এক মাস সময় ধরে তাহিরপুর-সুনামগঞ্জ সড়কে যানবাহন চলাচল বন্ধ, চরম দূর্ভোগ

প্রকাশিত: 12:37 AM, July 26, 2019

এক মাস সময় ধরে তাহিরপুর-সুনামগঞ্জ সড়কে যানবাহন চলাচল বন্ধ, চরম দূর্ভোগ

সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলায় পাহাড়ি ঢলে পানির চাপে গুরুত্বপূর্ন তাহিরপুর-সুনামগঞ্জ সড়কের একাধিক স্থানে ভাঙ্গনসহ আনোয়রপুর ব্রীজের সংযোগ সড়কটি বেশ কিছু অংশ ভেঙ্গে যায়। ভাঙ্গা সড়ক মেরামত না করায় বিপাকে পড়েন পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান। তিনি গত রবিবার(০৭,০৭,১৯)পারিবারিক ভ্রমনে তাহিরপুরে আসতে চাইলে আানোয়ারপুরের ব্রীজ সংযোগ রাস্তার যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন থাকায় নৌকাযোগে টেকেরঘাটে যান। এসময় মন্ত্রী দ্রæত চলাচলের দূর্ভোগের সমাধানের আশ^াস দেন। কিন্তু আজও কোন সড়ক মেরামতের উদ্যোগ নেওয়া হয় নি।

একারনে একমাস ধরে জেলা সদরের সাথে এসড়ক দিয়ে সিএনজি,লেগুনাসহ বিভিন্ন ধরনের যানবাহন চলাচল একবারেই বন্ধ রয়েছে। যানবাহন বন্ধ থাকায় শিক্ষার্থী,চাকরীজীবি,পর্যটক,ব্যবসায়ীসহ সর্বস্থরের মানুষ চরম দূর্ভোগ মাঝে ভাঙ্গা অংশে পায়ে হেটে চলাচল করছে। এদিকে পাহাড়ী ঢলের পানি কমলেও সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষ সড়কটি মেরামতে গাফিলতি,দায়িত্বহীনতার কারনে শুরু হয়নি তাহিরপুর-সুনামগঞ্জ সড়কে সরাসরি যানচলাচল। ফলে ভোগান্তির শিকার যাত্রীদের মাঝে চরম ক্ষোব বিরাজ করছে।

জানাযায়, গত ২৪জুন থেকে ভারী বৃষ্টিপাতে ভারতের মেঘালয়ের ভারী বৃষ্টিপাতে উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢল নদী দিয়ে নেমে আসায় পানি প্রবল বেগে আনোয়ারপুর ব্রীজের প‚র্ব পাশে সড়কের নীচু স্থান দিয়ে পানির তোড়ে ভেঙ্গে গেছে প্রায় ২শ মিটার সড়ক। এরপর থেকে কোন ধরনের যানবাহন তাহিরপুর উপজেলা সদরে আসছে না আর উপজেলা সদর থেকে কোন যানবাহন যেতেও পারছে না।

গুরুত্বপূর্ন এই সড়কটি দ্রæত মেরামত করার দাবী জানান পর্যটক সাজিদুর রহমান। তিনি বলেন,সুনামগঞ্জ থেকে সিএনজি নিয়ে আনোয়ারপুর ভাঙ্গা অংশে আটকে যাই। পরে পায়ে হেটে আরেকটি সিএনজি দিয়ে তাহিরপুর এসেছি। এই সড়কটি ভাঙ্গা না থাকলে সহজে গাড়ি নিয়ে উপজেলা সদরে আসা যেত।

সিএনজি চালক আরিফ জানান,বন্যা পর থেকে তাহিরপুর থেকে সুনামগঞ্জ যাত্রী পরিবহন বন্ধ রয়েছে। তাহিরপুর-আনোয়রপুর ব্রীজ পর্যন্ত যেতে পারি। ভাঙ্গা অংশে একটু মেরামত করে দিলেই আমরা সিএনজি নিয়ে সুনামগঞ্জ জেলা শহরে যেতে পারতাম। কিন্তু পারছিনা। ফলে টাকা উপার্জন করতে না পারায় পরিবার পরিজন নিয়ে বর কষ্টের মাঝে দিন পার করছি।

ব্যবসায়ী সাদেক আলী বলেন,পণ্য পরিবহনের গাড়ি চলাচল না করতে পারায় শত শত ব্যবসায়ীরা পড়ছেন চরম বিপাকে পড়েছে। সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন থাকার কারণে পণ্য পরিবহনের গাড়ি আসতে পারছে না তাহিরপুর উপজেলা সদরে। ফলে মালামাল আনতে গেলে খরচের পরিমান বেশী হয়। এভাবে চলা যায় না। গুরুত্বপূর্ন সড়কটি দায়িত্বহীনতার কারনেই উপজেলাবাসী বার বার দুর্ভোগের মাঝে থাকি।

এবিষয়ে তাহিরপুর উপজেলা প্রকৌশলী সাইদুল্লা মিয়া বলেন,আমার উধর্বতন কর্মকতাদের বিষয়টি জানিয়েছি। হালকা যানবাহন চলাচলের জন্য ঠিকাদারকে বলেছি জনস্বার্থে এবং জনদুর্ভোগ কমাতে এই সড়কে ভাঙ্গা অংশে মেরামত করে দেন। এছাড়াও আমরা চেষ্টা করছি যত দ্রæত সম্ভব সড়কটি মেরামত করে যানবাহন চলাচলের উপযোগী করা হবে।

তাহিরপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান করুণা সিন্ধু চৌধুরী বাবুল বলেন,র্দীঘ দিন ধরেই উপজেলাবাসী তাহিরপুর-সুনামগঞ্জ সড়কের আনোয়ারপুর ব্রীজ সংযোগ ভাঙ্গা থাকার কারনে চরম দূর্ভোগেহ রয়েছে। দ্রæত সংস্কার না হলে এই সড়ক দিয়ে চলাচলা করতে গিয়ে সর্বস্থরের জনসাধারন চরম দূভোর্গের শিকার হচ্ছে আরো হবে।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

সর্বশেষ খবর

………………………..