স্বাস্থ্য বিধি উপেক্ষিত, সিলেটে করোনার মধ্যেও নাটকের শ্যুটিং

প্রকাশিত: 7:23 PM, June 12, 2021

স্বাস্থ্য বিধি উপেক্ষিত, সিলেটে করোনার মধ্যেও নাটকের শ্যুটিং

নিজস্ব প্রতিবেদক :: করোনার মধ্যেও সিলেটের ওসমানীনগর, দক্ষিণ সুরমা ও শাহপরান খাদিমপাড়া এলাকায় চলছে অননুমোদিতভাবে নাটকের শ্যুটিং। ওসমানীনগরের করুয়া, দক্ষিণ সুরমা মোগলাবাজারের সিলাম ও শাহপরান থানা এলাকার খাদিমপাড়ায় নিয়মিত চলছে অননুমোদিত ইউটিউব ও ফেসবুকভিত্তিক চ্যানেলের শ্যুটিং।

এসব শ্যুটিংয়ে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন এলাকার কথিত অভিনেতা অভিনেত্রীরা জড়ো হলে স্বাস্থ্য বিধি উপেক্ষিত হচ্ছে পুরোপুরি। বহিরাগত এ সকল শিল্পীরা শ্যুটিং শেষে সিলেট নগরীরসহ আশপাশের উপজেলায় ঘুরে বেড়ানোর কারণে করোনা ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা বাড়ছে। তবে ঢাকঢোল পিটিয়ে শ্যুটিং হলেও পুলিশসহ স্থানীয় প্রশাসন এ ব্যাপারে কিছুই জানে না।

জানা গেছে, ইউটিউব ও ফেসবুক ভিত্তিক এসকল নাটকে ধর্ম অবমাননা, দাঁড়ি, টুপি নিয়ে ভাঁড়ামির অভিযোগ দীর্ঘদিনের। এক শ্রেণির বখাটে নানা ধরনের অসামাজিক কার্যকলাপকে ঢেকে রাখতে নাটকের শ্যুটিংয়ের আয়োজন করে থাকে। এ সকল কথিত শ্যুটিংয়ে অবাধে মাদক গ্রহণের অভিযোগ দীর্ঘদিনের। এছাড়া শ্যুটিংয়ের নামে অসামাজিক কার্যকলাপের অভিযোগে সিলেট নগরীর আলুরতল এলাকার থেকে ২০০৪ সালে ৮ নারী পুরুষকে আটক করে তৎকালীন কোতোয়ালি থানা পুলিশ।

সিলেটের আঞ্চলিক নাটকের বিতর্কিত অভিনেতা রাসেল হামিদ ওরফে কাট্টুস আলী, আল্লাহকে নিয়ে বিতর্কিত বক্তব্য উপস্থাপনকারী সাহেদ মোশাররফ ওরফে কটাই মিয়া, খাদিমপাড়ার আকরাম দেশের বিভিন্ন এলাকার কথিত অভিনেতা অভিনেত্রী ও মডেল সিলেটে নিয়ে এসে করোনাকালে ওসমানীনগরের কুরুয়া মহানগর পাম্পের পেছনের বাড়িতে, দক্ষিণ সুরমার সিলামে এবং শাহপরান থানা এলাকার খাদিমপাড়ায় নিয়মিত শ্যুটিং করে যাচ্ছেন।

সরকারের নীতিমালা কিংবা অনুমোদন না নিয়েই চলছে এ সকল কথিত ভাঁড়ামির নাটক। বিকৃত শরীরি আচরণ, কটাক্ষ, ইভটিজিংকে প্রাধান্য দিয়ে তৈরি এই নাটক নৈতিক অবক্ষয়ের দিকে ঠেলে দিচ্ছে যুব সমাজকে। অবক্ষয়ের সর্বশেষ উদাহরণ সিলেটের বন্দরবাজার পুলিশ ফাঁড়িতে রায়হান হত্যাকান্ড। নির্যাতনকারী এসআই আকবর হোসেন ভূইয়া এ ধরনের নাটকের নিয়মিত অভিনেতা ছিলেন।

করোনার সংক্রমণ ঠেকাতে সরকার স্বাস্থ্য বিধির উপর জোর দিলেও সিলেটের কথিত এ সকল মিডিয়া হাউজ মানছে না কোনো নির্দেশনা। আর পুলিশসহ স্থানীয় প্রশাসনও অননুমোদিত এই শ্যুটিং সম্পর্কে কোনো খবর রাখছে না।

সিলেটের ওসমানীনগর থানার ওসি শ্যামল বনিক বলেন, এ ধরনের খবর জানেন না। তবে অননুমোদিত শ্যুটিং চললে তা বন্ধ করে দেওয়া হবে।

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

সর্বশেষ খবর

………………………..