গুজব বন্ধে কঠোর বার্তা দিয়েছেন জৈন্তাপুর থানার ওসি

প্রকাশিত: ৭:৪১ অপরাহ্ণ, জুলাই ২৪, ২০১৯

গুজব বন্ধে কঠোর বার্তা দিয়েছেন জৈন্তাপুর থানার ওসি

Sharing is caring!

বাংলাদেশের ন্যায় গলাকাটা পদ্মা সেতুর জন্য মানুষের মাথা ও রক্ত লাগবে এমন গুজবে কেন্দ্র করে সম্প্রতি দেশের বিভিন্ন স্থানের ছেলে ধরা সন্দেহের গনপিটুনিতে মারা যাচ্ছে, তাই জৈন্তাপুর মডেল থানার সকল জনসাধারনের অবগতির জন্য জানিয়েছেন যে, জৈন্তাপুর উপজেলায় সন্দেহজনক কোন ব্যাক্তিকে যদি কোথাও ঘুরা ঘুরি দেখা যায় তবে দ্রæত জৈন্তাপুর মডেল থানায় কিংবা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান অথবা ওয়ার্ড মেম্বার এর কাছে খবর দেওয়ার জন্য অনূরোধ করা হল। কিন্তু কিছতেই আইন নিজের হাতে নেওয়া যাবেনা,আইন নিজের হাতে নিয়ে এবং নিজে বিপদে পড়বেন না। আমরা জৈন্তাপুর উপজেলায় সর্বত্ব মাইকিং এর মাধ্যমে সতর্ক করে দিচ্ছি।

জৈন্তাপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ খান মোঃ মাইনুল জাকিরকে ফোনে এবং ম্যাসেজ এর মাধ্যমে জানাতে পারবেন, এবং থানার সকল অফিসারগন এ ব্যপারে সতর্ক রয়েছেন তারেকে ও জানাতে পারেন, আপনি চাইলে আপনার পরিচয় গোপন রাখা হবে। আসুন আমরা সবাই মিলে মুরব্বি শাসিত ১৭ পরগনার জৈন্তাপুর কে সোনার জৈন্তাপর গড়ে তুলি।

দেশের ন্যায় জৈন্তাপুর মডেল থানার বিশেষ সতর্কীকরণ বিজ্ঞপ্তি করা হয়েছে “পদ্মা সেতুর জন্য মানুষের মাথা ও রক্ত লাগবে” এই গুজবকে কেন্দ্র করে সম্প্রতি দেশের বিভিন্ন স্থানে ছেলে ধরা সন্দেহে গনপিটুনিতে বেশ কয়েক জনের নিহত হবার ঘটনা ঘটেছে।

দেশবাসির জ্ঞাতার্থে আবার ও জানানো যাচ্ছে যে, এটি সম্পূর্ণরুপে একটি গুজব। কোন প্রকার গুজবে কান দিবেন না এবং গুজব ছড়িয়ে মানুষকে বিভ্রান্ত করবেন না।

সেই সাথে দেশবাসিকে অনূরোধ করা হচ্ছে যে, গুজবে বিভ্রান্ত হয়ে ছেলে ধরা সন্দেহে কাউকে গনপিটুনি দিয়ে আইন নিজের হাতে তুলে নিবেন না।

এ পর্যন্ত গনপিটুনির ফলে যতগুলো নিহতের ঘটনা ঘটেছে তার প্রত্যেকটি ঘটনা আমলে নিয়ে পুলিশ তদন্তে নেমেছে এবং জড়িতদের গ্রেফতার করে আইন আওতায় আনা হয়েছে।

এ ধরনের গুজব ছড়িয়ে দেশে অস্থিতিশীলতা তৈরী করা রাষ্ট্র বিরোধি কাজের সামিল এবং গনপিটুনি দিয়ে মৃত্যু ঘটানো গুরতর ফৌজদারী অপরাধ। আসুন আমরা সবাই মিলে সচেতন হই, গুজব ছড়ানো এবং গুজবে কান দেয়া থেকে বিরত থাকি, এবং কাউকে ছেলে ধরা হিসেবে সন্দেহ হলে গনপিটুনি না দিয়ে তাকে পুলিশের হাতে তুলে দেই।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

সর্বশেষ খবর

………………………..

shares