ফেসবুকে আব্দুল হাকিম চৌধুরীর বিরুদ্ধে কুচক্রী মহলের মিথ্যা অপপ্রচার: নিন্দা ও প্রতিবাদ

প্রকাশিত: ৮:৫৯ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৪, ২০১৯

ফেসবুকে আব্দুল হাকিম চৌধুরীর বিরুদ্ধে কুচক্রী মহলের মিথ্যা অপপ্রচার: নিন্দা ও প্রতিবাদ

বিএনপির একজন নিবেদিত প্রাণ আলোচিত রাজনীতিবিদ সাবেক গোয়াইনঘাট উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও সাবেক সিলেট জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি গরিবের বন্ধু আব্দুল হাকিম চৌধুরীকে নিয়ে একটি কু-চক্রী মহল সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অপপ্রচার চালিয়ে যাচ্ছে। তাদের উক্ত অপপ্রচারের নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে স্থানীয় বিএনপির নেতৃবৃন্দ।

এক প্রতিবাদ লিপি উল্লেখ করেন, গোয়াইনঘাটের পাশাপশি সিলেট জেলা বিএনপির রাজনীতিতেও আব্দুল হাকিম চৌধুরী নিজেকে মেলে ধরেন। নির্বাচিত হন সিলেট জেলা বিএনপির সাবেক তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক পদে। গোয়াইনঘাটে বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের রাজনীতিতে নিজেকে জড়িয়ে আব্দুল হাকিম চৌধুরী বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের নীতি-আদর্শের প্রতি আকৃষ্ট করে অগনিত অপরাপর রাজনৈতিক নেতাকর্মীদের বিএনপিতে যোগদান করান। তিনি বিএনপির একজন নিবেদিত প্রাণ কর্মী হিসেবে নিজেকে আধিষ্ট রেখে উপজেলার সব ক’টি ইউনিয়নে বিএনপি ও অংগসংগঠনের ব্যাপ্তি ঘটান।

সর্বস্তরের নেতা-কর্মী এবং সাধারণ মানুষের মনে বিএনপির সহনশীল রাজনৈতিক দর্শন ও মতাদর্শ ছড়িয়ে দেন। একজন সক্রিয় কর্মী হিসেবে তিনি প্রতিটি ইউনিয়নে বিএনপি ও অংগ সংগঠনের মজবুত ভিত্তি গড়ে তুলেন। গোয়াইনঘাটে সব ক’টি ইউনিয়নে আজকে বিএনপির তৃণমূল পর্যায়ের এ মজবুত ভিত্তিরও অন্যতম কারিগর তিনি।

সর্বশেষ গোয়াইনঘাট বিএনপির আহ্বায়ক পদে অধিষ্ট হয়ে সব ক’টি ইউনিয়ন ও গোয়াইনঘাট উপজেলা বিএনপির সম্মেলন সফল করে মূল ধারার নেতাকর্মীদের দিয়ে উপজেলা কমিটি গঠন করেন। গোয়াইনঘাটের মাটি ও মানুষের সাথে নিবিড় মাতৃ¯েœহ গড়ে উঠায় তিনি দলীয় পরিচয়ের বাইরেও জনসাধারণের সাথে নিজেকে একিভুত করে রেখেছেন।

এছাড়াও সমাজসেবায় মনোনিবেশ করে আসা আব্দুল হাকিম চৌধুরী এলাকার অপরাপর সুশীল সমাজের সাথে সম্পৃক্ত থেকে প্রতিষ্ঠা করেন দশগাঁও নওয়াগাঁও উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজ। প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে অদ্যাবধি তিনি উক্ত বিদ্যাপিঠের সভাপতি পদে দায়িত্ব পালন করে আছেন। গোয়াইনঘাটের সর্ববৃহত বিদ্যাপিঠ গোয়াইনঘাট বিশ^বিদ্যালয় কলেজসহ উপজেলার সব ক’টি কলেজের দাতা সদস্য হিসেবে শিক্ষা সেবায় নিয়োজিত রয়েছেন আব্দুল হাকিম চৌধুরী।

তিনি দীর্ঘ দিন সাংবাদিকতা পেশায় নিয়োজিত থাকায় সাংবাদিক ও সংবাদপত্র’র একজন সেবক হিসেবে সবসময় গণমাধ্যম কর্মীদের পাশে দাড়ান। এজন্য উপজেলার গণমাধ্যম কর্মীদের সর্ববৃহত প্রতিষ্ঠান গোয়াইনঘাট প্রেসক্লাবেরও তিনি অন্যতম দাতা সদস্য। গোয়াইনঘাট প্রেসক্লাব আজকের অবস্থানে আসার পেছনেও রয়েছে তার গুরুত্বপূর্ণ অবদান।

তিনি ২০০৯ সালে গোয়াইনঘাট উপজেলা পরিষদের নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করে আওয়ামীলীগ ক্ষমতায় অবস্থানকালীন স্রোতের বিপরীতে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। জনসেবা, আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন, ন্যায় বিচার নিশ্চিত করণসহ জবাবদিহিতামূলক উপজেলা পরিষদ গড়ে তুলে জনগনের দৃষ্টি কাড়েন। তিনি ২০১৪ সালে পূণরায় উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে জনগনের বিপুল ভোটে নির্বাচিত হয়ে স্ব-পদে বহাল রয়েছেন ২০১৮ পর্যন্ত।সর্বশেষ গোয়াইনঘাট উপজেলা নির্বাচনে দলীয় নির্দেশ অনুযায়ী তিনি নির্বাচন থেকে সরে দাড়ান। বিজ্ঞপ্তি

Sharing is caring!

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

November 2019
S S M T W T F
 1
2345678
9101112131415
16171819202122
23242526272829
30  

সর্বশেষ খবর

………………………..