জৈন্তাপুরে আটককৃত ৩ ছিনতাইকারিকে আদালতে মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ

প্রকাশিত: ৪:৫০ অপরাহ্ণ, আগস্ট ৬, ২০১৯

জৈন্তাপুরে আটককৃত ৩ ছিনতাইকারিকে আদালতে মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ

Sharing is caring!

সিলেটের জৈন্তাপুরে ২০ লক্ষ টাকা ছিনতাইর ঘটনায় আটককৃত ৩জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের, আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ ।

সিলেটের জৈন্তাপুরে ২০লক্ষ টাকা ছিনতাইর ঘটনায় জনতা ও পুলিশ কর্তৃক আটককৃত ৩জনকে ৬ আগষ্ট মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১১টায় জৈন্তাপুর মডেল থানা পুলিশ আদালতে প্রেরন করে (মামলা নং-৩, তারিখ ০৫-০৮-২০১৯)। আটককৃত ছিনতাইকারীরা হল কানাইঘাট উপজেলার গড়াইগ্রাম বর্তমান শাহপরান থানার শাহজালাল উপশহর ডি বøকের ২৭নং রোডের ৭নং বাসার বসিন্ধা মুজিবুর রহমান চৌধুরী উরফে লাল মেম্বারের ছেলে আতিকুর রহমান চৌধুরী লাভলু (৩৩) ও জকিগঞ্জ থানার পরচক গ্রামের মৃত একরামুল চৌধুরীর ছেলে বদরুল হক চৌধুরী ফাহিম (৩২)। কানাইঘাট উপজেলার বড়বন্দ (লাকটিলা) গ্রামের আব্দুস সালামের ছেলে মঞ্জুর উদ্দিন (৩২)। পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে তারা জানায় তেল পাম্প ডাকাতির ঘটনা পুরো মাষ্টার প্ল্যান তৈরী করে আতিকুর রহমান লাভলু, তার নির্দেশনা মোতাবেক ১০/১২ জনের একটি ছিনতাইকারী চক্র ছিনতাইর কাজে ছিল। তারা টাকা লুটের আগেই দরবস্ত হতে তেল পাম্প পর্যন্ত এলাকায় পাহারায় নিয়োজিত ছিল। যখন শাপলা ফিলিং ষ্টেশনের কর্মচারী বাহার উদ্দিন, সাহাব উদ্দিন ও শহিদ মিয়া পাম্প হতে টমটম গাড়ী যোগে পূবালী ব্যাংকে যাওয়ার পথে জৈন্তিয়া ডিগ্রী কলেজ এলাকার পৌছা মাত্রই টমটমের গতিরোধ করে টাকা ছিনতাই করে পালিয়ে যায়। এসময় বাহার সাহাব শহিদের চিৎকারের করনে লোকজন লাভলু ও ফাহিমকে আটক করতে পারলেও বাকীরা কানাইঘাট উপজেলার নানকা চা-বাগান এলাকা দিয়ে পালিয়ে যায়। পুলিশ পরে নানাকা চা বাগান এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে ছিনতাইকারী চক্রের অন্য সদস্যের কাছ থেকে ১লক্ষ ১০ হাজার টাকা উদ্ধার করতে সক্ষম হয়। পুলিশ আরও জানায় চক্রটি দীর্ঘ দিন হতে সিলেট বিভাগের বিভিন্ন স্থানে ছিনতাইর কাজ পরিচালনা করে আসছে, বিশেষ করে শহরের বাহিরে ডাকাতি ও ছিনতাইর ঘটনা জড়িত ছিল এ চক্রটি। তাদের বিরুদ্ধে সিলেটের বিভিন্ন থানায় একাধিক মামলা রয়েছে। লাভলু ও ফাহিম সিলেট বিভাগের সেরা ৫জন ডাকাত ও ছিনতাইকারীর অন্যতম ২জন।

এ ঘটনায় ছিনতাইকারী চক্রের অন্যান্য ছিনতাইকারীদের ধরতে এবং লুন্ঠিত টাকা উদ্ধার করতে জৈন্তাপুর মডেল থানা পুলিশ তৎপর রয়েছে।

জৈন্তাপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ শ্যামল বনিক জানান- এলাকাবাসী যতেষ্ট সহযোগিতা আমি তাদেরকে আটক করতে সক্ষম হয়েছি। আটককৃতরা বিভিন্ন তথ্য দিয়েছে, তাদের দেওয়া তথ্য মতে বাকীদের আটক ও টাকা উদ্ধার করতে আমরা সিলেট, জৈন্তাপুর, গোয়াইনঘাট ও কানাইঘাট এলাকায় অভিযান পরিচালনা করছি। আটককৃত ৩জনকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

August 2019
S S M T W T F
 12
3456789
10111213141516
17181920212223
24252627282930
31  

সর্বশেষ খবর

………………………..

shares