কোম্পানীগঞ্জ কোয়ারি বন্ধে পুলিশের মাইকিং, আটক হয়নি পাথর খেকোরা

প্রকাশিত: 6:58 PM, February 4, 2020

কোম্পানীগঞ্জ কোয়ারি বন্ধে পুলিশের মাইকিং, আটক হয়নি পাথর খেকোরা

Sharing is caring!

স্টাফ রিপোর্টার : সিলেটের কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার আলোচিত শাহ আরফিন টিলায় গর্ত করে পাথর উত্তোলন বন্ধ করতে থানা পুলিশের পক্ষ থেকে মাইকিং করা হয়েছে। মঙ্গলবার (৪ ফেবফেব্রুয়ারি) সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৩টা পর্যন্ত কোম্পানীগঞ্জ থানার এসআই মোস্তাকের নেতৃত্বে পুলিশ সদস্যরা মাইকিং করেন।

গত রোববার (২ ফেব্রুয়ারি) মধ্যরাতে কোম্পানীগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মিজানুর রহমান বাদী হয়ে কোয়ারি মালিকসহ ১০ জনের বিরুদ্ধে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। মামলার নম্বর (নং-০২ (০২) ২০২০)।

কিন্তু মামলার আসামিরা এখনো আটক হচ্ছে না।বিলাল আহমদ, নুরুজ্জামান মেম্বার ও আমির উদ্দিনের ধ্বংস লীলায় একের পর এক অসহায় পাথর শ্রমিকদের মৃত্যুর মিছিল বেড়েই চলছে। এই তিন পাথর খেকো মিলে কোম্পানীগঞ্জে একটি ত্রাসের স্বর্গরাজ্য গড়ে তোলেছেন। তারা কোন কিছুর তোয়াক্কা না করেই স্থানীয় প্রশাসনকে ম্যানেজ করে এই ধ্বংস লীলা চালিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু তারা সর্বদাই আইনের ফাঁকে বেরিয়ে যান। কোন শ্রমিকের মৃত্যু হলেই তারা অন্যের ঘাড়ে দোষ চাপানোর চেষ্টা করেন।

মাইকিংয়ে বলা হয়, শাহ আরফিন টিলা থেকে পাথর উত্তোলন বন্ধের জন্য হাইকোর্টের আদেশ রয়েছে। এই আদেশ অমান্য করে যারা টিলা কেটে, গর্ত করে পাথর উত্তোলন করবে তাদের বিরুদ্ধে তাৎক্ষণিকভাবে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এ ব্যাপারে কোম্পানীগঞ্জ থানা ওসি সজল কুমার কানু বলেন, শাহ আরফিন টিলায় হাই কোর্টের আদের্শ অমান্য করে কোনভাবেই অবৈধভাবে পাথর উত্তোলন করতে দেওয়া হবে না। অবৈধভাবে পাথর উত্তোলন বন্ধে সকল ধরনের ব্যবস্থা প্রসাশনের পক্ষ থেকে নেওয়া হয়েছে।

তিনি জানান, শাহ আরফিন টিলা ছাড়াও উৎমা এলাকার এডিএমএ’র বাগানসহ যেসব স্থানে অবৈধভাবে পাথর উত্তোলন হচ্ছে তা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। বিশেষ করে অবৈধভাবে পাথর উত্তোলনের নেপথ্যে যারা রয়েছে তাদের আইনের আওতায় আনা হবে।

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

February 2020
S S M T W T F
« Jan    
1234567
891011121314
15161718192021
22232425262728
29  

সর্বশেষ খবর

………………………..

shares