কানাইঘাটে আদম ব্যবসায়ী হোসেন গ্রেফতার

প্রকাশিত: ৯:৪৪ অপরাহ্ণ, জুন ৩০, ২০১৯

কানাইঘাটে আদম ব্যবসায়ী হোসেন গ্রেফতার

কানাইঘাট দিঘীরপার ইউপির জয়ফৌদ গ্রামের বীরমুক্তিযোদ্ধা পরিবারের এক সন্তান কে সৌদি আরব পাঠিয়ে প্রতারনার দায়ে হোসেন আহমদ (৫০) নামে এক আদম ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করেছে কানাইঘাট থানা পুলিশ। গত শনিবার দুপুরে তাকে গ্রেফতার করা হয় বলে পুলিশ সূত্রে জানা গেছে। গ্রেফতারকৃত হোসেন আহমদের বাড়ী জকিগঞ্জ উপজেলার মাতারগ্রামে। সে কানাইঘাট সড়কের বাজার মঞ্জিল ট্রাভেলস এর পরিচালক। গ্রেফতার হোসেন আহমদকে গতকাল রবিবার আদালতে সোপর্দ করেছে পুলিশ।
অভিযোগে জানা যায়, জয়ফৌদ গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা মৃত নূর উদ্দিনের পুত্র মুক্তার হোসেন (২৬) কে দোকানে কাজ দেওয়ার  নাম করে ৪ লক্ষ ১০ হাজার টাকার বিনিময়ে আদম ব্যবসায়ী হোসেন আহমদ গত ৬ নভেম্বর/২০১৮ইং সনে তাহাকে সৌদি আরব পাঠায়। সেখানে দোকানের কাজ না দিয়ে মুক্তার হোসেন কে সৌদি আরবের মরুভ‚মিতে ছাগল, উট, খরগোস, খাজুর গাছের পরিচর্যার কাজে পাঠানো হলে মুক্তার হোসেন গুরুতর অসুস্থ্য হয়ে পড়ে। কোন ধরনের বেতন না দিয়ে ইচ্ছার বিরুদ্ধে অসুস্থ্য মুক্তার হোসেন মরুভূমিতে ছাগল ও উট চরাতে বাধ্য করা হয়। সে বাড়ীতে তার পরিবারের কাছে অমানষিক দুঃখ দূর দশার খবর পাঠালে ৭ মাস পর সৌদি প্রবাসী কানাইঘাটের আব্দুল মুমিন, বিয়ানীবাজারের গোলাম মৌলা মুক্তার হোসেন সৌদি জিদ্দা হাইল মরুভ‚মি এলাকা থেকে উদ্ধার করে নিজ খরচে দেশে পাঠান তাকে। সৌদি আরবে যাওয়ার পর থেকে মুক্তার হোসেনের পরিবার আদম ব্যবসায়ী হোসেনের আহমদের স্মরনাপন্ন হয়ে মুক্তার হোসেন কে মরুভূমি থেকে উদ্ধার করে ভিসার চুক্তিনামা অনুযায়ী ভাল কাজ দেওয়ার অনুরোধ করলেও কোন কর্ণপাত করেনি হোসেন আহমদ। দেশে ফিরে আসার পর মুক্তার হোসেন ভিসার টাকা হোসেন আহমদের কাছে ফেরত চাইলে সে নানা ধরনের টালবাহানা করায় গত ২৮ মে প্রবাসে গিয়ে প্রতারিত মুক্তার হোসেন বাদী হয়ে আদম ব্যবসায়ী হোসেন আহমদের বিরুদ্ধে সিলেটের মানব পাচার প্রতিরোধ ও দমন ট্রাইবুন্যাল আদালতে দরখাস্ত মামলা দায়ের করলে তদন্ত পূর্বক উক্ত মামলায় হোসেন আহমদকে থানা পুলিশ গ্রেফতার করে।

Sharing is caring!

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

সর্বশেষ খবর

………………………..