স্ত্রী-সন্তানসহ ওমর ফারুকের ব্যাংক লেনদেন স্থগিত

প্রকাশিত: ৮:২২ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২১, ২০১৯

স্ত্রী-সন্তানসহ ওমর ফারুকের ব্যাংক লেনদেন স্থগিত

Sharing is caring!

এবার স্থগিত করা হলো যুবলীগ থেকে অব্যাহতি পাওয়া ওমর ফারুক চৌধুরীর ব্যাংক হিসাবের লেনদেন। সঙ্গে তার স্ত্রী, তিন ছেলে এবং দুই ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের ব্যাংক হিসাবের লেনদেনও স্থগিত করা হয়েছে। ফলে তারা তাদের ব্যাংক হিসাব থেকে কোনো টাকা উত্তোলন বা স্থানান্তর করতে পারবেন না।

আয়কর অধ্যাদেশ ১৯৮৪ এর ১১৬ ধারার ক্ষমতাবলে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) এসব ব্যাংক হিসাবের লেনদেন স্থগিত করে ।

সোমবার সরকারের রাজস্ব গোয়েন্দা সংস্থা সেন্ট্রাল ইনটেলিজেন্স সেল থেকে পাঠানো চিঠিতে আদেশ তাৎক্ষণিকভাবে কার্যকর করে এ সংক্রান্ত একটি পরিচালন প্রতিবেদন জরুরি ভিত্তিতে পাঠাতে বলা হয়েছে।

ব্যাংকগুলোর কাছে পাঠানো চিঠিতে এনবিআর বলেছে, ওমর ফারুক চৌধুরী, তার স্ত্রী শেখ সুলতানা রেখা, ছেলে আবিদ চৌধুরী, মুক্তাদির আহমেদ চৌধুরী ও ইশতিয়াক আহমেদ চৌধুরীর ব্যাংক হিসাব থেকে কোনো টাকা উত্তোলন বা স্থানান্তর করা যাবে না। একই তাদের ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান লেক ভিউ প্রোপার্টিজ ও রাও কনস্ট্রাকশনের হিসাবের লেনদেনও স্থগিত করেছে এনবিআর।

চিঠিতে তাদের বর্তমান ঠিকানা দেওয়া হয়েছে ধানমন্ডির ৮/এ সড়কের ইস্টার্ন হেরিটেজ, রমনার বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ের ৪৫ নম্বর বাসা ও চট্টগ্রামের রাউজানের সূত্রাপুর।

এর আগে ৩ অক্টোবর ওমর ফারুক চৌধুরীর ব্যাংক হিসাব তলব করে বাংলাদেশ ব্যাংক। তিন কার্যদিবসের মধ্যে তার নামে থাকা সব হিসাবের লেনদেন তথ্য, বিবরণীসহ সব পাঠাতে ব্যাংকগুলোকে চিঠি দেয় বাংলাদেশ ব্যাংকের ফাইন্যান্সিয়াল ইনটেলিজেন্স ইউনিট। ওইসময় যুবলীগ ঢাকা মহানগর দক্ষিণের বহিষ্কৃত সভাপতি ইসমাইল চৌধুরী স¤্রাটসহ আরও কয়েকজনের ব্যাংক হিসাব তলব করা হয়েছিল।

চলমান ক্যাসিনোবিরোধী অভিযানের পর বিতর্কিত মন্তব্য করে সমালোচনার মুখে পড়েন যুবলীগের অব্যাহতি পাওয়া চেয়ারম্যান ওমর ফারুক চৌধুরী। এক পর্যায়ে দলের মধ্যে কোণঠাসা হয়ে পড়েন এই প্রভাবশালী নেতা। এরই মধ্যে নতুন নেতৃত্ব আনার জন্য ঘোষণা করা হয় যুবলীগের সম্মেলনের। এই উপলক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে রবিবার যুবলীগের শীর্ষ নেতারা সাক্ষাৎ করতে গেলে সেখানে সিদ্ধান্ত হয় ওমর ফারুককে যুবলীগ থেকে অব্যাহতি দেয়ার।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

সর্বশেষ খবর

………………………..

shares