গোয়াইনঘাটে প্রতিমা বিসর্জনের মধ্যে দিয়ে শেষ হলো শারদীয় দূর্গাপূজা

প্রকাশিত: ৬:৪২ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ৮, ২০১৯

গোয়াইনঘাটে প্রতিমা বিসর্জনের মধ্যে দিয়ে শেষ হলো শারদীয় দূর্গাপূজা

Sharing is caring!

সিলেটের গোয়াইনঘাট উপজেলায় ৩৮টি পূজামন্ডপে প্রতিবারের ন্যায় এবারও জাকজমক এবং শান্তি পূর্নভাবে পালিত হলো সনাতন ধর্মালম্বীদের শারদীয় দূর্গাপূজা। এ উপলক্ষ্যে গোয়াইনঘাট উপজেলা প্রশাসন ও আইনশৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনী উপজেলার প্রতিটি পূজামন্ডপ নিরাপত্তার চাদরে বেষ্টিত করে রাখে। যার কারনে সনাতন ( হিন্দু) ধর্মালম্বীরা নিরাপত্তার সহিত কোন প্রকার অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়াই শুক্রবার থেকে মঙ্গলবার( ৬ষ্ঠি থেকে বিজয়া দশমী পর্যন্ত) আনুষ্ঠানিকভাবে উদযাপিত দূর্গাপূজার সকল কার্যক্রম সুষ্ঠভাবে সম্পন্ন করেছে।

সরেজমিনে,মঙ্গলবার সকাল থেকে উপজেলার প্রতিটি পজা মন্ডপ পরিদর্শনে দেখা যায়, সনাতন ( হিন্দু) ধর্মালম্বীদের বিভিন্ন বয়সী নারী পুরুষ ও শিশুরা পূজা অর্চনায় মগ্ন। উপজেলার ৩৮টি পুজামন্ডপের মধ্যে সব চেয়ে বড় মন্ডপটি ছিল গ্য়োাইনঘাট উপজেলা সদরের শিব বাড়ীতে অনুষ্টিত দূর্গা মন্দির। পুজা অর্চনায় উপজেলার বিভিন্ন রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ,শিক্ষক-শিক্ষিকা,সরকারী-বেসরকারী কর্মকর্তা,সাংবাদিক,পুলিশ বিভাগ,সাংস্কৃতিক ব্যাক্তিবর্গ ও অন্যান্য সকল পেশাজীবির স্বতঃফুর্ত অংশগ্রহন ছিল লক্ষ্যনীয়। পরিদর্শনে দেখা যায়, প্রতিটি পুজা মন্ডপের নিরাপত্তা নিশ্চিত করনে বিঞ্জ অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট সিলেট আবুল কালাম, গোয়াইনঘাট উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিশ^জিত কুমার পাল,সহকারী পুলিশ সুপার গোয়াইনঘাট সার্কেল নজরুল ইসলাম,গোয়াইনঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আব্দুল আহাদ,বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান ফারুক আহমদ,সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল হাকিম চৌধুরী,ফিল্ড অফিসার জাতীয় নিরাপত্তা গোয়েন্দা মোঃ মোকাররাম আলী,গোয়াইনঘাট প্রেসক্লাব সভাপতি এমএ মতিন,সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন,সাংবাদিক মিনহাজ উদ্দিন,মো. আলী হোসেন পরিদর্শন রেজিষ্টারে ভিন্ন ভিন্ন মতামত তুলে ধরেছেন এবং আইন শৃংঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখায় উপজেলা প্রশাসন ও বিভিন্ন স্থরের নিরাপত্তা বাহীনিকে ধন্যবাদ ঞ্জাপন করেন।

বাঙ্গালী হিন্দুদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব দূর্গাপুজা সমাজের অন্যায়,অবিচার,অশুভ শক্তি দমন’র মাধ্যেমে শান্তি প্রতিষ্টার লক্ষ্যে আবহমান কাল থেকে এদেশের হিন্দু সম্প্রদায় বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনার ও উৎসবমূখর পরিবেশে নানা উপচার ও আনুষ্ঠনিকতার মাধ্যেমে দূর্গাপুজা পালন করে আসছে। সেই সাথে সবাই পরিবার পরিজন নিয়ে নিরাপদ এবং শান্তিপূর্নভাবে বসবাস’র পাশাপাশি এ উৎসবকে সার্বজনীন উল্লেখ করা হয়েছে। মঙ্গলবার বিকেলে প্রতিটি পূজামন্ডপের প্রতিমা বিসর্জনের মাধ্যেমে শেষ হলো শারদীয় দূর্গাপুজা।

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

সর্বশেষ খবর

………………………..

shares