প্রচ্ছদ

জৈন্তাপুরে হাওর অঞ্চলের মানুষের যাতায়াতে একমাত্র ভরসা নৌকা, সময়ের দাবি একটি ব্রিজ

২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৯:১৮

জৈন্তাপুর প্রতিনিধি ::

Sharing is caring!

জৈন্তাপুর ইউনিয়নের ডুলটিরপার, বাওন হাওর, চাত্তলারপার, শেওলারটুক সহ পার্শ্ববর্তী এলাকার কয়েকটি গ্রামের মানুষের যাতায়াতের জন্য রাস্তাঘাট এবং স্থানীয় সুবড়ী খালের উপর ব্রিজের অভাবে অন্তত ৫/৭ হাজার গ্রামবাসি চরম বিড়ম্বানার মধ্যে রয়েছেন। স্থানীয় জনগণ বর্ষার মৌসুমে যাতায়াতের বাহন হিসাবে একমাত্র নৌকা ব্যবহার করতে হয়। এক গ্রাম থেকে অন্য গ্রামে যেতে হলে নৌকা দিয়েই যাতায়াত করতে হচ্ছে। স্কুল ,কলেজ, মাদ্রাসা পড়–য়া এবং বিভিন্ন পাথর কোয়ারীতে কর্মরত শ্রমজীবি মানুষ প্রতিদিন নৌকা দিয়ে চলাচল করতে হয়। সামান্য বৃষ্টিপাত এবং পাহাড়ি ঢল হওয়া মাত্র বন্যা পরিস্থিতি দেখা দেয়। ফলে এই অঞ্চলের শত শত মানুষ পানি বন্ধী হয়ে পড়েন। জীবন জীবিকার তাগিদে এখানকার মানুষ জৈন্তাপুর-রাংপানি বাংলাবাজার, জাফলং বাজার যাতায়াত করতে হলে নৌকা ছাড়া বিকল্প কোন বাহন নেই। স্থানীয় জনগনের প্রাণের দাবী সুবড়ী খালের উপর একটি ব্রিজ নির্মাণ করা এবং রাস্তাঘাট সংস্কার করা হলে কিছুটা হলেও এই জনপদের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন ঘটবে। সুবড়ী খালের উপর মাত্র ৫০/৬০ ফুট দীর্ঘ ব্রিজ নির্মাণ করা হলে এই অঞ্চলের মানুষের অনেক দিনের সমস্যা সমাধান হয়ে যাবে। জৈন্তাপুর ইউনিয়ন অফিস হয়ে শিখারখাল ব্রিজ পার হয়ে ডুলটিরপার সহ পার্শ্ববর্তী গ্রামের বাসিন্দাগনের জন্য সুবড়ী খালের উপর মুজিবুর রহমানের বাড়ি সংলগ্ন স্থানে ব্রিজ নির্মাণ করা হলে অন্তত ৫/৭ হাজার মানুষের যাতায়াত ব্যবস্থা সুবিধা হবে। এতে উপকৃত হবেন এই এলাকার কয়েক হাজার কৃষকগণ। নলজুরী ,জাফলং-জৈন্তাপুর, রাংপানি বাংলা বাজার তাদের কৃষি পূণ্য বাজারে নিতে সহজ হবে।
গত ১৯ সেপ্টেম্বর সরজমিনে এই এলাকা পরিদর্শন কালে গ্রামের সাধারণ মানুষ দাবী জানান, সুবড়ী খালের উপর একটি ব্রিজ নির্মাণ করা হলে তাদের কিছুটা হলেও সমস্যা সমাধান হবে। সরজমিনে এই এলাকা পরিদর্শন কালে মনে হয়েছে জৈন্তাপুর ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের জনগন একবিংশ শতাব্দীতে একটি বিচ্ছিন্ন দ্বীপের মধ্যে বসবাস করছেন। ডুলটিরপার শেওলারটুক ,বাহান হাওর,চাত্তলার পর গ্রামের ভৌগলিক অবস্থা চারিদিকে ছোট-বড় নদী ও খাল বেষ্টিত অবস্থান রয়েছে। জীবন জীবিকার তাগিদে প্রতিদিন প্রয়োজনীয় কাজে বাড়ির বাহিরে হাটবাজার করতে হলে তাদের অন্তত ৫ কিলোমিটার দুরত্ব পথ নৌকা দিয়ে পাড়ি দিতে হয়। এই অবস্থায় এখানকার মানুষ বিগত ৫০ বছর থেকে বসবাস করে আসছেন। তাদের অভিযোগ স্বাধীনতার পর থেকে অনেকে জনপ্রতিনিধি সুবড়ী খালের উপর ব্রিজ নির্মাণের আশ্বাস দিয়েছিলেন। বাস্তবে এখান ব্রিজ নির্মাণ করা হয় নাই। যাতায়াতের জন্য সাধারণ মানুষ কে নানা দূভোর্গ পোহাতে হচ্ছে। ডুলটিরপার এলাকায় একটি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে রয়েছে। নয়াগাং নদীর তীরবর্তী স্থানে স্কুলটির অবস্থান হওয়ায় ছাত্র/ছাত্রীদের প্রতিদিন স্কুলে যাতায়াত করতে হলে জীবনের ঝুকি নিয়ে নৌকা দিয়ে কয়েকটি খাল ও নদী পার যেতে হয়।
বর্ষার মৌসুমে বিভিন্ন সামাজিক অনুষ্ঠান এবং বসতঘর নির্মাণ সামগ্রি নিতে হলে নৌকা ব্যবহার করতে হয়। শীতকালে দীর্ঘ পথ পায়ে হেটে বাজার হাটে যাতায়াত করতে হয় এবং অনেক খাল-নদী পার হয়ে যেতে হয়। বিগত দুই বছর পর্বে স্থানীয় সংসদ সদস্য প্রবাসী ক্যালণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ এমপি‘র প্রচেষ্টায় শিকার খাল নদীর উপর ব্রিজ নির্মাণ হওয়ায় এই এলাকা যোগাযোগ ব্যবস্থায় অনেকটা উন্নতি হয়েছে। সাবেক ইউপি সদস্য আজগর আলী , মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ড নেতা আব্দুল কাদির জানান, বর্ষার মৌসুমে নৌকা ছাড়া আমাদের এলাকার জনগনের চলাচলের আর কোন বিকল্প বাহন নেই। স্কুল,কলেজ, মাদ্রাসা এবং শ্রমজীবি মানুষ প্রতিদিন নৌকা দিয়ে রাংপানি বাংলাবাজার এবং জৈন্তাপুর বাজারে যাতায়াত করেন। সম্প্রতি সময়ে রাংপানি বাংলাবাজার ও লক্ষীপুর এলাকার কিছু জনসাধারণ নাফিত খাল,কলসী নদীতে আমাদের নৌকা চলাচলের উপর নানা ভাবে বাধাঁ সৃষ্টি করেআব্দুল কাদির নামের এক প্রতিবন্ধি ছেলে কে এ নদী দিয়ে নৌকা নিয়ে আসার কারণে তাকে শাররীক নির্যাতন করা হয়। এ নিয়ে প্রতিবন্ধি আব্দুল করিম জৈন্তাপুর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করে। হাওর অঞ্চলের সাধারণ মানুষের যাতায়াত কাজে আমরা রাংপানি-নাফিত খাল ও কলসী নদীতে নৌকা চলাচল অব্যহত রাখতে উপজেলা প্রশাসনের নিকট আবেদন জানায়। তারা বলেন, সুবড়ী খালের উপর ব্রিজ নির্মাণ করা হলে এলাকার জনগন সহজে রাস্তা দিয়ে যাতায়াত করতে পারবেন। জৈন্তাপুর ইউনিয়ন অফিসের সামনে থেকে ডুলটিরপার হয়ে জাফলং পর্যন্ত রাস্তা নির্মাণ নির্মাণ করা হলে সাধারণ মানুষ চলাচল সহজ হবে। তারা শিখার-খাল নদীর উপর ব্রিজ নির্মাণ করায় এমপি ইমরান আহমদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান এবং ডুলটিরপার সহ এই অঞ্চলের মানুষের প্রাণের দাবী সুবড়ী খালে উপর ব্রিজ নির্মাণ এমপি মহোদয়ের নিকট দাবী করেন। এবং এসব খাল নদী দিয়ে চোরা কারবারীরা বড় বড় ইঞ্জিন চালিত নৌকা দিয়ে অবৈধ ভারতীয় মালামাল বহনের বন্ধের আহবান করেন।
ইউপি সদস্য ফারুক আহমদ বলেন, জৈন্তাপুর ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ডের ডুলটিরপার, বাওন হাওর, শেওলারটুক চাত্তলারপর এবং নলজুরী গ্রামের একাংশের বাসিন্দাগন রাস্তাঘাট, বিশুদ্ধ পানি, কয়েকটি ছোট নদী এবং খালের উপরে একটি ব্রিজের অভাবে যাতায়াত ব্যবস্থার ক্ষেত্রে চরম বিড়ম্বনার মধ্যে রয়েছেন। তিনি সুবড়ী খালের উপর ব্রিজ নির্মাণ করার ব্যবস্থা করতে স্থানীয় সংসদ সদস্য ইমরান আহমদ সহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি অনুরোধ জানান।

  •  
  •  
  •  

সর্বশেষ ২৪ খবর

আর্কাইভ

September 2019
S S M T W T F
« Aug   Oct »
 123456
78910111213
14151617181920
21222324252627
282930  
shares