গোয়াইনঘাটে কয়টি ইউনিয়নে নির্বাচন, দ্বিধাদ্বন্দ্বে সম্ভাব্য প্রার্থীরা

প্রকাশিত: ৬:১৪ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৯, ২০২০

গোয়াইনঘাটে কয়টি ইউনিয়নে নির্বাচন, দ্বিধাদ্বন্দ্বে সম্ভাব্য প্রার্থীরা

Sharing is caring!

হেলাল আহমদ বাদশা, গোয়াইনঘাট :: দেশের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ স্থানীয় সরকার ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন।সেই মোতাবেক গোয়াইনঘাট উপজেলা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের পদধ্বনি শোনা যাচ্ছে। সম্ভাব্য প্রার্থীরা একটু নড়েচড়ে প্রার্থীতায় নিজেদের জায়গা করে নিতে চাচ্ছেন। ফেব্রুয়ারির শুরুতে তফসিল ঘোষণার কথা ভাবছে নির্বাচন কমিশন। মার্চ-এপ্রিলে কয়েক ধাপে হবে দেশের ইউনিয়ন পরিষদগুলোর নির্বাচন। ইউনিয়ন পরিষদ তৃণমূল পর্যায়ের স্থানীয় সরকার এর সঙ্গে সংশ্লিষ্ট এলাকার গণমানুষের আশা-আকাক্সক্ষা জড়িত।

ফলে এ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে পাড়াগাঁয়ে মানুষের মঝে যে সাড়া পড়ে তা অন্য কোনো নির্বাচনে অনুভূত হয় না। বিশেষ করে শিশুদের কন্ঠে স্লোগানে স্লোগানে মুখরিত হয়ে ওঠে গ্রামীণ রাস্তাগুলো। পোস্টার লিফলেটের জন্য ছুটতে থাকে রাস্তায় আর গাড়ির পিছনে পিছনে। তবে এবার গোয়াইনঘাট উপজেলায দ্বিধাদ্বন্দ্বে আছেন সম্ভাব্য চেয়ারম্যান ও মেম্বার প্রার্থীরা।

আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে গোয়াইনঘাট উপজেলায় ১০ টি না ১৪ টি ইউনিয়নে নির্বাচন হবে তা নিয়ে জল্পনা-কল্পনার শেষ নেই। সম্ভাব্য প্রার্থী থেকে শুরু করে সাধারণ ভোটারদের মাঝেও একই আলোচনা। নাগরিক সেবা বৃদ্ধির লক্ষ্যে বৃহত্তর গোয়াইনঘাট উপজেলার বৃহত্তর ইউনিয়নগুলো বিভাজনের কাজ চলছে। সঠিক নাগরিকসেবা বৃদ্ধি ও জনস্বার্থে এমন সিদ্ধান্তের এবং দ্রুততায় তা বাস্তবায়নের উদ্যোগ নেন সরকারের প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী স্থানীয় সাংসদ ইমরান আহমদ এম পি। তাঁর সর্বাত্মক সহযোগিতায় ইতিপূর্বে সিলেটের গোয়াইনঘাটে বিগত ৫ বছরে ৪নং লেঙ্গুড়া ইউনিয়ন ভেঙ্গে ৯নং ডৌবাড়ি ও সম্প্রতি ৫নং আলীরগাও ভেঙ্গে ১০নং পশ্চিম আলীরগাও ইউনিয়ন পরিষদ নামে আরও দুটি ইউনিয়ন পরিষদ প্রতিষ্টিত হয়েছে।

৩ নং পূর্ব জাফলং ইউনিয়ন বিভাজনের চূড়ান্ত পর্যায়ে চলে গেছে, ২নং পশ্চিম জাফলং ইউনিয়নকে ভেঙ্গে ১২নং গোয়াইনঘাট সদর ইউনিয়ন পরিষদ নাম করণের প্রস্থাব করা হয়েছে। পর্যায়ক্রমে ১নং রুস্তুমপুর ইউনিয়ন পরিষদকেও বিভাজন করা হবে। বর্তমান সময়ে রুস্তুমপুর ইউনিয়নকে ৩ টি ইউনিয়নে বিভাজন করার প্রস্তাবনা পেশ করা হয়েছে। বিগত সময়ে কিছু জটিলতার কারণে রুস্তুমপুর ইউনিয়ন পরিষদকে বিভাজন করা সম্ভব হয়নি। বিভাজন প্রক্রিয়া কে সামনে রেখে সম্ভাব্য প্রার্থীরা মানসিকভাবে প্রস্তুতি নিচ্ছেন এবং মাঠ পর্যায়ে টিকে থাকার জন্য নিজেকে তৈরি করছেন। আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নতুন পুরাতন মিলে বর্তমান সময়ের একঝাঁক উদীয়মান তরুণ শিক্ষিত সম্ভাবনাময়ী সম্ভাব্য প্রার্থীদের উপস্থিতি লক্ষ্য করা যাচ্ছে। তবে সবাই একটু দ্বিধাদ্বন্দ্বে আছেন নির্বাচনের পূর্বে কি? অসমাপ্ত ইউনিয়ন গুলি বিভাজন প্রক্রিয়া কাজের সমাপ্তি ঘটবে।

শেষ পর্যন্ত ১৪ টি ইউনিয়নে না ১০ টি ইউনিয়নের মধ্যে নির্বাচন হবে চলছে আনাগোনা। গোয়াইনঘাট সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ ফুজলুল হক বলেন গোয়াইনঘাট উপজেলার বৃহত্তর ইউনিয়নগুলো বিভাজন সময়োপযোগী যুগান্তকারী পদক্ষেপ এটা আরো পূর্বে করা উচিত ছিল। সময়ের দাবীতে এই পদক্ষেপ গ্রহণে ও বাস্তবায়নে প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী ইমরান আহমদ এমপি সহ সংশ্লিষ্ট সকল কর্তৃপক্ষকে তিনি ধন্যবাদ জানান। সাবেক দুইবারের উপজেলা চেয়ারম্যান আবদুল হাকিম চৌধুরী বলেন,ভোটার নির্ভর বৃহৎ ইউনিয়নগুলো বিভাজন করা হলে এখানে এক দিকে যেমন সরকারের উন্নয়ন কর্মকান্ড প্রসারিত হবে পাশাপাশি নাগরিক সেবার মানও ব্যাপকভাবে ত্বরান্মিত হবে। তিনি প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ এমপি’র এই মহতী উদ্যোগের জন্য ধন্যবাদ জানান। ৭ নং নন্দীরগাঁও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও গোয়াইনঘাট উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এস, কামরুল হাসান আমিরুল বলেন, আমাদের গোয়াইনঘাট উপজেলার ইউনিয়নগুলো বর্তমানে (খ) শ্রেণীবিভূক্ত, উপজেলার ইউনিয়ন বর্ধিত হলে (ক) শ্রেণীর আওতাভুক্ত হবে।

প্রতিটি ইউনিয়নের সেবার মান ও নাগরিক সুবিধা বৃদ্ধি পাবে, সরকারি সকল সুযোগ-সুবিধা দ্বিগুণ হবে। গোয়াইনঘাট উপজেলার বৃহত্তর ইউনিয়নগুলো বিভাজনে মাঠ পর্যায়ে সার্বক্ষণিক নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন গোয়াইনঘাট উপজেলা নির্বাহি অফিসার মোঃ নাজমুস সাকিব, সহকারী কমিশনার(ভূমি) এ,কে, এম নূর হোসেন নির্ঝর এবং গোয়াইনঘাট উপজেলা চেয়ারম্যান ফারুক আহমেদ।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

November 2020
S S M T W T F
 123456
78910111213
14151617181920
21222324252627
282930  

সর্বশেষ খবর

………………………..

shares