সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন, আজ ভোট : কে হচ্ছেন ছাতক পৌরসভার কর্ণধার?

প্রকাশিত: ১১:৫৫ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১৫, ২০২১

সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন, আজ ভোট : কে হচ্ছেন ছাতক পৌরসভার কর্ণধার?

Sharing is caring!

হেলাল আহমদ, ছাতক :: ছাতক পৌরসভার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে আজ শনিবার। আজ শনিবার ছাতক পৌরসভা নির্বাচন। ইতিমধ্যেই ভোট গ্রহনের সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে নির্বাচন অফিস। নির্বাচকে ঘিরে রাখা হয়েছে ৫ স্তর বিশিষ্ট নিরাপত্তা বেষ্টনী। কেন্দ্র অনুযায়ী প্রিজাইডিং ও পুলিং নিয়োগ দেয়া হয়েছে। ভোট গ্রহনের সকল সরঞ্জাম দুপুর থেকে প্রিজাইডিং কর্মকর্তাদের বুঝিয়ে দেয়া হয়েছে। প্রতিটি কেন্দ্রেই একজন করে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেটের নেতৃত্বে থাকবে ভ্রাম্যমান মোবাইল কোর্ট। তদারকি করার জন্য থাকবেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপারের নেতৃত্ব একদল পুলিশ। সাদা পোশাকে মোতায়েন থাকবেন ডিএসবি’র কর্মকর্তারা। একজন সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট নির্বাচনে সার্বিক মনিটরিং করবেন। সুষ্ট নির্বাচনের ক্ষেত্রে সার্বিক দায়িত্ব পালন করনে সুনামগঞ্জের জেলা প্রশাসক জাহাঙ্গির আলম ও পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান বিপিএম। ভোটারদের মতে পৌরসভার ১৯টি কেন্দ্রের মধ্যে প্রায় সবগুলোকেন্দ্রই ঝুঁকিপূর্ণ। তবে অতি ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে ৬টি কেন্দ্রকে চিহ্নিত করেছেন সাধারন ভোটাররা। এর মধ্যে জামেয়া ইসলামিয়া নোয়ারাই, কুমনা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, বাগবাড়ী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, মন্ডলীভোগ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় এবং চন্দ্রনাথ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়(২টি কেন্দ্র)কে অতি ঝুঁকিপূর্ণ বলে মনে করছেন তারা। সন্তোষজনক নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহনের কথা উল্লেখ করে উপজেলা নির্বাচন অফিসার ফয়জুর রহমান জানান, সুষ্ট ও অবাধ নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য সব ধরনের ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। শুধুমাত্র ব্যালট পেপার সকালে সকল কেন্দ্রে পৌছে দেয়া হবে। ভোটগ্রহন শুরু হবে সকাল ৮টা থেকে। ছাতক থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ নাজিম উদ্দিন জানান, নির্বাচনে সর্বক্ষণ কঠোর নজরধারী করবে পুলিশ বাহিনী। সবগুলো কেন্দ্রই ঝুঁকিপূর্ণ বলে চিহ্নিত করা হয়েছে। তবে কোন কেন্দ্রই অতি ঝুঁকিপূর্ণ নয় বলে তিনি জানান।
শিল্পশহর ছাতক পৌরসভায় এবার মেয়র পদে দুই প্রধান দলের দু’জন প্রার্থী লড়ে যাচ্ছেন। এখানে কোনো বিদ্রোহী প্রার্থীও নেই। যেহেতু এখানে প্রধান দুই দলের দু’জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন তাই প্রচার-প্রচারণা চলেছে সমতালে। সাধারণ ভোটারদের উক্তি ছাতক পৌরসভায় এবারে হবে বাঘ-সিংহের লড়াই। আওয়ামীলীগের মনোনয়নে আবুল কালাম চৌধুরী ও বিএনপির মনোনয়নে এ পৌরসভায় মেয়র পদে প্রার্থী হয়েছেন সিলেট বিভাগের একমাত্র নারী প্রার্থী রাশিদা আহমদ ন্যান্সি। বৃহস্পতিবার শেষ দিনের প্রচার-প্রচারনায় ব্যস্ত সময় কাটিয়েছেন দু’মেয়র প্রার্থীসহ কাউন্সিলর ও মহিলা কাউন্সিলর প্রার্থীরা। প্রার্থীরা তাদের কর্মী-সমর্থক ও দলীয় নেতৃবৃন্দকে সাথে নিয়ে শেষ সময় পর্যন্ত ছুটেছেন পৌরসভার পাড়া-মহল্লায়। ভোটের পাল্লা ভারী করতে ভোটারদের বিভিন্ন প্রতিশ্রুতি দিয়ে তারা ভোট প্রার্থনা করেছেন।
বৃহস্পতিবার শেষ দিনে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী আবুল কালাম চৌধুরী কর্মী-সমর্থকদের সাথে নিয়ে প্রচারনা করেছেন। সকাল থেকে তিনি পৌরসভার বিভিন্ন এলাকায় গণসংযোগ করে ভোটারদের কাছে নৌকা প্রতীকে ভোট দেয়ার আহবান জানান। মন্ডলীভোগ, সোরাবনগর, হাসপাতাল রোড, বাজনামহল, শ্যামপাড়া, নোয়ারাই, সিমেন্ট কারখানা, ফকিরটিলাসহ পৌরসভার বিভিন্ন ওয়ার্ডের পাড়া-মহল্লায় নৌকা প্রতীকে ভোট প্রার্থনা করেন তিনি। বিকেলে আওয়ামীলীগের আয়োজিত প্রচার মিছিল ও নির্বাচনী শেষ সভায় বক্তব্য রাখেন, মেয়র প্রার্থী আবুল কালাম চৌধুরী। তাহির প্লাজা চত্ত্বরে অনুষ্ঠিত এ সভায় বক্তব্য রাখেন, আওয়ামীলীগের কেন্দ্রিয় সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক এড. মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ। মেয়র প্রার্থী আবুল কালাম চৌধুরী জানান, বিগত ১৫ বছর ধরে ছাতক পৌরসভায় তিনি ব্যাপক উন্নয়ন সাধন করেছেন। কাজেই পৌরবাসী তাকে ভোট দিয়ে আবারো নির্বাচিত করবে। এদিকে প্রচারণার শেষ দিনে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী রাশিদা আহমদ ন্যান্সি পৌরসভার রেল কলোনী, দক্ষিণ বাগবাড়ী, কুমনা, নোয়ারাই, ফকিরটিলা, সিমেন্ট কারখানা, মন্ডলীভোগ, গণক্ষাই, তাতিকোনাসহ বিভিন্ন এলাকায় গণসংযোগ করেছেন। সন্ধ্যায় পথসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে ফকিরটিলা পয়েন্টে এবং ৯ ওয়ার্ডে পৃথক প্রচার মিছিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্রার্থীকে সাথে নিয়ে প্রচারনায় নিয়মিত অংশ নিয়েছেন এবং বিভিন্ন পথসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রেখেছেন, বিএনপি জাতীয় নির্বাহী কমিটির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক, সুনামগঞ্জ জেলা বিএনপির সভাপতি, সাবেক এমপি কলিম উদ্দিন আহমদ মিলন। মেয়র প্রার্থী রাশিদা আহমদ ন্যান্সির শেষ নির্বাচনী সভা ও প্রচার মিছিল বুধবার শহরের কাস্টম রোড এলাকায় অনুষ্ঠিত হয়েছে। ছাতক পৌর বিএনপির আহবায়ক সৈয়দ তিতুমীরের সভাপতিত্বে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। রাশিদা আহমদ ন্যান্সি জানান, জনগণ কেন্দ্রে গিয়ে ভোট দিতে পারলেই ধানের শীষের বিজয় সুনিশ্চিত। বিএনপি ও আওয়ামীলীগের দু’মেয়র প্রার্থীরা বলেছেন, প্রশাসনের পক্ষ থেকে ইতিমধ্যে তারা সহযোগিতা পেয়েছেন এবং অবাধ, সুষ্ঠু নির্বাচন হবে বলে প্রশাসনের কর্তাব্যক্তিরা তাদের আশ্বস্ত করেছেন।
ছাতক পৌরসভার ৯ ওয়ার্ডে সাধারণ কাউন্সিলর পদে ৩৪ জন ও সংরক্ষিত আসনে আরো ১৩ জন নারী প্রার্থী রয়েছেন। শেষ প্রচারণায় পিছিয়ে নেই কাউন্সিলর প্রার্থীরাও। বৃহস্পতিবার বিশাল প্রচার মিছিল করেছেন ৭নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী তাপস চৌধুরী, ৬নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী জসিম উদ্দিন সুমেন, ১নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী আখলাকুল আম্বিয়া সোহাগ, হাজী নাজিমুল হক, ৯নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী দিলোয়ার হোসেন, ৪নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ। বুধবার প্রচার মিছিল করেছেন ৭নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী লায়েক মিয়া ও ৬ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী মাহবুব মিয়া।

পৌরসভার ৫ম নির্বাচনে আজ কে হাসছেন বিজয়ের হাসি? জয়ের মুকুট কে পরছেন। এই অপেক্ষায় উš§ুখ হয়ে আছেন ভোটাররা। এখানে ১৯টি কেন্দ্রে ৩০হাজার ২৮০জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন। মোট ভোটারদের মধ্যে পুরুষ ভোটার ১৫হাজার ২৭১জন এবং নারী ভোটার রয়েছেন ১৫হাজার ৯জন।

এদিকে, পৌরসভা নির্বাচনকে ঘিরে ইতিমধ্যেই ভোট গ্রহনের সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে নির্বাচন অফিস। নির্বাচকে ঘিরে রাখা হয়েছে ৫স্তর বিশিষ্ট নিরাপত্তা বেষ্টনী। কেন্দ্র অনুযায়ী প্রিজাইডিং ও পুলিং নিয়োগ দেয়া হয়েছে। ভোট গ্রহনের সকল সরঞ্জাম দুপুর থেকে প্রিজাইডিং কর্মকর্তাদের বুঝিয়ে দেয়া হয়েছে। প্রতিটি কেন্দ্রেই একজন করে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেটের নেতৃত্বে থাকবে ভ্রাম্যমান মোবাইল কোর্ট। তদারকি করার জন্য থাকবেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপারের নেতৃত্ব একদল পুলিশ। সাদা পোশাকে মোতায়েন থাকবেন ডিএসবি’র কর্মকর্তারা। একজন সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট নির্বাচনে সার্বিক মনিটরিং করবেন। সুষ্ট নির্বাচনের ক্ষেত্রে সার্বিক দায়িত্ব পালন করনে সুনামগঞ্জের জেলা প্রশাসক জাহাঙ্গির আলম ও পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান বিপিএম। ভোটারদের মতে পৌরসভার ১৯টি কেন্দ্রের মধ্যে প্রায় সবগুলোকেন্দ্রই ঝুঁকিপূর্ণ। তবে অতি ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে ৬টি কেন্দ্রকে চিহ্নিত করেছেন সাধারন ভোটাররা। এর মধ্যে জামেয়া ইসলামিয়া নোয়ারাই, কুমনা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, বাগবাড়ী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, মন্ডলীভোগ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় এবং চন্দ্রনাথ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় (২টি কেন্দ্র) কে অতি ঝুঁকিপূর্ণ বলে মনে করছেন তারা। সন্তোষজনক নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহনের কথা উল্লেখ করে উপজেলা নির্বাচন অফিসার ফয়জুর রহমান জানান, সুষ্ট ও অবাধ নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য সব ধরনের ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। শুধুমাত্র ব্যালট পেপার সকালে সকল কেন্দ্রে পৌছে দেয়া হবে। ভোটগ্রহন শুরু হবে সকাল ৮টা থেকে। ছাতক থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ নাজিম উদ্দিন জানান, নির্বাচনে সর্বক্ষণ কঠোর নজরধারী করবে পুলিশ বাহিনী। সবগুলো কেন্দ্রই ঝুঁকিপূর্ণ বলে চিহ্নিত করা হয়েছে। তবে কোন কেন্দ্রই অতি ঝুঁকিপূর্ণ নয় বলে তিনি জানান।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

January 2021
S S M T W T F
 1
2345678
9101112131415
16171819202122
23242526272829
3031  

সর্বশেষ খবর

………………………..

shares