গোয়াইনঘাট সরকারি কলেজে সফলতা আনলো প্রায় ৫ হাজার শিক্ষার্থী

প্রকাশিত: ৪:৩১ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২৬, ২০১৯

গোয়াইনঘাট সরকারি কলেজে সফলতা আনলো প্রায় ৫ হাজার শিক্ষার্থী

গোয়াইনঘাট প্রতিনিধি :: উত্তর সিলেটের সর্ববৃহৎ বিদ্যাপীঠের নাম গোয়াইনঘাট সরকারি কলেজ। কলেজটি ২ ফেব্রুয়ারি ১৯৯৪ সালে গোয়াইনঘাট উপজেলা সদরের সন্নিকটে পিরিজপুর গ্রামের পূর্ব মাঠে প্রতিষ্ঠিত হয়।

কলেজটি প্রতিষ্ঠাকালীন সময়ে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন প্রভাষক সত্যব্রত রায়। পরবর্তী সময়ে যথাক্রমে প্রভাষক মো. গোলাম হোসেন আজাদ, সাইদুর রহমান, মো. আতিকুর রহমান, মতিলাল দে ও প্রভাষক মো. ফজলুল হক বিভিন্ন সময়ে অধ্যক্ষ ও ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

১৯৯৭ খ্রিষ্টাব্দ থেকে ২০০৯ খ্রিষ্টাব্দ পর্যন্ত অধ্যক্ষ হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন মো. আতিকুর রহমান। ২০১২ খ্রিষ্টাব্দ থেকে মো. ফজলুল হক গোয়াইনঘাট সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছেন। ১৯৯৭ সালে কলেজটি এমপিও ভুক্তি লাভ করে। ২০১৫ সালের ২৬ জুলাই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গোয়াইনঘাট কলেজকে জাতীয় করনে অন্তর্ভুক্ত করেন এবং ২০১৮ সালের ৮ আগস্ট কলেজটি সরকারি করণ করা হয়।

বর্তমানে কলেজটি সরকারি করণ হলেও কলেজের শিক্ষক ও কর্মচারী এখনো পুরোপুরি সরকারি হতে পারেননি। গোয়াইনঘাট কলেজটির প্রতিষ্ঠলগ্ন থেকে এমপিও ভুক্তি, সরকারিকরণ, একাডেমিক ভবন নির্মাণসহ প্রতিটি উন্নয়ন পরিক্রমা বাস্তবায়নে যিনি সর্বাধিক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন তিনি হলেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ।

গোয়াইনঘাট সরকারি কলেজসহ গোয়াইনঘাট উপজেলার প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানই ইমরান আহমদ এমপির হাতধরে উন্নয়ন পরিক্রমায় অন্তর্ভুক্ত হয়েছে। গোয়াইনঘাট উপজেলায় স্বাস্থ্য, যোগাযোগ, বিদ্যুৎসহ প্রত্যেকটি উন্নয়ন অগ্রযাত্রার মধ্যে শিক্ষা ক্ষেত্রে ইমরান আহমদ এমপি সর্বাধিক সফল বলে সাধারণ মানুষ মনে করেন। গোয়াইনঘাট সরকারি কলেজে সরকারি করণ গোয়াইনঘাট উপজেলায় শিক্ষার ক্ষেত্রে নব সূচনা সৃষ্টি করে। গোয়াইনঘাট সরকারি কলেজ প্রতিষ্ঠার পর থেকে উচ্চ মাধ্যমিক পরিক্ষায় ৭৭১২ জন শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করে ৪০২৫ জন শিক্ষার্থী সফলতা লাভ করে।

ডিগ্রি (পাস) শ্রেনীতে ১৯৯৭ জন শিক্ষার্থী পরীক্ষা দিয়ে ৫৩৮ জন শিক্ষার্থী সফলতা লাভ করে। স্নাতক (সম্মান) ১৩১৫ জন শিক্ষার্থীর মধ্যে ১২৩ জন শিক্ষার্থী কৃতকার্য হয়। কলেজটিতে ৫২ জন ও কর্মচারী রয়েছেন। শিক্ষাবর্ষ ১৯৯৪-৯৫ হতে শিক্ষাবর্ষ ২০১৮-১৯ পর্যন্ত মোট শিক্ষার্থীর সংখ্যা ১১০২৪ জন এবং সফলতা লাভ কারী শিক্ষার্থীর সংখ্যা ৪৬৮৬ জন।

এব্যাপারে গোয়াইনঘাট সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ মো. ফজলুল হক বলেন, সিলেট চার আসনের সংসদ সদস্য ও প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদের নেতৃত্বে তৎকালীন গোয়াইনঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, তৎকালীন সবকয়টি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানবৃন্দ, বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ, উপজেলার শিক্ষানুরাগী ব্যক্তিবর্গ, সুশীল সমাজের নেতৃবৃন্দসহ সকলের সহযোগিতায় কলেজটি প্রতিষ্ঠিত হয়। কলেজটি প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে বর্তমান সময় পর্যন্ত সর্বাধিক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ। সকলের সহযোগিতায় গোয়াইনঘাট সরকারি কলেজেটি প্রতিষ্ঠিত হওয়ায় আজ গোয়াইনঘাটবাসী তার ফল ভোগ করছেন। এই কলেজ থেকে পড়া শোনা করে হাজারো শিক্ষার্থী আজ বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকুরী করছেন।

তিনি কলেজ প্রতিষ্ঠায় যারা বিভিন্নভাবে সহযোগিতা করেছেন তাদেরকে ধন্যবাদ জানান। পাশাপাশি কলেজের উন্নয়ন পরিক্রমায় অংশগ্রহণ করে যারা মৃত্যুবরণ করেছেন তাদের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন।

Sharing is caring!

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

November 2019
S S M T W T F
 1
2345678
9101112131415
16171819202122
23242526272829
30  

………………………..