কানাইঘাট লোভাছড়া পাথর কোয়ারি থেকে অবৈধ ভাবে পাথর উত্তোলনের পায়তারা

প্রকাশিত: 7:58 PM, November 13, 2019

কানাইঘাট লোভাছড়া পাথর কোয়ারি থেকে অবৈধ ভাবে পাথর উত্তোলনের পায়তারা

Sharing is caring!

কানাইঘাট প্রতিনিধি :: সিলেটের কানাইঘাট লোভাছড়া পাথর কোয়ারি সরকারী ভাবে ইজারা বন্ধ থাকার পরও কোয়ারির মূল অংশ লোভা নদীর পানি কমার সাথে সাথে সেখান থেকে অবৈধ ভাবে নদীর পাড় কেটে পাথর উত্তোলনের পায়তারা চালিয়ে যাচ্ছে পাথর খেকো চক্র।

জানা যায়, কোয়ারি থেকে অবৈধ ভাবে পাথর উত্তোলন করার জন্য ইতি মধ্যে সেখানে বেশ কয়েকটি স্কেভেটর ও ফেলুডার বাহন আনা হয়েছে বলে বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে। এসব মেশিনারী বাহন দিয়ে এখন থেকে বড় বড় গর্ত করে পাথর উত্তোলনের চেষ্টা চালাচ্ছে পাথর খেকোরা। কয়েকদিন পূর্বে কোয়ারির মারাত্মক ভাঙ্গন কবলিত বড়গ্রাম এলাকা থেকে স্কেভেটর দিয়ে সেখানে বড় ধরনের গর্ত করে পাথর উত্তোলনের চেষ্টা কালে কানাইঘাট লক্ষী প্রসাদ পশ্চিম ইউপি চেয়ারম্যান লোভাছড়া চা-বাগানের সত্বাধিকারী জেমসলিও ফারগুশন নানকা বাধা প্রদান করেন।

এছাড়া কোয়ারির মূল অংশ লোভা নদী থেকে গত কয়েক বছর ধরে নদীর উভয় পাশের ফসলী জমির পার কেটে বড় বড় গর্ত তৈরী করে পাথর উত্তোলনের ফলে লোভা নদীতে ভয়াভহ ভাঙ্গন সৃষ্টি হয়ে এলাকার পরিবেশ এমনিতেই হুমকির সম্মুখীন রয়েছে। সম্প্রতি লোভা নদীর পাড় কেটে পাথর খেকো চক্র সেখানে পাথর মওজুদের জায়গা খনন করার সময় খবর পেয়ে কানাইঘাট থানা পুলিশ বাধা প্রদান করে তা বন্ধ করে দেয়।

গত মঙ্গলবার কানাইঘাট উপজেলার আইন শৃংখলা কমিটির সভায় ইউপি চেয়ারম্যান জেমসলিও ফারগুশন নানকা, কমিটির সভাপতি নির্বাহী কর্মকর্তা বারিউল করিম খানের দৃষ্টি আকর্ষন করে বলেন, লোভাছড়া পাথর কোয়ারী থেকে লীজ বর্হিভূর্ত পাথর উত্তোলন করার জন্য বড়গ্রাম এলাকায় স্কেভেটর লাগানোর সময় তিনি বাধা প্রদান করেন। যার কারনে পাথর খেকো এক ব্যক্তি স্কেভেটরের গ্লাস ভেঙ্গে তার বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দিয়েছে। তিনি অবৈধ ভাবে লীজ বর্হিভূর্ত পাথর উত্তোলনের চেষ্টা এখন থেকে এলাকার পরিবেশ রক্ষার্থে প্রশাসনিক ব্যবস্থা গ্রহনের আহব্বান জানান।

সভায় নির্বাহী কর্মকর্তা বারিউল করিম খান ও থানার অফিসার ইনচার্জ শামসুদ্দোহা পিপিএম বলেন, সরকারী নির্দেশনা ব্যতিত লোভাছড়া পাথর কোয়ারি থেকে কেউ পাথর উত্তোলন করতে পারবে না। কোয়ারি লীজ দেয়া হয়েছে কিংবা পাথর উত্তোলনের অনুমতি আছে এধরনের কোন কাগজ পত্র আমাদের হাতে নেই। অবৈধ প্রক্রিয়ার মাধ্যমে পাথর উত্তোলনের কেউ চেষ্টা করলে বিহিত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে বলে নির্বাহী কর্মকর্তা বারিউল করিম খান আইন শৃংখলা সভায় সবাইকে আশ^স্থ করেন। সভায় থানা ওসি জানান সম্পতি লোভা নদীর পার কেটে সেখানে পাথর মওজুদের জন্য জায়গা খনন করার সময় খবর পেয়ে পুলিশ তা বন্ধ করে দিয়েছে।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

November 2019
S S M T W T F
 1
2345678
9101112131415
16171819202122
23242526272829
30  

সর্বশেষ খবর

………………………..