‘গিলাফ’ নিয়ে আলোচনায় সিলেটের জুয়ার রাজা হাজী জাহাঙ্গীর

প্রকাশিত: ১২:৫৬ পূর্বাহ্ণ, জুলাই ২৪, ২০১৯

‘গিলাফ’ নিয়ে আলোচনায় সিলেটের জুয়ার রাজা হাজী জাহাঙ্গীর

Sharing is caring!

সিলেটে শিলং তীর জুয়ার রাজা বলা হয় তাকে। প্রায় সারাবছর তার কাজিরবাজারস্থ আস্তানায় (মাছের আড়ৎ) চলে এই জুয়া। বারবার প্রশাসন অভিযান চালিয়ে জুয়াড়িদের আটক করতে সক্ষম হলেও ক’দিন পর আবারও শুরু হয় এই জুয়া।

তাছাড়া নদীর তীর দখলতো আছেই, চলে আরো নানা আকাম-কুকাম। তিনি হাজী মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর। মাত্র কিছুদিন আগে নগরজুড়ে আলোচনায় ছিলেন জাহাঙ্গীর। তার কাজিরবাজারস্থ আস্তানা থেকে ২২ জুয়াড়িকে গ্রেফতার করা হয়েছিল। মঙ্গলবার থেকে আবারো আলোচনায় তিনি। এবার হযরত শাহজালাল (র.) এর ওরসকে কেন্দ্র করে।

দুপুর ১২টায় রাজকীয় বেশভূষায় হাজী জাহাঙ্গীর রাজপথ কাঁপিয়ে বিশাল গিলাফ নিয়ে গিয়েছেন মাজারে। তারপর তা ছড়িয়েও দিয়েছেন। শুধু তাই নয়, এরপরই সেই সংবাদ ও ছবি পাঠিয়ে দিয়েছেন সবকটি পত্রিকায়।

তো জাহাঙ্গীরের এই ছবি ও সংবাদ নাম সর্বস্ব কয়েকটি অনলাইন সংবাদপত্র প্রকাশও করেছে। এরপরই তাকে নিয়ে শুরু হয় আলোচনা-সমালোচনা। কাজিরবাজার এলাকার নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন ব্যবসায়ী বলেন, প্রশাসন ও সমাজের চোখে ধুলো দিতে এটি হাজী জাহাঙ্গীরের একটা অপকৌশল। যার আস্তানায় রোজ শতশত দরিদ্র মানুষ জুয়া খেলে নিঃস্ব হয় এমন ভন্ডামি তাকেই মানায়।

তালতলার ব্যবসায়ী হাবিবুর রহমান (৪০) বলেন, বিভিন্ন মাজারে ওরসের নামে হাজী জাহাঙ্গীর তার কালো টাকার অংশবিশেষ বিলিয়ে দেন। নিজেকে আধ্যাত্মবাদে বিশ্বাসী একজন বলে ব্যাপক প্রচার করেন। কিন্তু তার কারণে গোটা কাজিরবাজার এলাকা আজ কলুষিত। তীর জুয়ার মহানায়ক তিনি। এছাড়াও নদীর তীর দখল করে কোটি টাকা বানিয়েছেন এই জাহাঙ্গীর। এলাকার মানুষ তাকে ভালো করেই চেনে।

এদিকে হাজী জাহাঙ্গীরের সাথে ঘনিষ্ঠ একাধিক সূত্র জানিয়েছে, তিনি বরাবরই মাজার ভক্ত মানুষ। পীর-ফকির বা অলি-আউলিয়া ও আধ্মত্যবাদী মানুষ।

তবে তার জুয়া ও দখলবাজী নিয়ে মুখ খুলতে রাজী হননি তারা। বিষয়টি নিয়ে কথা বলতে চাইলে হাজী জাহাঙ্গীরের মোবাইলে একাধিকবার কল দিলেও তিনি তা রিসিভ করেন নি।

সূত্র-সিলেট ভিউ

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

সর্বশেষ খবর

………………………..

shares