গোয়াইনঘাটে ৩৩৩ নাম্বারে পর্যটক তরুণীর অভিযোগ, ৪০ হাজার টাকা জরিমানা

প্রকাশিত: 10:52 PM, December 1, 2019

গোয়াইনঘাটে ৩৩৩ নাম্বারে পর্যটক তরুণীর অভিযোগ, ৪০ হাজার টাকা জরিমানা

Sharing is caring!

সুবাস দাস, গোয়াইনঘাট :: সংবাদকর্মী ইসরাত জাহান (লায়ন্স), এডভোকেট মো. আশিকুর রহমান ভূঁইয়া ও সামস সানান নামের যুবকসহ ৯ সদস্যের একটি প্রকৃতিপ্রেমী পর্যটকদের দল রাজধানী ঢাকা থেকে ঘুরতে আসেন দেশের অন্যতম পর্যটন কেন্দ্র সিলেটের গোয়াইনঘাট উপজেলার বিছনাকান্দিতে। একটি নোহা গাড়িযোগে সালুটিকর – গোয়াইনঘাট সড়কে রওয়ানা দেন বিছনাকান্দির উদ্দেশ্যে।

সালুটিকর – গোয়াইনঘাট সড়কের সোনার বাংলা স্থানে পৌঁছার পর ওই পর্যটক দলটি গাড়ি থামিয়ে মো. কামাল হোসেনের মালিকানাধীন প্রতিষ্ঠান মেসার্স সালমা এন্টারপ্রাইজ থেকে এক প্যাকেট ফুলকলি কোম্পানির বিস্কুট ক্রয় করে বিছাকান্দি পর্যটন কেন্দ্রের উদ্দেশ্যে রওয়ানা হন। বিছনাকান্দি পর্যটন কেন্দ্র থেকে ফেরার পথে পর্যটক দলটি ফুলকলি কোম্পানির ওই বিস্কুট খান। বিস্কুট খাওয়ার পর ৯ সদস্য বিশিষ্ট পর্যটক দলের মধ্যে একজন বমি করেন। পর্যটক দলটি বিস্কিটের প্যাকেটের মধ্যে মেয়াদ পেরিয়ে যাওয়ার তারিখ দেখতে পান। ফেরার পথে পর্যটক দলটি সোনার বাংলা পৌঁছে মেসার্স সালমা এন্টারপ্রাইজে গাড়ি থামিয়ে মেয়াদ উত্তীর্ণ বিস্কুট খাওয়ার পর তাদের সমস্যার কথা বলেন। একপর্যায়ে দোকান থেকে আরও বেশ কয়েক প্যাকেট ফুলকলি কোম্পানির বিস্কুট ক্রয় করে প্রত্যেক প্যাকেটে মেয়াদ উত্তীর্ণ দেখতে পান।

পরে পর্যটক দলের সাথে থাকা নারী সংবাদকর্মী ইসরাত জাহান সরকারি হেল্প লাইন ৩৩৩ ফোন করে সহযোগিতা চান। ৩৩৩ সরকারি হেল্প লাইনে অভিযোগ পেয়ে ৩০ মিনিটের মাথায় ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন গোয়াইনঘাট উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট বিশ্বজিত কুমার পাল। এছাড়াও সালুটিকর পুলিশ তদন্ত কেন্দ্র থেকে একদল পুলিশ সদস্য নিয়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন এস আই খালেদ মিয়া। ৩৩৩ সরকারি হেল্প লাইনে অভিযোগ পেয়ে ঘটনাস্থলে আসা গোয়াইনঘাট উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট বিশ্বজিত কুমার পাল সালমা এন্টারপ্রাইজে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইনে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করেন। অপর দিকে সোনার বাংলা স্টোরে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ এবং বন ও পরিবেশ সংরক্ষণ আইনে পলিথিন ব্যাগ দোকানে রাখার অপরাধে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেন।

এ ব্যাপারে গোয়াইনঘাট উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিশ্বজিত কুমার পাল বলেন, ঢাকা থেকে পর্যটন কেন্দ্র বিছনাকান্দিতে ঘুরতে আসা পর্যটকরা সরকারি হেল্পলাইন ৩৩৩ ফোন করে সহযোগিতা কামনা করেন। ৩৩৩ সরকারি হেল্প লাইনের সহায়তায় আমরা বিষয়টি জানতে পারি। পরবর্তীতে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে দুটি দোকানে ৪০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

December 2019
S S M T W T F
 123456
78910111213
14151617181920
21222324252627
28293031  

সর্বশেষ খবর

………………………..