকারী প্রতিষ্ঠান সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে বন্যার পানি ঢুকে নষ্ট করে দিয়েছে গুরুত্বপূর্ণ পরীক্ষার বিভিন্ন যন্ত্রপাতি।

গত ১৮ জুন সিলেটে দেড়ঘন্টার অতি ভারী বর্ষণে সিলেট সিটি কর্পোরেশনের ৮০ ভাগ এলাকা পানিতে ডুবে যায়। এসময় সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল এবং সিলেট শহীদ শামসুদ্দীন আহমেদ হাসপাতালের নিচতলা প্রায় তিনফুট পানিতে তলিয়ে যায়। ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জেনারেটর জলমগ্ন হওয়ায় হাসপাতালের বিকল্প বিদ্যুৎ সরবরাহের ব্যবস্থা ভেঙে পড়ে। নিচতলায় পানি উঠে যাওয়ায় রোগীরা পড়েন চরম দুর্ভোগে।

দুদিনে পানি নামার পর দেখা যায়- হাসপাতালটির এম.আর আই, সিটিস্ক্যান ও রেডিও থেরাপি মেশিনে পানি ঢুকে গেছে। ফলে এখন বন্ধ রয়েছে এসব সেবা কার্যক্রম।

এবারের বন্যায় শুধু ওসমানী হাসপাতালেই নয়, ক্ষতিগ্রস্ত করেছে বিভাগের অনেক সরকারি হাসপাতাল, স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও কমিউনিটি ক্লিনিক। ফলে বিভাগজুড়ে স্বাস্থ্যসেবা বিঘ্নিত হচ্ছে।

বন্যায় আক্রান্ত স্বাস্থ্য প্রতিষ্ঠানের তথ্যাদি সংক্রান্ত প্রতিবেদনে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর উল্লেখ করে- সিলেট বিভাগের মোট ৪০টি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মধ্যে ২৪টি বন্যাকবলিত হয়েছে। ৮৫ টি ইউনিয়ন সাব-সেন্টারের মধ্যে ৩১টিতে পানি ঢুকেছে। সুনামগঞ্জে ২০ শয্যার দুটি হাসপাতালে পানি প্রবেশ করে। এছাড়াও ৯শ ২৭ টি কমিউনিটি ক্লিনিকের মধ্যে ৪১৪টি ক্লিনিক পানিতে নিমিজ্জিত হয়।

সিলেট জেলার ৩টি উপজেলা (জৈন্তাপুর, বিয়ানীবাজার, গোলাপগঞ্জ) বাদ দিয়ে বাকি ১০টি উপজেলার সকল স্বাস্থ্য প্রতিষ্ঠান সম্পূর্ণভাবে জলমগ্ন ছিল। কোম্পানীগঞ্জ এবং গোয়াইনঘাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রায় ১০ ফুট পরিমাণ পানি ছিল। স্রোতের কারণে অনেক আসবাবপত্র ভেসে গেছে এসব প্রতিষ্ঠানের।

সিলেট স্বাস্থ্য বিভাগের প্রাথমিক প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়, সকল উপদ্রুত স্বাস্থ্য প্রতিষ্ঠানে অবকাঠামোগত ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। অনেক স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে বৈদ্যুতিক সরঞ্জামাদি, ইপিআই আইএলআর ফ্রিজ, প্যাথলজিক্যাল পরীক্ষা নিরীক্ষার যন্ত্রপাতি, এক্সরে মেশিন, এমএসআর সামগ্রী নষ্ট হয়ে গেছে। জলমগ্ন এসব যন্ত্রপাতি কতটা সচল কিংবা অচল তা পানি নেমে না যাওয়ায় যাচাই করা যাচ্ছে না। সার্বিক ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ জানাতে আরো সময় লাগবে।

সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল সূত্র জানায়, হাসপাতালটির নিচতলা পুরোপুরি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। হাসপাতালের নিচতলায় থাকা এম.আর.আই, সিটি স্ক্যান ও রেডিওথেরাপি মেশিন জলমগ্ন ছিল। রেডিওথেরাপি মেশিনটি চালুর চেষ্টা চলছে। তবে এমআরআই, সিটি স্ক্যান মেশিনের ক্ষতি হয়েছে বেশি। এগুলো ঠিক হবে কি না এখনই বলা যাচ্ছে না। ফলে সাধারণ রোগীরা সিটিস্ক্যান, এমআরআই, রেডিও থেরাপি সেবা প্রাপ্তি থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন। বাইরে থেকে এসব পরীক্ষা করিয়ে নিয়ে আসতে হচ্ছে। এছাড়াও হাসপাতালের এম্বুল্যান্স , পরিচালকের গাড়িসহ গুরুত্বপূর্ণ অবকাঠামো নষ্ট হয়েছে। পুরোপুরি ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ এখনও নিরূপণ করা সম্ভব হয়নি।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

June 2022
S S M T W T F
 123
45678910
11121314151617
18192021222324
252627282930  

সর্বশেষ খবর

………………………..