ভারতে হবিগঞ্জের যুবককে পিটিয়ে হত্যা, ৫দিন পর লাশ হস্তান্তর

প্রকাশিত: ৪:২৭ অপরাহ্ণ, মে ৩০, ২০২০

ভারতে হবিগঞ্জের যুবককে পিটিয়ে হত্যা, ৫দিন পর লাশ হস্তান্তর

Sharing is caring!

ক্রাইম সিলেট ডেস্ক : পিটিয়ে হত্যার ৫দিন পর শুক্রবার রাতে বাংলাদেশি এক যুবকের লাশ হবিগঞ্জের মাধবপুর থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেছে ভারতের পুলিশ। নিহত লোকমান (২৮) হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলার মালঞ্চপুর গ্রামের আব্দুল হাশিমের ছেলে।

এর আগে বিজিবি-বিএসএফের তিন দফা পতাকা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। লাশ হস্তান্তরের সময় উভয় দেশের সীমান্তরক্ষীরা উপস্থিত ছিলেন। হবিগঞ্জ ৫৫ বিজিবি’র সহকারী পরিচালক নাসির উদ্দিন চৌধুরী বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, গত ২৪ মে ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যের সিধাই থানা এলাকায় অবৈধভাবে প্রবেশ করেন লোকমান। এ সময় ওপারের লোকজন তাকে গরু চোর সন্দেহে বেধড়কভাবে পিটিয়ে রাস্তার পাশে জঙ্গলে ফেলে দেয়।

খবর পেয়ে ভারতীয় পুলিশ তাকে উদ্ধার করে সেখানকার একটি হাসপাতালে ভর্তি করে। চিকিৎসাধীন অবস্থায় ওইদিন রাতেই লোকমানের মৃত্যু হয়।

সিধাই থানা পুলিশ (নং১৫) অপমৃত্যু মামলা ও ময়নাতদন্ত সম্পন্ন করে। সেখানকার মেডিকেল রিপোর্টে আঘাতজনিত কারণে লোকমানের মৃত্যু হয়েছে নিশ্চিত হলে ভারতীয় পেনালকোড ৩০২/৩৪ধারায় অজ্ঞাতনামা আসামি উল্লেখ করে ২৯ মে ওই থানার এসআই দাবীদা রেঙ্গ মামলা করেন।

মাধবপুর থানার ওসি (তদন্ত) গোলাম দস্তগীর আহমেদ জানান, গত বুধবার বাংলাদেশের মোহনপুর আলীশাহ মাজারের কাছে বিজিবি-বিএসএফ প্রথমে বৈঠকে বসেছিল। লোকমানের মৃত্যুর কারণ সম্পর্কিত প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সরবরাহ না করায় লাশ গ্রহণ সম্ভব হয়নি। পরদিন বৃহস্পতিবার একইভাবে লাশ হস্তান্তর করতে চাইলে বাংলাদেশ পুলিশ রাজি হয়নি।

সর্বশেষ শুক্রবার রাতে ভারতীয় পুলিশ নিহতের করোনা নেগেটিভ ও পোস্টমর্টেম রিপোর্টসহ যাবতীয় কাগজপত্র মাধবপুর পুলিশের কাছে লাশ হস্তান্তর করে। ওই রাতেই মাধবপুর পুলিশ লোকমানের লাশ পরিবারের কাছে তুলে দেয়। রাতেই তাকে দাফন করা হয়।

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

সর্বশেষ খবর

………………………..

shares