ভেঙ্গে দেয়া হচ্ছে সিলেট জেলা বিএনপির সকল কমিটি

প্রকাশিত: ১০:২০ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২, ২০১৯

ভেঙ্গে দেয়া হচ্ছে সিলেট জেলা বিএনপির সকল কমিটি

Sharing is caring!

সিলেট জেলা বিএনপির আওতাধীন সকল সাংগঠনিক কমিটি ভেঙ্গে দেয়া হচ্ছে। আগামী ১০দিনের মধ্যে সিলেটের ১৩ উপজেলা বিএনপি ও ৫টি পৌরসভার নতুন আহবায়ক কমিটি গঠনের লক্ষ্যে এ পদক্ষেপ নেয়া হলো। এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন জেলা বিএনপির আহবায়ক কমিটির সদস্য মাহবুবুল হক চৌধুরী।

গত ২ অক্টোবর সিলেট জেলা বিএনপির ২৫ সদস্য বিশিষ্ট আহবায়ক কমিটি ঘোষণা করেন দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। প্রবীণ ও নবীনদের মিশ্রণে গঠিত এ কমিটি আগামী তিন মাসের ভিতরে জেলা শাখার সম্মেলন সম্পন্ন করার নির্দেশ দিয়েছে কেন্দ্র। সিলেট বিএনপির নতুন কমিটি দায়িত্ব পাওয়ার পর সিলেট শাহজালাল (রহ.) এর মাজার জিয়ারত করে শুরু হয় তাদের কার্যক্রম। পরবর্তীতে শহীদ সুলেমান হলে নতুন কমিটির পরিচিতি সভা হয়। এরপরেই ১৭ অক্টোবর তারা চলে যান ঢাকায় দলের প্রতিষ্ঠাতা, সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়ার রহমানের মাজার জিয়ারত করতে। ঐ দিন রাতেই দলের নয়া পল্টনের কার্যালয়ে লন্ডনে অবস্থানরত দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সাথে ভিডিও কলের মাধ্যমে জেলা বিএনপির নেতারা বৈঠক করেন। তারেক রহমানের সাথে এ বৈঠকে জেলা বিএনপির নেতারা বিভিন্ন দিক নির্দেশনা মূলক বক্তব্য পেয়ে অনেকটা নড়েচড়ে বসেন। সিলেট ফিরেই আহবায়ক কমিটি আগামীদিনে কিভাবে দলকে সংগঠিত করবে এ নিয়ে শুরু করে নিজেদের মধ্যে আলাপ-আলোচনা। সে লক্ষেই গত সোমবার জেলা বিএনপি নগরীর একটি আভিজাত হলে কেন্দ্রীয় নেতাদের উপস্থিতিতে এক রুদ্ধদ্বার বৈঠক করে। এতে উপস্থিত ছিলেন সিলেট বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত দলের ভাইস চেয়ারম্যান ডা. এ জেড এম জাহিদ হোসেন। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্ঠা তাহসীনা রুশদীর লুনা, আলহাজ¦ এম. এ হক ও খন্দকার আব্দুল মুক্তাদির, বিএনপির কেন্দ্রীয় সিলেট বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ডা: সাখাওয়াত হাসান জীবন, বিএনপির কেন্দ্রীয় সিলেট বিভাগীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক সাবেক এমপি দিলদার হোসেন সেলিম ও কলিম উদ্দিন আহমদ মিলন, বিএনপির কেন্দ্রীয় সহ-ক্ষুদ্র ঋণ সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রাজ্জাক, বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও সিলেট সিটি মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী, বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ডা: শাহরিয়ার হোসেন চৌধুরী, কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য এডভোকেট হাদিয়া চৌধুরী মুন্নি। সভায় সিদ্ধান্ত নেয়া হয় আগামী ১০ দিনের মধ্যে সিলেটের সকল উপজেলা ও পৌরসভার নতুন আহবায়ক কমিটি গঠন করা হবে। সে সাথে ভেঙ্গে যাবে সিলেটের ১৮টি সাংগঠনিক কমিটি। জেলা বিএনপির আহবায়ক কামরুল হুদা জায়গীরদার জানান, আগামী দু’চার দিনের মধ্যে সকল উপজেলা, পৌরসভা, ইউনিয়ন ও দলের সিনিয়র নেতাদের সাথে বৈঠক করা হবে। বৈঠকে তৃণমূলের পরামর্শ নিয়ে ১৮টি সাংগঠনিক কমিটি করা হবে। এসব কমিটি দ্রুত সম্মেলন করে নেতৃত্ব নির্বাচন করবে। তবে জেলা বিএনপির আহবায়ক জানান, প্রতিটি কমিটি ২৫ সদস্য বিশিষ্ট করা হবে। একজনকে আহবায়ক করে ২৪ জনকে সদস্য রাখা হবে। দলের জন্য নিবেদিত, ত্যাগী, বিগত দিনে আন্দোলন সংগ্রামে ছিলেন এমন ব্যক্তিদের দিয়েই এবার কমিটি হবে বলে তিনি জানান।

সিলেটে জেলার ১৮টি সাংগঠনিক কমিটি হল, সিলেট সদর, বালাগঞ্জ, বিশ্বনাথ ও নবগঠিত বিশ্বনাথ পৌরসভা, দক্ষিণ সুরমা, গোলাপগঞ্জ ও গোলাপগঞ্জ পৌরসভা, বিয়ানীবাজার ও বিয়ানীবাজার পৌরসভা, জকিগঞ্জ ও জকিগঞ্জ পৌরসভা, কানাইঘাট ও কানাইঘাট পৌরসভা, গোইয়াইনঘাট, কোম্পানীগঞ্জ, ওসমানীনগর, জৈন্তাপুর ও ফেঞ্চুগঞ্জ।

এদিকে বিভিন্ন উপজেলা কমিটিতে আসতে লবিং শুরু করেছেন উপজেলার নেতারা। জানা গেছে, মঙ্গলবারের বিএনপির সভার পর উপজেলা পর্যায়ের নেতারা বেশ সরব হয়ে উঠেছেন। জেলা নেতাদের কাছে অনেকে ধর্ণা দেয়া শুরু হয়েছে। তবে মৌসুমী ্ও ব্যবসায়ী কাম রাজনীতিক নেতারা কমিটি নিজেদেও প্রভাব রাখতে দৌড়ঝাঁপ চালাচ্ছেন বলেও অনেকে জানিয়েছেন। এতে করে ত্যাগি ও মামলা হয়রানীর শিকার নেতা কর্মীদের মূল্যায়ন নিয়ে আংশকা দেখা দিয়েছে।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

November 2019
S S M T W T F
« Oct    
 1
2345678
9101112131415
16171819202122
23242526272829
30  

সর্বশেষ খবর

………………………..

shares