সিলেটে দুই ইউপি মেম্বারের কবলে প্রবাসীর স্ত্রী তাহমীনা

প্রকাশিত: ৮:৫৯ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১২, ২০২১

সিলেটে দুই ইউপি মেম্বারের কবলে প্রবাসীর স্ত্রী তাহমীনা

Sharing is caring!

ক্রাইম সিলেট ডেস্ক : ‘পরকীয়ার’ টানে ঘর ছাড়া প্রবাসীর স্ত্রী তাহমীনাকে চার দিনেও উদ্ধার কিংবা গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। পরকীয়া প্রেমিক কর্তৃক পরিত্যাক্তা হয়ে দু’দিন ধরে সে ভবঘুরে দিনযাপন করছে। সোমবার রাত থেকে সে দু’জন ইউপি মেম্বারের কবলে আছে এবং তারা পুলিশে না দিয়ে তাদের হেফাজতে রেখে তাদের হীন স্বার্থ চরিতার্থের পাশপাশি তাহমীনার প্রবাসী স্বামী পরিবারকে পাল্টা হযরানীর চেষ্ঠা করছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

জানা গেছে, এসএমপি’ সিলেট জালালাবাদ থানার কেমিদপুর (ভুলতা) গ্রামের প্রবাসী কবির মিয়ার স্ত্রী দুই সন্তানের জননী তাহমীনা বেগম (২৬) শনিবার (৯জানুয়ারি) রাতে ‘পরকীয়ার টানে ঘর থেকে পালিয়ে যান। এসময় তাহমীনা স্বামী পরিবারের ১৫ ভরি স্বর্ণালংকার ও নগদ ৫ লাখ টাকা চুরি করে নিয়ে যান। যোগাযোগের চেষ্টা করে তার মোবাইল ফোনও বন্ধ পাওয়া যায়।

এ ঘটনায় পরদিন রোববার (১০ জানুয়ারি) প্রবাসী কবির মিয়ার মা ছফিনা বেগম। জালালাবাদ থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী (নং-৩৬৪) করেন। পাশাপাশি টাকা-কড়ি ও স্বর্ণালংকার চুরি করে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগও করেন তিনি। ঘটনার দু’দিন পর সোমবাব (১১ জানুয়ারি) টাকা-কড়ি ও স্বর্ণ রেখে তাহমীনাকে তাড়িয়ে দেয় তার পরকীয়া প্রেমিক নূর মিয়া। নূর মিয়ার বাড়ি সিলেট সদর উপজেলার মোগলগাঁও ইউনয়নের ভগতিপুর গ্রামে। পরে তাহমীনা শহরতলী টুকের বাজারের রাস্তায় অবস্থান নিলে স্থানীয় জনতা তাকে ঘেরাও করে রাখে। পুলিশ কর্তৃক উদ্ধার না হওয়ায় টুকেরবাজার পঞ্চায়েত কমিটির কাছে দেওয়া হয় তাহমীনাকে। খবর পেয়ে সোমবার রাতে শাশুড়ী ছফিনা বেগম চুরির অভিযোগ এনে জালালাবাদ থানায় নিয়মিত মামলার আরো একখানা এজাহারও দাখিল করেন। এ সময় পুলিশ এজাহার রেকর্ডে না নিয়ে জিডি মূলে আটক ও পরে মামলা হিসেবে এজাহার গ্রহণের আশ্বাস দেয়।

কিন্তু পুলিশ তাকে উদ্ধার কিংবা আটক করার আগেই টুকের বাজার পঞ্চায়েত কমিটির হাত থেকে প্রবাসীর বধূ তাহমীনাকে ছিনিয়ে নেন সিলেট সদরের মোগলগাঁও ইউপি মেম্বার বাবুল ও ফজলু। বর্তমানে তাহমীনা ওই দুই মেম্বারের নিয়ন্ত্রনেই রয়েছে এবং তারা তাকে পুলিশে না দিয়ে হীন স্বার্থ চরিতার্থ ও তাহমীনার প্রবাসী স্বামী পরিবারের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা ও হয়রানীর চেষ্টা করছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

পরকীয়ার টানে পলাতক ও প্রতারিত তাহমিনা বেগম সুনামগঞ্জ জেলার ছাতক থানার রায় সন্তুষপুর গ্রামের মৃত আক্তার আলীর মেয়ে। পিতৃপরিবার থেকেও তাকে উদ্ধার করে নেওয়ার কোন চেষ্ঠা করা হচ্ছে না বলে জানা গেছে।

স্থানীয় মোগলগাঁও ইউপি চেয়ারম্যান মো: হিরণ মিয়া ওই মহিলা নিখোঁজ হওয়ার বিষয়টি অবগত রয়েছেন।পরবর্তীতে কি হয়েছে বা হচ্ছে সে সম্পর্কে তিনি অবগত নন বলে জানান। তবে তিনি তার ইউপি মেম্বার বাবুল ও ফজলু মিয়ার মোবাইল নাম্বার দিতে তাৎক্ষণিক অপারগতা প্রকাশ করেন।

প্রবাসীর মা ছফিনা বেগমের অভিযোগ ও জিডির সত্যতা স্বীকার করে তদন্ত কর্মকর্তা এসএমপি’র জালালাবাদ থানার এসআই আব্দুল হান্নান সাংবাদিকদের জানান- খবর পেয়ে সোমবার রাতেই টুকেরবাজার পঞ্চায়েত কমিটির কাছে যায় থানা পলিশ। ওই মহিলা তাদের কাছে নেই বলে জানান তারা। মোগলগাঁও ইউপির দুই মেম্বারের কাছে থাকলে পুলিশ তাকে আটক করতে শিগগিরই অভিযান চালাবে বলে জানান তিনি।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

January 2021
S S M T W T F
 1
2345678
9101112131415
16171819202122
23242526272829
3031  

সর্বশেষ খবর

………………………..

shares