করোনা আতঙ্ক: ছুটি পেয়ে গোয়াইনঘাটের পর্যটন কেন্দ্রগুলোতে চলছে শিক্ষা সফর

প্রকাশিত: ৭:১৬ অপরাহ্ণ, মার্চ ১৮, ২০২০

করোনা আতঙ্ক: ছুটি পেয়ে গোয়াইনঘাটের পর্যটন কেন্দ্রগুলোতে চলছে শিক্ষা সফর

Sharing is caring!

সুবাস দাস, গোয়াইনঘাট :: পর্যটন নগরী সিলেট। এখানে মাজার থেকে শুরু করে চা বাগান, জাফলং, বিছানাকান্দি, সাদাপাথর, লালাখাল, পাংথুমাই, লোভাছড়া, উৎমাছড়াসহ আকর্ষণী স্থানগুলো ভ্রমনে প্রতিনিয়ত আসেন পর্যটকরা। পর্যটকদের পদচারণায় মুখর হয় পর্যটন এলাকাগেুলো।

তাছাড়া প্রতিটি বিনোদন কেন্দ্রেও থাকে মানুষের ভীড়। করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কায় ইতিমধ্যে সিলেটে আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলাও বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। এবার পর্যটকদের সচেতন করছে সিলেটের প্রশাসন।

কোনো ধরণের নোটিশ জারি না করলেও করোনা ভাইরাস সুরক্ষায় সিলেটের পর্যটন কেন্দ্রগুলোতে পর্যটকদের আগমনে নিরুৎসাহিত করছে সিলেট জেলা প্রশাসন।এ জন্য স্থানীয় প্রশাসনকেও মনিটরিংয়ের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

সিলেটের জেলা প্রশাসক এম. কাজি এমদাদুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, পর্যটন কেন্দ্রগুলোতে পর্যটকদের যাতায়াত নিষিদ্ধ করা না হলেও আমরা নিরুৎসাহিত করছি, যাতে কেউ বিনা কারণে পর্যটন কেন্দ্রে না যান।

তিনি বলেন, পর্যটনে আসলে মানুষ বিনা কারণেই যান। যখন সময় পান বা ফুসরত মিলে তখন স্বপরিবারে ঘুরতে আসেন।মূলত; করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কায় মানুষদের সচেতন করে দিচ্ছি।

জেলা প্রশাসক এম. কাজী এমদাদুল ইসলাম বলেন, করোনা ভাইরাস থেকে সুরক্ষায় বিভাগীয়, জেলা, উপজেলা পর্যায়ে কমিটি গঠন করা হয়েছে। জেলা কমিটি নিয়ে মঙ্গলবারও তিনি সভা করেছেন। করণীয় বিভিন্ন বিষয় নির্ধারণ করেছেন।

এদিকে, বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া করোনা ঝুকিতে থাকা বাংলাদেশকে রক্ষায় সরকার আগামি ৩১ মার্চ পর্যন্ত দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্টান বন্ধ ঘোষনা করেছেন। লম্বা ছুটি পেয়ে সিলেটের গোয়াইনঘাট উপজেলার পর্যটন কেন্দ্রগুলোতে চলছে শিক্ষা সফর পালনের হিড়িক। বুধবার জাফলং, বিছনাকান্দি, শ্রীপুর ও রাতাগুল গুরো দেখা যায়, লম্বা ছুটি পেয়ে দলে দলে শিক্ষা সফর পালনের জন্য গাড়ি ভর্তি শিক্ষার্থী নিয়ে আনন্দে মেতে উঠেছেন। তাদের মধ্যে কোন আতঙ্ক নেই বললে চলে। জাফলং পর্যটন কেন্দ্রে ভারতীয় পর্যটরা ভিড় জমাচ্ছে। তাদের সাথে আনন্দ করছেন বাংলাদেশের পর্যটরা।

করোনা নিয়ে গোয়াইনঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুল আহাদ পর্যটকদের ‍উদ্ধেশ্যে বলেন, সচেতন থাকার জন্য সকল শিক্ষা প্রতিষ্টান বন্ধ করা হয়েছে। এই কটা দিন কি পর্যটক হয়ে আসতে বিরত থাকা যায় না? নাকি এটাও অদম্য সাহসী কিংবা সবকিছুতে পাত্তা না দেয়ার অসম প্রতিযোগিতা!

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

সর্বশেষ খবর

………………………..

shares