জৈন্তাপুরে মানবপাচারকারী স্বামী-স্ত্রী আটক

প্রকাশিত: ৬:২৪ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ৪, ২০১৯

জৈন্তাপুরে মানবপাচারকারী স্বামী-স্ত্রী আটক

Sharing is caring!

সিলেটের জৈন্তাপুর থেকে মানব পাচারকারী স্বামী-স্ত্রীকে আটক করেছে থানা পুলিশ। তাদেরকে মানব পাচার আইনে মামলা দায়ের পূর্বক আদালতে প্রেরণ করেছে।

অভিযোগ সূত্রে ঝানা যায়, মানব পাচারকারী দলের সদস্যরা বিবাদীর পূর্ব পরিচিত, বিবাদী কুলছুমা বেগমকে বিদেশে ভাল বেতনে কাজ পাইয়ে দেওয়া জন্য কৌশলে রাজি করে। ২৬ জানুয়ারী তারিখ বিকাল ৬টায় বাড়ীর বাহির হয়। পরবর্তীতে ২ ফেব্রুয়ারী ২০১৯ তারিখ দিলারা বেগম (৪০) বিদেশে যাওয়ার ব্যবস্থা করিয়া দেয়। বিদেশে যাওয়ার পর দিলারা বেগমের লোক আমাকে এয়াপোর্ট হতে নিয়ে সেখানে একটি বাসায় রাখে। ওই বাসার মালিক সহ তাহার ছেলে আমার সাথে খারাপ ব্যবহার সহ শারিরিক নির্যাতন শুরু করে।

এক পর্যায় তারা বলে টাকা দিয়ে আমাকে কিনে এনেছে তারা যা খুশি তাই করতে পারবে। তাদের নির্যাতন সহ্য করতে না পারলে ওই বাসার মালিক আমাকে অন্য বাসায় দিয়ে আসে। সেখানেও একই অবস্থায় আমার উপর নির্যাতন চলে। আমি তাদের নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে পালিয়ে যাই। সেদেশের পুলিশ আমাকে উদ্ধার করে এম্বেসিতে নিয়ে আসে। এম্বেসির অফিসার আমার বিষয় অবগত হয়ে আমাকে সেইভ হাউসে নিয়ে আসে। পরবর্তীতে সেইভ হাউসের মাধ্যমে আমি দেশে ফেরত আসি।

এঘটনায় কুলছুমা বেগম বাদী হয়ে ২ অক্টোবর জৈন্তাপুর থানায় লিখিত এজাহার দাখিল করলে পুলিশ তদন্ত সাপেক্ষে ২০১২ সনের পাচার ও প্রতিরোধ আইনের ৬,৭,৮ ধারায় মামলা রেকর্ড করে (যাহার নং-০৪, তারিখঃ ০২-১০-২০১৯ ইংরেজী)। মামলা রেকর্ডের পর মোবাইল ট্যাকিংয়ের মাধ্যমে ২ অক্টোবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় এস.আই আজিজুর রহমানের নেতৃত্বে অভিযান করে জৈন্তাপুর উপজেলার শুক্রবারী বাজার হতে মানব পাচারকারী চক্রের সদস্য সিলেট জেলার বালাগঞ্জ থানার মৈশাশী গ্রামের জসিম উদ্দিনের স্ত্রী দিলারা বেগম(৪০) ও তার স্বামী মৈশাশী গ্রামের জসিম উদ্দিন(৪৮) কে আটক করা হয়।

জৈন্তাপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ শ্যামল বনিক বিষয়টি নিশ্চিত হয়ে বলেন, মানব পাচারকারীরা কৌশলে প্রত্যান্ত অঞ্চলের গরীব অসহায় নারীদের বিদেশে ভাল বেতনে চাকুরীর প্রলোভন দেখিয়ে তারা নারী পাচার করে আসছে। তাদেরকে ৩ অক্টোবর মামলা দায়ের পূর্বক আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

সর্বশেষ খবর

………………………..

shares