চার ছাত্রীকে যৌন হয়রানি, বড় হুজুর বললেন ষড়যন্ত্র

প্রকাশিত: ৬:৫৮ অপরাহ্ণ, জুলাই ২৭, ২০১৯

চার ছাত্রীকে যৌন হয়রানি, বড় হুজুর বললেন ষড়যন্ত্র

Sharing is caring!

নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লায় একটি মাদরাসায় চার ছাত্রীকে যৌন হয়রানির অভিযোগে ওই মাদরাসার প্রতিষ্ঠাতা বড় হুজুর খ্যাত মোস্তাফিজুর রহমানকে আটক করেছে র‌্যাব-১১ এর একটি টিম। শনিবার দুপুর ২টার দিকে ফতুল্লার ভূইগড় আবাসিক এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করা হয়।

র‌্যাব-১১ এর কোম্পানি কমান্ডার মেজর তালুকদার নাজমুস সাকিব বলেন, দুপুরে ফতুল্লার ভূইগড়ে আবাসিকে দারুল হুদা মহিলা মাদরাসায় অভিযান চালিয়ে মাদরাসার প্রতিষ্ঠাতা মোস্তাফিজুর রহমানকে আটক করা হয়েছে। ছয় বছর আগে তিনি এ মাদরাসা প্রতিষ্ঠা করেন। তিনি মাদরাসায় বড় হুজুর হিসেবে পরিচিত।

তিনি আরও বলেন, কয়েকজন অভিভাবকের কাছ থেকে অভিযোগ পেয়ে তাকে আটক করা হয়েছে। ইতোমধ্যে চারজন ছাত্রীর বিষয়ে আমরা নিশ্চিত হয়েছি যারা যৌন হয়রানির শিকার হয়েছে। তাছাড়া বড় হুজুরের মোবাইলেও বেশ কিছু রেকর্ড পাওয়া গেছে। এছাড়া তিনি প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদেও চার ছাত্রীকে যৌন হয়রানির বিষয়টি স্বীকার করেছেন।

জর তালুকদার নাজমুস সাকিব জানান, যৌন হয়রানির শিকার প্রত্যেকের বয়স ১০ থেকে ১৭ বছর। মোস্তাফিজুর রহমানকে আরও জিজ্ঞাসাবাদ করা হলে বিস্তারিত সব কিছু জানা যাবে।

র‌্যাব জানায়, মোস্তাফিজুর রহমান ওই মাদরাসাতেই পরিবার নিয়ে বসবাস করেন। তার বাড়ি নেত্রকোনা জেলাতে। তার দুই মেয়ে ও এক ছেলে রয়েছে।

তবে আটক মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, এলাকার আবু তাহের ও মাহাবুবুর রহমানসহ আরও কয়েকজন মিলে পরিকল্পনা করে ষড়যন্ত্র করে আমার বিরুদ্ধে এসব নাটক সাজিয়েছে। আমার বিরুদ্ধে করা অভিযোগগুলো সত্য না।

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

সর্বশেষ খবর

………………………..

shares