সালুটিকর-গোয়াইনঘাট সড়কে ২৪ কিলোমিটার রাস্তায় ৫ ট্রাক ইট দিয়ে সংস্কার

প্রকাশিত: 5:33 PM, June 18, 2021

সালুটিকর-গোয়াইনঘাট সড়কে ২৪ কিলোমিটার রাস্তায় ৫ ট্রাক ইট দিয়ে সংস্কার

গোয়াইনঘাট প্রতিনিধি :: গোয়াইনঘাট উপজেলার ৩ লাখ মানুষের সড়ক পথে চলাচলের একমাত্র রাস্তা হচ্ছে সালুটিকর-গোয়াইনঘাট সড়ক।

অপর দিকে সিলেটের গোয়াইনঘাট প্রকৃতির অপূর্ব সৌন্দর্যভূমি হওয়ায় সম্প্রতি উপজেলাটি দেশের গুরুত্বপূর্ণ পর্যটন উপজেলা হিসেবে নিজের পরিচিতি তুলে ধরেছে। টিলা, নদী, ঝর্ণা, হাওর, চা বাগান ও দেশের বৃহৎ রাতারগুল জলার নিয়ে গোয়াইনঘাট গড়ে উঠেছে অসংখ্য পর্যটনকেন্দ্র। অথচ সম্ভাবনাময় এসব পর্যটনকেন্দ্র উপেক্ষিতই থেকে যাচ্ছে অবকাঠামোগত দুর্বলতা, যোগাযোগ ক্ষেত্রে অব্যবস্থাপনা এবং সড়ক সংস্কার না করায় । এখানকার পর্যটন খাত পর্যটনকেন্দ্রগুলোতে দর্শনার্থীদের পৌঁছাতে বেশ দুর্ভোগ পোহাতে হয়। এ জন্য দর্শনার্থী আসার হারও কমছে। এসব কারণে এ শিল্পটি মাথা তুলে দাঁড়াতে পারছে না।

পর্যটকদের কাছে গোয়াইনঘাটের আকর্ষণীয় স্থানের মধ্যে রয়েছে জাফলং, বিছনাকান্দি, রাতারগুল জলারবন, মায়াবী ঝর্ণা ও পান্তুমাই। এসব পর্যটন কেন্দ্রের মধ্যে বিছনাকান্দি ও পান্তুমাই ঝর্ণার যাতায়াতের একমাত্র সড়ক সালুটিকর -গোয়াইনঘাট সড়কের অবস্থা একেবারে নাজুক। দীর্ঘদিন ধরে ভাঙাচোরা অবস্থায় পড়ে আছে সড়কটি। বিগত বছরের প্রচুর বৃষ্টিপাত ও বন্যায়ও সড়কের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে।

জানা যায়, সিলেট- ভোলাগঞ্জ মহাসড়কে সালুটিকর বাজার পার হলেই ভোগান্তির শুরু। সালুটিকর বাজার থেকে গোয়াইনঘাট পর্যন্ত ২৪কিলোমিটার সড়ক খানাখন্দে ভরা। মাঝে মধ্যেই দুই-তিন ফুট গর্ত। বিভিন্ন স্থানে কার্পেটিং উঠে গেছে। সালুটিকর বাজার পার হলেই সড়কের ভয়াবহতা কয়েকগুণ বেড়ে যায়। গোয়াইনঘাট উপজেলায় ইলেকট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ায় কর্মরত গণমাধ্যম কর্মীরা উক্ত রাস্তা দ্রুত সংস্কারের জন্য বহুবার প্রতিবেদন করেছেন। পাশাপাশি উক্ত রাস্তা সংস্কারের বিষয়ে জেলা আইনশৃঙ্খলা কমিটির সভা এবং গোয়াইনঘাট উপজেলা আইনশৃঙ্খলা কমিটির সভা ও উপজেলা পরিষদের সভায় একাধিকবার আলোচনা হয়েছে। এরই প্রেক্ষিতে গোয়াইনঘাট উপজেলা প্রকৌশল অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে ৫/৬ ট্রাক ভাঙা ইট দিয়ে সড়কের কয়েকটি গর্ত ভরাট করে তাদের কাজ সম্পন্ন করেন। উক্ত রাস্তা সংস্কারের জন্য কত টাকা বাজেট ছিল বিষয়টি জানাতে অনিহা প্রকাশ করেছেন এলজিইডি কর্তৃপক্ষ। উপজেলা সমন্বয় সভায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষের কাছে সংস্কারের বাজেট বিষয়ে জানতে চাইলে উপজেলা প্রকৌশলী রফিকুল ইসলাম বিষয়টি এড়িয়ে যান।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন গোয়াইনঘাট উপজেলা সমন্বয় সভায় অংশগ্রহণকারী এক জনপ্রতিনিধি।

সালুটিকর-গোয়াইনঘাট সড়কের সংস্কার বিষয়ে জানতে চাইলে গোয়াইনঘাট উপজেলা প্রকৌশলী রফিকুল ইসলাম বলেন, সংস্কারকাজ করছেন সিলেটে জেলা এলজিইডি অফিস। বাজেটের বিষয়ে তিনি কিছু জানেননা।

এ ব্যাপারে এলজিইডি সিলেট জেলা প্রকৌশলী ইনামুল কবিরের সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

গোয়াইনঘাট উপজেলা নির্বাহী অফিসার তাহমিলুর রহমান বলেন, সালুটিকর-গোয়াইনঘাট সড়কের সংস্কার কাজ প্রয়োজন। তাই উক্ত রাস্তাটি দ্রুত সংস্কারের জন্য সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষকে অবগত করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, গোয়াইনঘাট উপজেলায় পর্যটনের অপার সম্ভাবনা রয়েছে। এক্ষেত্রে উদ্যোক্তা ও পর্যটকদের জন্য সব ধরনের সহযোগিতা দেওয়া হবে।

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

সর্বশেষ খবর

………………………..