ছাতকে ইউপি চেয়ারম্যান মছব্বিরের বিরুদ্ধে মসজিদের জমি আত্মসাতের অভিযোগ

প্রকাশিত: 2:47 PM, April 17, 2022

ছাতকে ইউপি চেয়ারম্যান মছব্বিরের বিরুদ্ধে মসজিদের জমি আত্মসাতের অভিযোগ

Sharing is caring!

ছাতক প্রতিনিধি :: সুনামগঞ্জের ছাতকে মসজিদের নামে ওয়াকফকৃত জমি ভুয়া মোতোয়ালি সেজে জাল-জালিয়াতির মাধ্যমে আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুল মছব্বিরের বিরুদ্ধে।

এ ঘটনায় উপজেলাজুড়েই ব্যাপক তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে।

জানা যায়, উপজেলার দক্ষিণ খুরমা ইউনিয়নের মায়েরকুল গ্রামে জামে মসজিদের নামে কীর্তিশাসন মৌজাস্থিত ২.৪০ শতাংশ জমি গত ২৫ জুন ১৯৯০ সালে দলিল মুলে ওয়াকফ করেন ইউনুছ আলী, জয়ধন বিবি, কাঞ্চন মালা বিবি ও মায়ার মা বিবি। দলিল গ্রহীতা মসজিদ কমিটির পক্ষে সে সময়ের মোতোয়ালি ইছকন্দর আলী।

গত ২৪ জুন ২০১২ সালে আব্দুল মছব্বির মসজিদ কমিটির পক্ষে ভুয়া মোতোয়ালি সেজে তার স্ত্রী মোছা. বানেছা বেগম ও বোন মোছা. সুরেছা বেগমের নামে ২.৪০ শতাংশ জায়গা হস্তান্তর করেন।

গ্রামবাসী অভিযোগ করে বলেন, সেই সময়ে তিনি ইউপি চেয়ারম্যান থাকার সুবাদে ইচ্ছামতো উত্তরাধিকারী ভুয়া সনদ ও মসজিদ কমিটির ভুয়া কাগজপত্র তৈরি করাসহ সরকার দলীয় প্রভাব বিস্তার করে মসজিদের জায়গা কৌশলে আত্মসাৎ ও জবর দখল করে নেন।

এর আগে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) অফিসের কতিপয় অসাধু কর্মকর্তাকে ম্যানেজ করে মসজিদ কমিটির পক্ষে আব্দুল মছব্বিরের নামে জমি রেকর্ড করা হয়।

সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল মছব্বির কখনো মায়েরকোল গ্রামে জামে মসজিদের মোতোয়ালি ছিলেন না এ মর্মে গ্রামের প্রায় অর্ধ শতাধিক মুরব্বি ঘোষণাপূর্বক একটি কাগজে স্বাক্ষর করে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানের কাছে জমা দিয়েছেন।

এ ব্যাপারে মায়েরকুল গ্রামের মাজন আলী ও মকবুল আলী জানান, আব্দুল মছব্বির কখনো মায়েরকোল গ্রামে জামে মসজিদের মোতোয়ালি ছিলেন না। তিনি ভুয়া মোতোয়ালি সেজে মসজিদের জায়গা সম্পদ আত্মসাৎ করে নেন। তার জমিও তিনি হাতিয়ে নেয়ার অপচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।

তিনি অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) ভূমি, সুনামগঞ্জ নামজারি রিভিশন মোকদ্দমা দায়ের করলে ও মামলাটি শুনানি শেষে নামজারি বাতিলের আদেশ দেন।

এ ব্যাপারে সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল মছব্বির তার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, আমার বোন প্রবাস থেকে টাকা দিয়েছে। সেই টাকা দিয়ে ওই জায়গা আমি ক্রয় করেছি।

এ ব্যাপারে দক্ষিণ খুরমা ইউপি চেয়ারম্যান আবু বকর ছিদ্দিক ও ইউপি সদস্য দবির উদ্দিন জানান, মায়ের কোল গ্রামের মুরব্বিয়ানদের স্বাক্ষরিত প্রতিবেদনের ভিত্তিতে জানা যাচ্ছে যে, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল মছব্বির কখনো মায়ের কোল গ্রামে জামে মসজিদের মোতোয়ালি ছিলেন না।

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

April 2022
S S M T W T F
 1
2345678
9101112131415
16171819202122
23242526272829
30  

সর্বশেষ খবর

………………………..